Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

সমলিঙ্গের সফল প্রজনন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

সমলিঙ্গের যুগলে সন্তান সম্ভব কিনা তা নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে দীর্ঘ দিন গবেষণা হচ্ছে। এবার সেই প্রচেষ্টায় সফল হয়েছে চীন। চীনের বিজ্ঞানীরা দুটি মা ইঁদুর থেকে জন্ম দিয়েছেন একটি বাচ্চা ইঁদুর। কোন বাবা ইঁদুরের দরকার পড়েনি। প্রাণী জগতে প্রজননের নিয়ম পাল্টে দেয়া এই গবেষণাটি চালায় চীনের একাডেমি অব সায়েন্স। চীনের বিজ্ঞানীরা বলছেন, দুটি মা ইঁদুর থেকে জন্ম নেয়া এই বাচ্চা ইঁদুরগুলো একেবারেই সুস্থ ও স্বাভাবিক। তারাও পরবর্তীতে বাচ্চা ইঁদুরের জন্ম দিয়েছে। পরে একই ধরনের পরীক্ষা চালানো হয়েছে পুরুষ ইঁদুরদের ওপর। ওই গবেষণায়ও বাচ্চা ইঁদুর জন্ম দেয়া সম্ভব হয়েছে। তবে সেই বাচ্চা বেশিদিন বাঁচিয়ে রাখা যায়নি। প্রজননের জন্য দুই বিপরীত লিঙ্গ আসলে কতটা অপরিহার্য তার উত্তর খুঁজতে গবেষকরা এ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। মানুষ থেকে শুরু করে সব ধরনের স্তন্যপায়ী প্রাণীর ক্ষেত্রে কেবলমাত্র দুই বিপরীত লিঙ্গের মিলনের মাধ্যমেই নতুন বাচ্চা জন্ম দেয়া সম্ভব। মায়ের কাছ থেকে দরকার হবে ডিম্বাণু, বাবার কাছ থেকে শুক্রাণু। কিন্তু বিশ্বের অন্য অনেক ধরণের প্রাণীর বেলায় কিন্তু এই একই নিয়ম প্রযোজ্য নয়। কিছু মাছ, সরীসৃপ, উভচর এবং পাখি কিন্তু একা একাই প্রজননের কাজটি করতে পারে। চীনের বিজ্ঞানীদের এই গবেষণার ফলে কি মানব প্রজননের ক্ষেত্রে পুরুষের অপরিহার্যতা শেষ হয়ে গেল? কুমারীর পক্ষে কি এখন সন্তান জন্ম দেয়া সম্ভব? মানুষের ক্ষেত্রে কি সমলিঙ্গে প্রজনন সম্ভব? সেই ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা এখনই কোনো শক্ত ধারণা দিতে নারাজ। তাদের বক্তব্য, নতুন প্রাণের সঞ্চার করতে হলে পুরুষ ও নারী, দুজনেরই সমান ভূমিকা প্রয়োজন। কিন্তু তারা এমন একটি প্রক্রিয়া নিয়ে গবেষণা শুরু করেছেন যেখানে এক পক্ষের জিন দিয়েই প্রজননের চেষ্টা করা যেতে পারে। গবেষকরা বলছেন, সাধারণত শুক্রানুর সঙ্গে শুক্রানুর মিলনে প্রজনন ঘটানোর প্রক্রিয়া জটিল হতে পারে। এক্ষেত্রে ডিম্বানু সক্রিয় ভূমিকা নিতে পারে। এর আগে দুটি স্ত্রী ইঁদুরের মধ্যে সঙ্গম ঘটিয়ে প্রজননের চেষ্টা করেছিলেন বিজ্ঞানীরা। সেবার জন্মানো বাচ্চারা দীর্ঘদিন বেঁচে ছিল। জিনিউজ।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সমলিঙ্গ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ