Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

উপনির্বাচনে জিতে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পথে আনোয়ার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

মালয়েশিয়ায় উপনির্বাচনে জয় পেয়েছেন আনোয়ার ইব্রাহিম। গতকাল শনিবার দেশটির পোর্ট ডিকসন সংসদীয় আসনে উপনির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করে জয়ী হন তিনি। কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর এই প্রথমবারের মতো বড় ধরনের কোনো পরীক্ষার মুখোমুখি হন মালয়েশিয়ার ক্ষমতাসীন জোটের নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম। এটি তার জন্য একটি পরীক্ষা ছিল। গতকাল পোর্ট ডিকসন সংসদীয় আসনে উপনির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করে জয়ী হয়ে তিনি সেই পরীক্ষা উতরে গেছেন।
এই জয়ের ফলে প্রতিশ্রুতি অনুসারে দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার পথ প্রস্তুত হবে এবং দেশটির মূলধারার রাজনীতিতে শুরু হবে আনোয়ার ইব্রাহিমের যুগ। গত মে মাসের নির্বাচনে এই আসনে ক্ষমতাসীন জোটের প্রার্থী ১৭ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছিলেন। মূলত আনোয়ার ইব্রাহিমকে পার্লামেন্টে যাওয়ার সুযোগ করে দিতেই তিনি পদত্যাগ করেন। সেই পোর্ট ডিকসন সংসদীয় আসনে গতকালের উপনির্বাচনে জয়ী হলেন আনোয়ার ইব্রাহিম।
এ বছরের মে মাসে দেশটির একাদশ নির্বাচনে পাকাতান হারাপান জোট ক্ষমতায় আসে। এতে ৬১ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা বারিসন ন্যাশনাল জোট ক্ষমতাচ্যূত হয়। একসময়ের বারিসন জোটের প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ এবারে পাকাতান জোটের হয়ে জিতে প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। নির্বাচনে তার প্রতিশ্রুতি ছিল, একসময় তার সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট আনোয়ার ইব্রাহীমকে কারাগার থেকে মুক্ত করা এবং প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসানো। প্রতিশ্রুতি মোতাবেক সে পথেই হাঁটছেন মাহাথির মোহাম্মদ।
২০১৫ সালে সমকামিতা ও দুর্নীতির অভিযোগে ৭০ বছর বয়সী আনোয়ার ইব্রাহিমকে কারাদন্ড দেওয়া হয়। তবে তার দাবি, রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ধ্বংস করার জন্যই তাকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে।
দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই আনোয়ার ইব্রাহিমের মুক্তির জন্য সুপারিশ করেন মাহাথির। মে মাসেই আনোয়ার ইব্রাহিম রাজক্ষমা লাভ করেন। এরপরই মুক্তি মেলে তার। আনোয়ার ইব্রাহিম কুয়ালালামপুরের চেরাস রিহ্যাবিলিটেশন হসপিটালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সূত্র : এএফপি।



 

Show all comments
  • আজগর ১৪ অক্টোবর, ২০১৮, ২:৫২ এএম says : 0
    বাংলাদেশেও এমন হতে পারে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মালয়েশিয়ায়


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ