Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ময়মনসিংহে পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত ২

ময়মনসিংহ ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৫ অক্টোবর, ২০১৮, ২:৩১ পিএম
ময়মনসিংহ শহরে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) মাদকবিরোধী অভিযানকালে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শরীফ (৩২) ও মো. পায়েল (২৯) নামে দুই যুবক নিহত হয়েছেন।
 
শনিবার দিবাগত রাতে শহরের কালীবাড়ি ও আকুয়া দরগাপাড়া খালপাড়সংলগ্ন এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা দুটি ঘটে।
 
পুলিশের দাবি, নিহত শরীফ ও পায়েল চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা। শরীফের বিরুদ্ধে মাদক, ডাকাতি, মারামারি ও হত্যাসহ সাতটি এবং পায়েলের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মাদক, চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরকদ্রব্য আইনে ১১টি মামলা রয়েছে।
 
নিহত পায়েল শহরের পুরোহিতপাড়া এলাকার বাসিন্দা জালাল উদ্দিনের ছেলে এবং শরীফ জেলা শহরে থাকতেন বলে জানা গেছে।
 
জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, রাত সোয়া ১টার দিকে ডিবি পুলিশের দুটি দল মাদকবিরোধী অভিযানে নামে। পুলিশের একটি দল শহরের আকুয়ার দরগাপাড়া খালপাড়সংলগ্ন এলাকায় অভিযান চালালে ৬-৭ মাদক ব্যবসায়ী পুলিশের ওপর অতর্কিতে হামলা ও গুলি চালায়।
 
আত্মরক্ষার্থে পুলিশ কয়েক রাউন্ড পাল্টা গুলি ছুড়লে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়।
 
পরে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও চাঁদাবাজ পায়েলকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
 
পুলিশ মাদক ব্যবসায়ীর শরীর তল্লাশি করে ১০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ১০০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করে। মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় আহত হন পুলিশ সদস্য জাকির হোসেন। তাকে পুলিশলাইনস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
 
ওসি শাহ কামাল আকন্দ আরও জানান, রাত সাড়ে ১২টার দিকে ডিবি পুলিশের দুটি দল মাদকবিরোধী অভিযানে নামে। পুলিশের একটি দল শহরের কালীবাড়ি রোড এলাকায় অভিযান চালালে ৫-৬ মাদক ব্যবসায়ী পুলিশের ওপর অতর্কিতে হামলা চালায়। এ সময় দুই পুলিশ সদস্য আহত হন।
 
পরে পুলিশ কয়েক রাউন্ড পাল্টা গুলি ছুড়লে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে মো. শরীফ নামে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
 
পুলিশ মাদক ব্যবসায়ীর শরীর তল্লাশি করে ১০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ঘটনাস্থল থেকে পাঁচ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে।
 
এ ঘটনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কনস্টেবল মো. শামীম হোসেন ও মো. সেলিম মিয়াও আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে জেলা পুলিশলাইনস হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।


 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ