Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ভুয়া বন্দুক যুদ্ধ: ভারতে ৭ সেনা কর্মকর্তার যাবজ্জীবন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ অক্টোবর, ২০১৮, ৪:২৩ পিএম

‘ভুয়া বন্দুকযুদ্ধে’ নিহতের ঘটনায় শনিবার ৭ সেনা কর্মকর্তাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে জেনারেল কোর্ট মার্শাল। ভারতের আসাম রাজ্যে এ ভুয়া বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটে। কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামিদের মধ্যে একজন সাবেক মেজর জেনারেল, দুইজন কর্নেল ও চারজন সৈনিক রয়েছেন। আসামে ২৪ বছর আগে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৫ ছাত্রনেতা নিহত হওয়ার ঘটনায় আদালত শনিবার এ রায় দেন। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া।

খবরে বলা হয়, আসামের ডিব্রম্নগড় জেলার দিনজানে আদালত বসে। পরে এ রায় ঘোষণা করা হয়। তবে এ রায় তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর হচ্ছে না। রায়টি অনুমোদনের জন্য কলকাতার পূর্বাঞ্চলের আর্মি কমান্ড ও দিল্লি আর্মি হেড কোয়ার্টারের সম্মতি লাগবে। তারপরই এ রায় কার্যকর হবে।

সেনাবাহিনীর একটি সূত্র জানিয়েছে, রায়টি উভয় জায়গা থেকে অনুমোদন পেতে দুই থেকে তিনমাস সময় লেগে যাবে।

এনডিটিভি জানায়, আসাম ফ্রন্টিয়ার টি লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) রামেশ্বর সিংহকে হত্যার ঘটনায় আসামের সাবেক মন্ত্রী ও বিজেপি নেতা জগদীশ ভূঁইয়া একটি মামলা করেন। এ ঘটনার কিছু দিন পরে ১৯৯৪ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি তিনসুকিয়া জেলা থেকে ৫ ছাত্র নেতাসহ ৯ জনকে গ্রেফতার করে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। এদের মধ্যে ৫ ছাত্রনেতাকে উলফার সদস্য ‘আখ্যায়িত’ করে বন্দুকযুদ্ধে মেরে ফেলা হয়। এ ঘটনায় বাকি চারজন মুক্তি পায়।

জগদীশ ভূঁইয়া নিহতদের বিষয়ে তথ্য জানতে চেয়ে ২২ ফেব্রুয়ারি গৌহাটি হাইকোর্টে একটি পিটিশন দায়ের করেন। পিটিশনটি আমলে নিয়ে আদালত ওই ৯ জনকে নিকটের কোনো থানায় হাজির করতে সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশমতে, ৫ জনের মৃতদেহ ভোলা পুলিশ স্টেশনে আনা হয়।

এ ঘটনায় কোর্ট মার্শালের বিচার প্রক্রিয়া শুরু হয় চলতি বছরের ১৬ জুলাই এবং শেষ হয় ২৭ জুলাই। বিচার প্রক্রিয়া শেষে শনিবার রায় ঘোষণা করেন আদালত।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।