Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ইউএস-বাংলা বিমান দুর্ঘটনায় হতাহতের পরিবারের মধ্যে বীমা দাবির চেক হস্তান্তর

বিশেষ সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

নেপালে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এর দুর্ঘটনায় নিহত ও আহত ৮টি পরিবারকে গতকাল রাওয়া ক্লাবে ‘‘সেনাকল্যাণ ইন্সুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড’’ এর পক্ষ থেকে সেনাকল্যাণ সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ফিরোজ হাসান বীমা দাবীর চেক প্রদান করেন। ৮টি নিহত পরিবারকে মোট ৩লাখ ৪৯হাজার ৫০০ ইউএস ডলারের সমপরিমাণ অর্থ প্রদান করা হয়। অবশিষ্ট ৯টি পরিবারের মাঝে আদালতের নির্দেশনা পাওয়ার পর ক্ষতিপূরণের অর্থ প্রদান করা হবে ।
আইএসপিআরের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দুর্ঘটনায় ইউএস বাংলা’র বিমানটি সম্পুর্ণ বিধ্বস্ত হয়েছে বিধায় সার্ভেয়ার কোম্পানির রিপোর্ট অনুযায়ী বিমানটির মোট ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করা হয়েছে ৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার। যা ইতোমধ্যে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষকে প্রদান করা হয়েছে । দুর্ঘটনায় আহত ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারবর্গকে বীমার অর্থ প্রদান করাই ছিল সেনা কল্যাণ ইন্সুরেন্সের প্রধান লক্ষ্য।
সেনা কল্যাণ সংস্থার অঙ্গ প্রতিষ্ঠান সেনা কল্যাণ ইনস্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড বিগত ৩ বছর যাবত ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের বীমাকারী প্রতিষ্ঠান হিসাবে অত্যন্ত সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে। যেহেতু সেনা কল্যাণ সংস্থা একটি কল্যাণমুখী সংস্থা তাই তার অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হিসাবে ক্ষতিগ্রস্তদের কল্যাণে কাজ করাই সেনা কল্যাণ ইনস্যুরেন্স কোম্পানি লি: এর মূল উদ্দেশ্য । এতো অল্প সময়ের মধ্যে এত বড় অংকের বীমা দাবী পরিশোধ সেনা কল্যাণ ইনস্যুরেন্স কোম্পানি, সাধারণ বীমা কর্পোরেশন, বীমা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের পেশাগত দক্ষতাকেই তুলে ধরে ।
উল্লেখ্য যে, গত ১২ মার্চ নেপালের ত্রিভুবন বিমান বন্দরে বাংলাদেশের ইতিহাসে স্মরণকালের ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনাটি ঘটে। ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি বিমান যাত্রী নিয়ে বাংলাদেশ থেকে নেপাল যাওয়ার পর অবতরণ কালে নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমান বন্দরে দুর্ঘটনায় পতিত হয় । বিমানটিতে ৪ জন ক্রু ও ৬৭ জন যাত্রীসহ মোট ৭১ জন আরোহী ছিলেন। তাদের মধ্যে ৪ জন ক্রু’সহ মোট ২৭ জন বাংলাদেশি, ২৩ জন নেপালি এবং ১ জন চীনা যাত্রী নিহত হন । এছাড়াও ঐ ঘটনায় ৯ জন বাংলাদেশি, ১০ জন নেপালি ও ১ জন মালদ্বীপের নাগরিক আহত হন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউএস-বাংলা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ