Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

সহায়তা না পেলে দুমাসের মধ্যেই দেউলিয়া হয়ে যাবে পাকিস্তান -ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ অক্টোবর, ২০১৮, ৮:০৯ পিএম

পরিস্থিতির ক্রমাগত অবনতি হতে থাকায় পাকিস্তান সরকার আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিলের (আইএমএফ) দ্বারস্থ হওয়া সিদ্ধান্ত নিলেও এর তীব্র বিরোধিতা করেছে বিরোধী দল। তবে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, “আগামী দুই মাসের মধ্যে অর্থ সহায়তা পাওয়া না গেলে দেশ দেউলিয়া হয়ে পড়তে পারে।”
শনিবার বনিগালার বাসভবনে একদল সাংবাদিককে ইমরান খান বলেন, “আইএমএফ’র ঋণ আমাদের কাছে কখনো অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত বিষয় ছিল না। কিন্তু আমাদের হাতে আর কোনো বিকল্প নেই।” তিনি বলেন, “এবার উদ্ধার পাওয়া পর আইএমএফ’র ঋণের আর প্রয়োজন হবে না।”
আইএমএফ’র দ্বারস্থ হওয়ার পক্ষে যুক্তি দেখিয়ে তিনি বলেন, “আইএমএফ’র কাছ থেকে ঋণ গ্রহণ করা ক্ষতিকর। অনেক শর্ত থাকে তাতে। তবে সময় প্রমাণ করবে যে এটি ছিল সাময়িক পদক্ষেপ।” তিনি বলেন, “আমরা চীন ও সৌদি আরবের মতো দেশগুলোর সাথে আলোচনা করছি। আশা করছি, ইতিবাচক কিছু সাফল্য পাওয়া যাবে।”
ইমরান খান মঙ্গলবার দু দিনের এক বাণিজ্য সম্মেলনে যোগ দিতে সৌদি আরব যাচ্ছেন। তিনি সেখানে পাকিস্তানে অর্থনৈতিক ও বিনিয়োগ সম্ভাবনা তুলে ধরবেন।
গত শুক্রবার ইমরান খান কাতারের উপ-প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আবদুল রহমান আল সানির সাথেও আলোচনা করেছেন। ইমরান বলেন, তিনি আশা করছেন, কাতার পাকিস্তান থেকে এক লাখ শ্রমিক নেয়ার কাজটি ত্বরান্বিত করবে।
এদিকে ইমরান খান বলেছেন, আর্থিক দুর্নীতি থেকে কেউই রক্ষা পাবে না, সবাইকে জবাবদিহি করতে হবে।
বিরোধী দলের নেতা শাহবাজ শরিফের (তিনি এখন জবাবদিহি ব্যুরোর হেফাজতে রয়েছেন) সাম্প্রতিক জ্বালাময়ী বক্তৃতার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, শাহবাজ শরিফ পার্লামেন্টে নেলসন ম্যান্ডেলা হতে চেয়েছিলেন। সূত্র : ডন।



 

Show all comments
  • ২২ অক্টোবর, ২০১৮, ৪:৩১ পিএম says : 0
    এটাই দেখার ছিল
    Total Reply(0) Reply
  • ক্ষ্যাপা ২৪ অক্টোবর, ২০১৮, ১:৪১ পিএম says : 0
    যেমন কর্ম, তেমন ফল, এটা তো হওয়ার ছিল।
    Total Reply(0) Reply
  • asad ২২ অক্টোবর, ২০১৮, ৯:৩৭ পিএম says : 1
    কারো দেউলিয়া হয় আমার কাম্য নয়।কষ্ট লাগে।
    Total Reply(1) Reply
    • ক্ষ্যপা ২৪ অক্টোবর, ২০১৮, ১:৩৮ পিএম says : 2
      তারা কিন্তু আপনাদের মা বোনের হাত পা বেধে রেপ করতে কস্ট পায়নি। আপনার এতো দরদ উছলে পড়ার কারন্টা আমি বুঝি।
  • Jc ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৩:০৪ পিএম says : 4
    Insha Allah Pakistan will be able to overcome this temporary problem very soon.I am very much confident,that Imran khan will tackle this problem with the high skill of his political brain.
    Total Reply(0) Reply
  • MD LOKMAN HOSSEN ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৭:৪৪ পিএম says : 1
    সাহায্য চাইতেই পারে ,এটা অন্যায় না।ধনী গরীব দেশ নিয়েই পৃথিবী। তাই কোন দেশকে ছোট করা উচিৎ নয়।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ