Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০১৯, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৪ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

দুই মাসে সর্বনিম্ন লেনদেন

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ২২ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস গতকাল রোববার দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই)’র মূল্যসূচকে বড় পতন হয়েছে। এদিন লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম কমেছে। যার প্রভাব পড়েছে মূল্যসূচকে। ফলে ডিএসইতে প্রায় দুই মাস বা গত ২৬ আগস্টের পর সর্বনিম্ন লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স এবং সিএসইর সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স কমেছে প্রায় এক শতাংশ। মূল্যসূচকের বড় পতনের সঙ্গে দেখা দিয়েছে লেনদেন খরা। ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া মাত্র ৪৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ২৫৮টি। আর ৩২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৫০ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৩৩১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ১৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৩০ পয়েন্টে। একই ধারা ছিল ডিএসই-৩০ সূচকেও। যা আগের দিনের তুলনায় ১১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৮৮৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, এদিন লেনদেনের শুরুতে বাজার ঊর্ধ্বমুখী ছিল। এমনকি প্রথম ৪০ মিনিটের লেনদেনে ডিএসইএক্স ২০ পয়েন্টের ওপরে বেড়ে যায়। দুপুর ১২টা ১২ মিনিট পর্যন্ত সূচকটি ঊর্ধ্বমুখী থাকে। কিন্তু এরপরই শুরু হয় পতন। দিনের শেষ পর্যন্ত সেই পতনের ধারা অব্যাহত থাকে। ফলে ঘটে বড় দরপতন।

এই দরপতনের প্রভাব গিয়ে পড়ে লেনদেনেও। ফলে প্রায় দুই মাস বা ৩৯ কার্যদিবসের মধ্যে ডিএসইতে সর্বনিম্ন লেনদেন হয়েছে। দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৩৯ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৪৭৬ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ৩৬ কোটি ৭৪ লাখ টাকা।

টাকার হিসেবে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে কেপিসিএল’র শেয়ার। কোম্পানিটির ২৬ কোটি ৬২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইফাদ অটোসের ১২ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১২ কোটি ৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে সামিট পাওয়ার।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- ভিএফএস থ্রেড ডাইং, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, ড্রাগন সোয়েটার, বেক্সিমকো, লিগাসি ফুটওয়্যার এবং বিবিএস কেবলস।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএসসিএক্স ৭৮ পয়েন্ট কমে ৯ হাজার ৯৪২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১৮ কোটি ৮২ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৪৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৫৩টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৬৮টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লেনদেন

২ অক্টোবর, ২০১৮
২ অক্টোবর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ