Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮, ০৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

চট্টগ্রামে ঐক্যফ্রন্টের সভা শেষে দুই নেতা গ্রেফতার

লালদীঘির জনসভা সফলের অঙ্গীকার

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

নগরীর লালদীঘি ময়দানে আগামী ২৭ অক্টোবর শনিবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভার ব্যাপক প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে। কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে গতকাল (সোমবার) অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায় যেকোন মূল্যে জনসভা সফল করার অঙ্গীকার করেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। জনসভায় চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ জেলা ছাড়াও এ অঞ্চলের বিভিন্ন জেলা থেকে নেতাকর্মীরা যোগ দেবেন। ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের প্রত্যাশা এটি হবে চট্টগ্রামে স্মরণকালে ইতিহাসের সর্ববৃহৎ জনসভা।
এদিকে প্রস্তুতি সভার পরপরই গ্রেফতার করা হয় বিএনপির বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান শামীম ও চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্করকে। নগরীর জিইসি মোড় থেকে ডিবি পুলিশ তাদের দু’জনকে তুলে নিয়ে যায়।
ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বলছেন, জনসভার প্রস্তুতি বৈঠক শেষে দুই নেতাকে গ্রেফতারের মাধ্যমে সরকার ঐক্যফ্রন্টের নেতাকর্মীদের মধ্যে ভয়-আতঙ্ক সৃষ্টির অপচেষ্টা করছে। এসব ধরপাকড়ে বিএনপি ও শরিক দলের নেতাকর্মীরা ভয় পাবে না জানিয়ে নেতারা বলেন, গায়েবি মামলায় গ্রেফতার করে সরকার তার পতন ঠেকাতে পারবে না। মামলা-হামলা এবং হুলিয়া উপেক্ষা করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে নেতাকর্মীরা রাজপথে নামবে।
রোববার আইসিটি আইনের একটি মামলায় জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে কারাগারে পাঠানো হয়। তাকে কারাগারে পাঠানোর কিছুক্ষণ পর কোতোয়ালী থানার ওসির পোশাক ধরে টানাটানির অভিযোগ এনে নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনসহ দেড়শ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করে পুলিশ। ওই রাতেই বিএনপি নেতাদের ঘরে ঘরে অভিযান চালায় পুলিশ। গতকাল গ্রেফতার মাহাবুবুর রহমান শামীম ও আবুল হাশেম বক্করকে ওই মামলায় চালান দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ। পুলিশের মামলার পর আড়ালে রয়েছেন নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনসহ বেশ কয়েকজন নেতা।
পুলিশের পক্ষ থেকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অনুমতি পাওয়া না গেলেও জনসভা সফল করার ব্যাপারে আশাবাদী ফ্রন্টের নেতারা। এ লক্ষ্যে ব্যাপক প্রস্তুতিও এগিয়ে চলছে। গতকাল নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির অপর ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান। প্রস্তুতি সভায় চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ড. অধ্যাপক মামুন আহমেদ, ড. সুকুমল বড়–য়া, বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান শামীম, জালাল উদ্দিন মজুমদার, হারুনুর রশিদ হারুন, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য আশরাফ উদ্দিন মিজান, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর, সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান, সাবেক এমপি মোস্তফা কামাল পাশা, উত্তর জেলা বিএনপি নেতা চাকসু ভিসি নাজিম উদ্দিন ছাড়াও চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর-দক্ষিণ, ফেনী, কক্সবাজার, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি ও রাঙ্গামাটি জেলা বিএনপির নেতারা বক্তব্য রাখেন। প্রস্তুতি সভায় জাসদের (জেএসডি) কেন্দ্রীয় নেতা গোলাম জিলানী চৌধুরী, গণফোরামের সভাপতি মোহাম্মদ মনছুর, জাসদের নগর সাধারণ সম্পাদক শফিউল আলম, জমিয়তুল উলামা ইসলামের এম এ কাশেম ইসলামাবাদী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।



 

Show all comments
  • আবু নোমান ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৫:২৪ এএম says : 1
    গ্রেফতার করে আর কোন কাজ হবে বলে মনে হচ্ছে না।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ