Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

সংবিধানসম্মত অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন চাই

সংলাপের আহ্বান জানিয়ে চিঠি যাবে শিগগির

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, সংবিধান সম্মত একটি অবাধ সুষ্ঠু ও সকলের গ্রহণ যোগ্য নির্বাচনই আমরা চাই। সে সংবিধান বর্তমান ভোটারবিহীন সংসদে সংশোধিত সংবিধান নয়। জনগণের সম্মতিতে যে সংবিধান ছিল সে সংবিধান অনুযায়ী আমরা নির্বাচন চাই। সে সংবিধানে সংসদ ভেঙ্গে দেয়ার কথা আছে, নির্দলীয় সরকারের কথা আছে। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে গণফোরাম আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের একটি অনুষ্ঠানে বলেছেন নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী হবে। এ বিষয়ে আপনার বক্তব্য কি? সাংবাদিকের এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
ড.কামাল হোসেন বলেন, একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিশ্চিত করার লক্ষে আমরা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছি। কিভাবে জনগণের আশা আকাঙ্খা বাস্তবায়ন করে একটি কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা যায় সে বিষয় চিন্তা ভাবনা করে আমরা ৭দফা দাবীতে ঐকমত্য হয়েছি। জামায়াতে ইসলামী বা তারেক রহমানের সাথে সম্পর্ক নিয়ে সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দলীয়ভাবে বিএনপি আমাদের জোটে আছে। এটা শুধু নিরপেক্ষ গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য একটি জোট। এর বাইরে আর কোনো সম্পর্ক নেই। জামায়াত বা ব্যক্তি তারেক রহমানের সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক নেই। ড. কামাল বলেন, এই জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এবং আমার বিরুদ্ধে ক্রমাগতভাবে বিদ্বেষপূর্ণ ও ভিত্তিহীন ব্যক্তিগত আক্রমণ চলছে। আমি বিষয়টি স্পষ্ট করে বলছি, আমাদের এই ঐক্য শুধুমাত্র দেশে একটি অবাধ সুষ্ঠু গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের লক্ষ্যে। এর বাইরে অন্য কোন লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য নেই। আরো স্পষ্ট করে বলছি ব্যক্তিগতভাবে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া বা রাষ্ট্রীয় কোন পদ পাওয়ার ইচ্ছা আমার নেই। একটি গণতান্ত্রিক, ধর্মনিরপেক্ষ ও বহুমাত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠার জন্য আমি কাজ করে যাবো।
তিনি বলেন, সুষ্ঠু, অবাধ, গ্রহণযোগ্য ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য আমাদের ৭দফার স্বপক্ষে জনমত গঠনকে গুরুত্ব দিচ্ছি। এ ছাড়া এই ৭দফা দাবি নিয়ে সরকারের সাথে সংলাপের আহবান জানিয়ে চিঠি দ’একদিনের মধ্যে যাবে। একটি অবাধ নির্বাচনের জন্য সব নাগরিক যেমন অবদান রাখতে পারে, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় সবারই যে ভূমিকা রাখবে হবে সেটাই আমরা তুলে ধরবো। সব সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান ও গণমাধ্যম গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যাপারে ভূমিকা রাখবে।
সংবাদ সম্মেলনে গণফোরামের কার্যনির্বাহী সভাপতি এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, গোলাম মাওলা চৌধুরী, রফিকুল ইসলাম পথিকসহ অন্যান্য কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।



 

Show all comments
  • এরশাদ ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৫:২৮ এএম says : 0
    সংবিধান সম্মত একটি অবাধ সুষ্ঠু ও সকলের গ্রহণ যোগ্য নির্বাচনই আমরা চাই।
    Total Reply(0) Reply
  • বিপ্লব ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৫:২৯ এএম says : 0
    এর কোন বিকল্প নেই
    Total Reply(0) Reply
  • ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৯:১৫ এএম says : 0
    কামাল হোসেন কে বি এন পি জামাত বলির পাঠা হিসাবে ইঊজ করছে
    Total Reply(0) Reply
  • ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৯:১৭ এএম says : 0
    বলির পাঠা কামাল হোসেনের প্রয়োজন ফুরিয়ে গেলে বি এন পি জোট যে পিছন দিক থেকে লাথি দিবে না তার কোন নিশ্চয়তা নেই যেমন দিয়ে ছিল বি চৌধুরী কে.
    Total Reply(0) Reply
  • Zain Imam ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ২:১০ পিএম says : 0
    we demand free and fair election where people can express their opinions freely.
    Total Reply(0) Reply
  • Nejam Anowar ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ২:১১ পিএম says : 0
    জনগণও তাই চায়
    Total Reply(0) Reply
  • Anwar Hossain ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ২:২৮ পিএম says : 0
    পৃথিবীর কোন দেশে সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন হয় না। সেটা পাকিস্তান, ভারত, ব্রিটেন, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া কোথাও না। অথচ বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার শাসনতন্ত্রকে এমনভাবে পরিবর্তন করেছে যে, সেখানে নির্বাচিত হওয়ার জন্য ভোটের দরকার নাই। জনগণের ভোট ছাড়া এমপি, মন্ত্রী সব হতে পারে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ