Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

বাজি পোড়ানোর অনুমতি দিল ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০১৮, ১০:০৬ পিএম

ভারতে কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করে বাজি পোড়ানোর অনুমতি দিয়েছে শীর্ষ আদালত। বাজি প্রস্তুতকারকদের জীবন-জীবিকা এবং সারা দেশের ১৩০ কোটি মানুষের স্বাস্থ্য, এই দু’টি বিষয়ের মধ্যে সামঞ্জস্য রেখেই রায় দেওয়া হবে বলে এর আগে জানিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। বাজি পোড়ানোর পর বায়ুদূষণের মাত্রা কমাতে কী করা যেতে পারে, তাই নিয়ে কেন্দ্রের মতামতও জানতে চাওয়া হয়েছিল।

রায়ে বলা হয়, বাজি পোড়ানো যাবে শুধু রাত আটটা থেকে দশটা পর্যন্ত। পাশাপাশি অনলাইনে আতসবাজি কেনাবেচার ওপরও সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ক্রিসমাস ও নিউইয়ার্স ইভের সময়ও রাত ১১.৪৫ থেকে ১২.৪৫ পর্যন্ত বাজি পোড়ানোর অনুমতি দিয়েছে বিচারপতি এ কে সিকরি এবং বিচারপতি অশোক ভূষণ নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ। বাজি পোড়ানোর অনুমতি দেওয়া হলেও কম দূষণ ছড়ায়, শুধু মাত্র সেই সমস্ত বাজিই কেনাবেচা করা যাবে বলে সাফ জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সেই মতো নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বাজি প্রস্তুতকারকদেরও।

আবেদনকারীদের বক্তব্য ছিল, বায়ুদূষণের মাত্রা ২.৫ ইউনিটের বেশি হলে তা দেশের মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, কারণ তাহলে বিভিন্ন ক্ষতিকর কণা বা পার্টিকল সরাসরি ফুসফুসে চলে যায়। অন্য দিকে বাজি প্রস্তুতকারকদের দাবি ছিল, বাজি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ না করে নিয়ন্ত্রণ করার কথা ভাবা হোক। একই সঙ্গে তাদের যুক্তি ছিল, বাজি ছাড়াও বাতাসের গতিবেগ এবং তাপমাত্রাও বায়ুদূষণের জন্য দায়ী। তাই সব কিছুর জন্য শুধু মাত্র বাজিকে দায়ী করা ঠিক নয়। বাজি পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হলে সারা দেশে অসংখ্য বাজি প্রস্তুতকারকদের জীবন ও জীবিকাও কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে বলে জানান তাঁরা।

এর আগে গত বছরের ৯ অক্টোবর দিওয়ালির আগে রাজধানী দিল্লিকে ভয়ঙ্কর দূষণের হাত থেকে রক্ষা করতে বাজি নিষিদ্ধ করেছিল শীর্ষ আদালত। তাতে বায়ুদূষণের মাত্রা কতটা বাড়ছে বা কমছে, তা বুঝতেই পরীক্ষামূলক ভাবে এই রায় দেওয়া হয়েছিল। দিওয়ালির আগে দু’দিনের জন্য বাজি কেনাবেচার অনুমতি চেয়ে আবেদনও জানিয়েছিলেন বাজি প্রস্তুতকারকরা। কিন্তু তা নাকচ করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। সূত্র: টিওআই।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর