Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

ময়মনসিংহে টিটুর দূরদর্শী নেতৃত্ব

পৌর মেয়র থেকে সিটি প্রশাসক সুসংহত করেছেন আ.লীগের অবস্থান

মো: শামসুল আলম খান | প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৫ এএম

‘৯ বছর আগের ময়মনসিংহ আর আজকের ময়মনসিংহ এক নয়। এক সময় যে শহর ছিলো সেকেলে এখন সেখানে দৃষ্টিনন্দন রূপ। নান্দনিকতার নতুন ছোঁয়ায় পাল্টে গেছে নগরীর সার্বিক দৃশ্যপট। ইতিহাস, ঐতিহ্য ও প্রকৃতির নজরকাড়া থিমে সৌন্দর্যায়ন নান্দনিক রূপ পেয়েছে নগরী। বর্জ্য ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন, নতুন নতুন সড়ক নির্মাণ, হাজার হাজার বেকার পুরুষ ও মহিলাকে প্রশিক্ষণ, অসহায় ও দরিদ্র পরিবারকে আর্থিক সহায়তা-সবকিছুতেই নগরবাসীকে আশার আলো দেখিয়েছেন ইকরামুল হক টিটু।
শুধু তাই নয়, নানামুখী চ্যালেঞ্জ সাফল্যের সঙ্গে মোকাবেলা করে ময়মনসিংহ পৌরসভার এই সাবেক মেয়র ময়মনসিংহ নগরীর উন্নয়নে তার অঙ্গীকার ও পরিকল্পনা বাস্তবায়নে নজির স্থাপন করেছেন। ব্যর্থতা থেকে সাফল্যের পাল্লাই ভারী হওয়ায় বঙ্গবন্ধু কন্যা, জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁর ওপর আস্থা রেখেছেন।ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের প্রথম প্রশাসকের দায়িত্ব তাঁর কাঁধেই তুলে দিয়েছেন। টানা ৯ বছর ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করে উন্নয়ন-অগ্রগতির মহাসোপানে এগিয়ে নিয়েছেন ময়মনসিংহকে।’
গত বৃহস্পতিবার ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের প্রথম প্রশাসক হিসেবে ইকরামুল হক টিটু দায়িত্ব নেওয়ার পর সাফল্য-ব্যর্থতার চুলচেরা বিশ্লেষণ করতে গিয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষক থেকে শুরু করে অতি সাধারণ মানুষ এখানকার সার্বিক চিত্র পাল্টে যাওয়ার তথ্য প্রবাহ তুলে ধরেছেন এমন করেই। বিশ্লেষকরা মনে করছেন, একজন নগর পিতা হিসেবে ইকরামুল হক অবহেলিত, বঞ্চিত, অনুন্নত ও বৈষম্যের শিকার ময়মনসিংহকে যেমনি বদলে দিয়েছেন ঠিক তেমনি রাজনীতিতেও নতুন ধারার প্রবর্তন করেছেন। সেবার মনোভাব নিয়ে ইতিবাচকভাবে কাজ করেছেন। ধর্মীয়, সামাজিক, রাজনৈতিক অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে নগরবাসীর কিংবা দলের একজন প্রান্তিক কর্মীর দুর্যোগ-দুর্বিপাক বা সমস্যায় মুহূর্তেই ছুটে গেছেন। সিটি করপোরেশনের প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে আগের যে কোন সময়ের তুলনায় এখন অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী ইকরামুল হক টিটু। তার নতুন দায়িত্ব প্রাপ্তিতে এখনো উচ্ছ্বাস-আনন্দে ভাসছে ময়মনসিংহ।
ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী নুরুল আমিন কালামের মতে, জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইকরামুল হক টিটুকে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের প্রথম প্রশাসক পদে দায়িত্ব দিয়ে এই অঞ্চলের বাসিন্দাদের আশা-আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটিয়েছেন।
ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, ময়মনসিংহ শহরকে আধুনিক ও তিলোত্তমা হিসেবে গড়ে তুলতে শহরের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সড়কের মোড়ে ভাস্কর্য স্থাপন করা হয়েছে। শহরের সড়ক দ্বীপগুলোকেও দেওয়া হয়েছে নতুন চেহারা। উপহার দিয়েছেন তিন শতাধিক উন্নয়ন প্রকল্প। এজন্য ব্যয় হয়েছে প্রায় পৌনে ৩’শ কোটি টাকার মতো। তার নেতৃত্বেই বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় দেশের মডেল নগরীর স্বীকৃতি পেয়েছে ময়মনসিংহ।
ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নেও মডেল এখন সংস্কৃতির এ নগরী। নগরীর প্রধান সড়কের দুই পাশের ড্রেনগুলোর উন্নয়নসহ সড়কের নিচে ৩০টি বৃহৎ পাইপ ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া সড়কের নিচে শতাধিক কিলোমিটার পাইপ ড্রেন ও আরসিসি ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছে। নির্মাণ করা হয়েছে শতাধিক কিলোমিটার সড়ক।
ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট পীযুষ সরকার বলেন, আধুনিক চিন্তা-চেতনার মেলবন্ধন ঘটিয়ে ‘সুন্দর শহর’ এর আলোকে ময়মনসিংহ নগরীকে সাজিয়েছেন মেয়র ইকরামুল হক টিটু। অভিন্ন মন্তব্য করে ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সহ-সভাপতি শঙ্কর সাহা বলেন, ‘মেয়র টিটু’র অসম সাহস, দক্ষতা, দূরদৃষ্টি ও অসীম ধৈর্য্য নগরীর উন্নয়নে তার প্রতিটি পদক্ষেপকে নগরীর বাসিন্দারা আন্তরিকভাবে স্বাগত জানিয়েছেন। সবচেয়ে বড় কথা তার কাজে কোন দুর্নাম হয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ