Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

মহানবীকে কটূক্তিকারীর সাজা মানবাধিকার আদালতেও বহাল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ অক্টোবর, ২০১৮, ৪:৫৮ পিএম

মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) এর বিরুদ্ধে কটূক্তি করায় অপরাধী হিসেবে এক নারীকে যে কারাদণ্ডের সাজা ও জরিমানা করেছিল অস্ট্রিয়ান আদালত তা বহাল রেখেছে ইউরোপিয়ান মানবাধিকার আদালত। বৃহষ্পতিবার এই রায় দিয়ে তারা জানায়, এ ধরণের মন্তব্য বাক স্বাধীনতার মধ্যে পড়ে না ।
সাজাপ্রাপ্ত ওই নারী ২০০৮ ও ২০০৯ সালে ফার রাইট ফ্রিডম পার্টির ইসলামের উপরে আয়োজিত দুটি সেমিনারে মন্তব্য করেছিলেন, অল্পবয়সী এক মেয়ের সঙ্গে হযরত মোহাম্মদ (স:)-এর বিয়ে ‘শিশু যৌন নির্যাতনে’র শামিল। এ ঘটনায় ২০১১ সালে অস্ট্রিয়ার আদালত তার বিরুদ্ধে ধর্মীয় মতবাদকে অবজ্ঞা করার অভিযোগে ৪৮০ ইউরো জরিমানা করে। এই রায়ের বিরুদ্ধে দুইবার আপীল কার হলেও শাস্তি বহাল রাখে দেশটির উচ্চ আদালত।
এর পরেই ইউরোপের সর্বোচ্চ মানবাধিকার আদালতে যান সাজাপ্রাপ্ত ওই নারী। তার আপিলের প্রেক্ষিতেই মানবাধিকার আদালত বলেছে, অস্ট্রিয়ার আদালতের মূল সিদ্ধান্ত ধর্মীয় শান্তি অক্ষুন্ন রাখার যৌক্তিক উদ্দেশ্য বজায় রেখেছে।
৭ বিচারক বিশিষ্ট মানবাধিকার আদালত বলেছে, ওই নারীর বক্তব্য ‘বস্তুনিষ্ঠ বিতর্কের অনুমোদিত সীমা লঙ্ঘণ করেছে।’ এছাড়া এ ধরণের বক্তব্যের কারণে মুসলমানদের মনে আঘাত লাগতে পারে ও ধর্মীয় শান্তি বিঘ্নিত হতে পারে। সাজা দেওয়ার সময় অস্ট্রিয়ার আদালত নিজেদের রায়ে ‘খুব সতর্কভাবেই ওই নারীর বাকস্বাধীনতা ও অন্যদের ধর্মীয় অনুভূতি সুরক্ষিত রাখার অধিকারের মধ্যে ভারসাম্য রেখেছে’।
আদালত আরও বলেছে, ওই মহিলাকে সাজা দিয়ে তার বাকস্বাধীনতা লঙ্ঘণ করেনি অস্ট্রিয়ার আদালত। সূত্র: ডেইলি সাবাহ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মহানবী

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
২১ নভেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন