Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

অমুসলিম শরণার্থীদের ভারতে নাগরিকত্ব দিতে বিজ্ঞপ্তি

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ২৯ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

ভারতের বিজেপি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার সাত রাজ্যে অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। সাত রাজ্যের ১৬টি জেলায় প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈন, পার্সি ও খ্রিস্টান শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেয়ার জন্য সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে।পশ্চিম ও দক্ষিণ দিল্লি, ছত্তিসগড়ের রায়পুর, গুজরাটের আহমেদাবাদ, গান্ধীনগর ও কচ্ছ, মধ্যপ্রদেশের ভুপাল ও ইন্দোর, মহারাষ্ট্রের নাগপুর, মুম্বাই, পুণে ও থানে, রাজস্থানের যোধপুর, জয়পুর ও জয়সলমীর ও উত্তরপ্রদেশের লক্ষৌয়ের জেলাপ্রশাসককে প্রবিবেশী দেশের অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেয়ার কর্তৃত্ব দেয়া হয়েছে। রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিসগড়ে বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ আগেই ঘোষণা হওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকার গত বৃহস্পতিবার ওই বিজ্ঞপ্তি জারি করায় রাজনৈতিকমহলে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। কংগ্রেসের মুখপাত্র জয়বীর শেরগিল বলেন, পাঁচটি রাজ্যে নির্বাচন ঘোষণার পরেও সরকারের ওই সিদ্ধান্ত নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন। হিন্দু ও শিখ ভোট পেতেই সরকার ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর ফলে অবশ্যই পাঁচ রাজ্যের ভোটারদের প্রভাবিত করবে। এদিকে পশ্চিমবঙ্গ, আসাম ও ত্রিপুরার মতো রাজ্যে প্রতিবেশি দেশ থেকে আসা অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেয়ার জন্য কোনও পদক্ষেপ কেন্দ্রীয় সরকারের সা¤প্রতিক বিজ্ঞপ্তিতে নেই। আসামে বিদেশি শরণার্থীদের নাগরিকত্ব প্রদান ইস্যুতে সরকারপক্ষ ও বিরোধীদের মধ্যে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে ‘জয়েন্ট অ্যাকশন ফর বাঙালি রিফিউজিস’-এর সর্বভারতীয় সভাপতি সুকৃতি রঞ্জন বিশ্বাস বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের বিজ্ঞপ্তিতে পশ্চিমবঙ্গকে বাদ রাখা হয়েছে। প্রতিবেশি দেশ থেকে সবচেয়ে বেশি উদ্বাস্তুরা এসেছেন পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা ও আসামে। ওই রাজ্যগুলোর একটাও বিজ্ঞপ্তির মধ্যে রাখা হয়নি। যেসব রাজ্যকে নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে, সেসব রাজ্যে বিশেষ করে বাঙালি অধ্যুষিত এলাকার জেলা প্রশাসকদের নাগরিকত্ব দেয়ার কোনও কর্তৃত্ব দেয়া হয়নি। এটা খুব লক্ষণীয় বিষয়। তিনি অভিযোগ করে বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার এ ব্যাপারে বরাবরই বাঙালিদের প্রতি বিমাতাসুলভ আচরণ করেছে। একইসঙ্গে তারা নাগরিকত্ব সমস্যার সমাধান না করে নিছক ভোটের রাজনীতি করতে চায় বলেও মন্তব্য করেন তিনি। পার্সটুডে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শরণার্থী

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন