Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

পানের বরজে চোর আতঙ্ক!

কেশবপুর উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

একদিকে অনাবৃষ্টিতে ফলন বিপর্যয় অন্য দিকে বাজারে দাম বেশি থাকায় চুরি হয়ে যাচ্ছে কেশবপুরের চাষিদের ক্ষেতের পান। পানের বরজের মালিককে রাত জেগে পাহারা দিতে হচ্ছে পানক্ষেত।
গত ১৫ দিনে উপজেলার বায়সা ঘোসপাড়ার ৫ পান চাষির ক্ষেত থেকে প্রায় ৫০ হাজার টাকার পান চুুরি হয়ে গেছে। গত বছর একই সময় এক রাতে এক চুাষির ৩০শতক ক্ষেত থেকে প্রায় লক্ষ টাকার পান চুুরি হয়ে ছিল।

বায়সা গ্রামের শিবুপদ ঘোষের ক্ষেত থেকে গত ২৯ অক্টোবর রাতে প্রায় ৪ হাজার টাকার পান চুুরি হয়ে যায়, ২০ অক্টোবর রাতে সন্তষ ঘোষের বরজ থেকে প্রায় ৫ হাজার টাকার পান, ১৮ অক্টোবর রাতে মশিয়ার রহমানের বরজ থেকে প্রায় ৬ হাজার টাকার পান, ১৬ অক্টোবর রাতে শিবুপদ ঘোষের পানক্ষেত থেকে প্রায় ৭ হাজার টাকার পান ও ১৫ অক্টোবর রাতে অরুন দাসের পানক্ষেত থেকে প্রায় ৯ হাজার টাকার পান চুুরি হয়ে যায়। এ ঘটনার পর থেকে এলাকার পান চাষিরা রাত জেগে তাদের পানক্ষেত পাহারা দিয়ে আসছেন। পান চুাষি সন্তষ ঘোষ জানান, রাত্রি জেগে পাহারা দিয়েও ক্ষেতের পান চুুরি ঠেকানো যাচ্ছে না। যেন চোর আমাদের পাহারা দিচ্ছে। আমরা যখন ক্ষেত থেকে বাড়ি আসি সে সময়ের মধ্যে পানের ক্ষেতে চোর হানা দেয়। চলতি বছরে অনাবৃষ্টির কারনে পানের ফলন অনেক কম। অপর দিকে বাজারে পানের দাম বেশ চড়া। বর্তমান কেশবপুর বাজারে বড় পান ১৫০ টাকা থেকে ১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মাঝারি সাইজের পান ৮০ থেকে ১০০টাকা পন দরে বিক্রি হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পানের বরজ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ