Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ইসলামী কর্মতৎপরতা

বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ

| প্রকাশের সময় : ২ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৮ এএম

আখেরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে মানহানীকর বক্তব্য লেখা, প্রকাশনা-প্রচার এবং বাল্যবিবাহ বিরোধীদের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড, মুুসলমানদের সবচেয়ে বড় ঈদ আসন্ন পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ তথা পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উপলক্ষে দেশের সকল মুসলমান কর্মচারীদের বোনাস প্রদান, বাকস্বাধীনতার ভন্ডামীর নামে নেদারল্যান্ডের এমপি গিয়ার্ট উইল্ডার্সের নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ব্যঙ্গচিত্র প্রতিযোগীতা আয়োজনের ঘোষণা দেয়ায় নেদারল্যান্ড দূতাবাসের মাধ্যমে তার ফাঁসির দাবি, পবিত্র দ্বীন ইসলাম অবমাননাকর “জান্নাত” নামক সিনেমা নিষিদ্ধ এর প্রযোজক-পরিচালককে গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান, আসাদ নূরসহ অন্যান্য সকল সকল নাস্তিকদের ফাাঁসি, পবিত্র আশুরা উপলক্ষে কমপক্ষে ৩ দিন ছুটি, মুসলিম এমপি বাদ দিয়ে ভারতীয় সন্ত্রাসী সংগঠন ‘আরএসএস’ এর এজেন্ট উগ্র হিন্দুদেরকে আসন্ন নির্বাচনে অধিক হারে মনোনয়ন দিলে উগ্র হিন্দু প্রার্থীদের ভোট দেয়া বয়কটের দাবিসহ ১৩ দফা দাবীতে বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগসহ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের ১৩টি সংগঠন আজ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন করেছে। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ইসলামবিদ্বেষী ও নাস্তিকদের মুক্তমনা ব্লগ, ইষ্টিশন ব্লগ, ধর্মকারী ব্লগগুলো এদেশে এখনো তীব্র ইসলামবিদ্বেষ ছড়াচ্ছে। নাস্তিকদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে। অথচ পুলিশ, র‌্যাব, বিটিআরসি তাদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা দেয়নি, কোনো ব্যবস্থাও নেয়নি। এর মাধ্যমে সরকারের বিরুদ্ধে ধর্মপ্রাণদের ক্ষেপিয়ে দেয়ার তৎপরতা চালাচ্ছে। নাঊযুবিল্লাহ! পুলিশ, র‌্যাব, বিটিআরসি সবাই নীরব ভুমিকা পালন করছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও দন্ডবিধি সংশোধন করে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার, হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের এবং হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের বিন্দু থেকে বিন্দুতম অবমাননা করলে বা মানহানীকর বক্তব্য, লেখা, প্রকাশ ও প্রচার করলে তাৎক্ষণিক মৃত্যুদণ্ডের বিধান করতে হবে। এনজিও, নারীবাদীরা বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে বললেও বছরে দেশে প্রায় ৫ লক্ষ ভ্রুণ শিশু হত্যা করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গুতম্যাকার ইনস্টিটিউটের জরিপ মতে, ২০১৪ সালে বাংলাদেশে ১১ লাখ ৯৪ হাজার অবৈধ গর্ভপাত হয়েছে। এর অধিকাংশই হচ্ছে ১৮ বছরের নিচের কুমারী মাতাদের অবৈধ ফসল। এনজিও, নারীবাদী এবং সরকারে ঘাপটি মেরে থাকা মহল অবৈধভাবে কুমারী মাতা হতে সমর্থন করছে তাই এর বিরুদ্ধে কিছু বলছে না। এমনকি আইন প্রণয়নও করছে না। কিন্তু বৈধ বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে অপতৎপরতা চালাচ্ছে।
বক্তারা বলেন, নারীবাদীদের পৃষ্ঠপোষক দেশগুলো ১৬ বা ১৮ বছর বয়সের নীচে বিবাহকেই অনুমতি দিচ্ছে না বরং অবৈধ কুমারী মাতাকেও স্বীকৃতি দিচ্ছে। তাদের অবৈধ সন্তানের ভরণ-পোষণও করছে। ইউএস সেন্টার ফর ডিসিস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের সমীক্ষা অনুযায়ী আমেরিকায় প্রতি সপ্তাহে ১৫ থেকে ১৭ বছর বয়সী প্রায় ১ হাজার ৭০০ কিশোরী মা হচ্ছে। সেন্টার ফর সোশ্যাল জাস্টিজের (সিএসজে) গবেষণায় দেখা গেছে ব্রিটেনে, ৪৬ শতাংশ শিশু জন্ম নেয় কুমারী মায়ের গর্ভে। ২০১৭ সালে আমেরিকায় ২ লাখের বেশী বাল্য বিবাহ হয়েছে যাদের বয়স ১৫ বছরের নীচে। অথচ এসব দেশের বিরুদ্ধে তথাকথিত প্রগতিবাদী ও নারীবাদীদের প্রতিবাদ নেই। কুমারী মাতা নামক এসব অবৈধ সর্ম্পকের প্রতিকারে জাতিসংঘে তাদের কোন আবেদন নিবেদনও নেই। বরং বাংলাদেশের মতো মুসলমান দেশগুলোতেই তাদের সব অপতৎপরতা। বাল্যবিবাহের বিরোধিতাকারীদের মৃত্যুদণ্ড দিতে হবে। বাল্যবিবাহ বিরোধী ইসলাম বিদ্বেষী এনজিও টেরেডেস হোমস নেদারল্যান্ডস, নিউইয়র্ক ভিত্তিক প্রোটেকটিং হিউম্যান রাইটস (পিএইচআর), যুক্তরাজ্যভিত্তিক সেভ দ্য চিলড্রেন, ইহুদী স্বার্থ সংরক্ষণকারী ইউনিসেফ, জর্জ সরোসের অর্থায়নে পরিচালিত ব্র্যাক নিষিদ্ধ করতে হবে। অবিলম্বে বাল্যবিবাহ নিরোধ নামক কুফরী আইন প্রত্যাহার করে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অবমাননার কারণে তাদেরকে মৃত্যুদণ্ড দিতে হবে। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর