Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী

মির্জাপুরে পারদ মেশানো মাংস খেয়ে দুই যুবকের মৃত্যু, অসুস্থ একজন হাসপাতালে

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ নভেম্বর, ২০১৮, ৭:৫৬ পিএম

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে পারদ মেশানো কবুতরের মাংসের খেয়ে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়া আরও একজন গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।শনিবার ভোরে উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের রাজাবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
মৃতরা হলেন, রংপুর জেলার কোতোয়ালী থানার পুটিমারী গ্রামের হিরু মিয়ার ছেলে সুলতান (২৫) ও একই জেলার কাউনিয়া থানার হারাগাছা গ্রামের আব্দুস ছামাদ মিয়ার ছেলে আনোয়ারুল (২৫)।
মৃতদের মধ্যে সুলতান দর্জি ও আনোয়ারুল হোটেলে কাজ করতো বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। তারা বাজাবাড়ি এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় থেকে কাজ করতেন।
এ ঘটনায় গুরুতর অসুস্থ রাব্বানী (২৫) নওগাঁ জেলার মান্দা থানার চরগোপাল গ্রামের বাসিন্দা। সে গোড়াই এলাকার একটি মুদির দোকানে কর্মচারী।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, ওই তিন যুবক শুক্রবার রাতে পারদ মেশানো কবুতরের মাংস খান। পরে তারা অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদেরকে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে শনিবার সকালে সুলতান ও আনোয়ারুলের মৃত্যু হয়। এছাড়া রাব্বানীর অবস্থার অবনতি হলে বিকেলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করা হয়েছে বলে কুমুদিনী হাসপাতালের সিনিয়র অফিসার অনিমেশ ভৌমিক লিটন জানিয়েছেন।
পারদ মেশানো কবুতরের মাংস খেয়ে তারা তিনজনই অসুস্থ হয় বলে অসুস্থ রাব্বানী জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানা উপপরিদর্শক (এসআই) আশিকুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে কার পরামর্শে তারা কোন হোটেলে পারদ মেশানো মাংস খেয়েছিলেন তা তিনি জানাতে পারেনি।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জাপুরে

৫ অক্টোবর, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ