Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৮ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

ইভিএম পদ্ধতি ভোট ডাকাতদের হাতে অস্ত্র দেয়ার মতো

খুলনা ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৫ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম


ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগর সভাপতি
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগর সভাপতি ও খুলনা ৩ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী অধ্যক্ষ মাওলানা মুজ্জাম্মিল হক বলেছেন, ‘ইভিএম একটি আধুনিক প্রযুক্তি। এর ফলাফল ভালো হবে। কিন্তু দা বটি ডাকাতদের হাতে থাকলে তা ডাকাতির কাজে ব্যবহার হয়। আর দা বটি পরিবারে থাকলে তার যথাযথ ব্যবহার হয়। অপব্যবহারের সুযোগ থাকে না। তেমনি ভোট ডাকাতদের হাতে ইভিএম ওই অস্ত্র দেওয়ার মতোই হবে।’

গতকাল এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। আগামী ৯ নভেম্বর খুলনার ডাকবাংলা সোনালী ব্যাংক চত্বরে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর চরমোনাই পীরের জনসভা উপলক্ষে এ মতবিনিময় সভা আয়োজন করা হয়। কওমি মাদরাসা বোর্ডের স্বীকৃতির পর কওমি মাদরাসাপন্থীদের প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এ আয়োজন পর্দার বরখেলাপ। এ আয়োজনের যৌক্তিকতা নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ সরকারের অধীনে অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। কারণ ভোট ডাকাতি, ব্যালট ও বাক্স ছিনতাই, জাল ভোট প্রদান, কেন্দ্র দখল, ত্রাস সৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে। চলমান সংলাপে এ সব বিষয় আলোচনা হলেও সরকার এ মূল দাবিতে কোনও কথা বলছে না। জনসভা, সভা-সমাবেশ করার অনুমতি থাকবে বলে বলছে। কিন্তু নির্বাচনের আগে সব সরকারই সভা-সমাবেশের ক্ষেত্রে শিথিল থাকে। এ সরকারও তাই করছে। এ গুলো দাবি পূরণের আওতায় পড়ে না।’

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন নগর সাধারণ সম্পাদক মুফতি আমানুল্লাহ, সহ সভাপতি ও মিডিয়াসেল সমন্বয়কারী শেখ মো. নাসির উদ্দিন, ছাত্র আন্দোলনের নগর সম্পাদক খালিদ সাইফুল্লাহ, মুফতি তৈয়েবুর রহমান, জিএম কিবরিয়া, মো. সাইফুল ইসলাম, মাহমুদুল হক তানভির, এইচ এম জোবায়ের মাহমুদসহ অনেকে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইভিএম

২৬ মার্চ, ২০১৯
২৮ জানুয়ারি, ২০১৯
২১ জানুয়ারি, ২০১৯
২৭ ডিসেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ