Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ০৫ চৈত্র ১৪২৫, ১১ রজব ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

হাতিরঝিল থেতে শাহজাদপুর পর্যন্ত লেক ড্রাইভ সড়কের উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, হাতিরঝিল থেকে শাহজাদপুর পর্যন্ত লেকড্রাইভ সড়ক নির্মাণের জন্য যাদের ভূমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে তাদেরকে জমির তিনগুণ মূল্য শীঘ্রই পরিশোধ করা হবে। এই সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে গুলশান-বারিধারার সাথে যোগাযোগের সুবিধার জন্য। কাজেই এই সড়ক ও লেক রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব এই এলাকার জনগণের। গতকাল রোববার দুপুরে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) কর্তৃক নির্মিত বাড্ডা (হাতিরঝিল মোড়) থেকে শাহজাদপুর পর্যন্ত লেক ড্রাইভ সড়কের উদ্বোধন শেষে মন্ত্রী এ কথা বলেন।
রাজউকের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আব্দুর রহমান বলেন, রাজউক রাজধানীবাসীর জন্য কাজ করে থাকে। যে কাজ জনগণের জন্য ভালো নয় সেই কাজ রাজউক কখনো করবে না। তিনি বলেন এই অঞ্চলের অধিবাসীদের যাতায়াতের জন্য লেকড্রাইভ সড়ক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
তিনি জানান, লেকড্রাইভ সড়ক নির্মাণে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মরহুম মেয়র আনিসুল হকের স্বত:ফ‚র্ত অবদান ছিল। আমি তাঁর রুহের মাগফিরাত কমনা করছি। এছাড়াও এই সড়ক নির্মাণে বাড্ডা ও শাহজাদপুরের এলাকাবাসীর সহযোগীতা ছিল অনিস্বীকার্য।
রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ভারপ্রাপ্ত মেয়র মোহাম্মদ জামাল মোস্তফা, বিএসপি হাতিরঝিল প্রকল্প পরিচালক, মেজর জেনারেল অবু সাইদ মোহাম্মদ মাসুদ, গুলশান সোসাইটির সাবেক প্রেসিডেন্ট এ টি এম শামসুল হুদা।
জানা গেছে, রাজউকের লেক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় বাড্ডা (হাতিরঝিল মোড়) হতে শাহজাদপুর পর্যন্ত লেক পাড়ের বাড্ডা-শাহজাদপুর অংশ ৩০ ফুট প্রস্থ সড়কের দুই পার্শ্বে ওয়াকওয়ে রেখে ২ দশমিক ৪০ কি. মি. দৈর্ঘ্যরে লেক ড্রাইভ সড়কটি নির্মাণ করা হয়েছে। ওয়াকওয়ের উপর বৈদ্যূতিক বাতির ব্যবস্থা রয়েছে। যা লেকের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হাতিরঝিল


আরও
আরও পড়ুন