Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ক্ষতি ২১ কোটি টাকা

বেনাপোলে একদিন আমদানি রফতানি বন্ধ থাকায়

বেনাপোল অফিস : | প্রকাশের সময় : ৮ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

বেনাপোল বন্দর দিয়ে গতকাল বুধবার সকাল থেকে দু দেশের মধ্যে আমদানি রফতানি বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের কালীপূজা উপলক্ষে বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে সকাল থেকে দুই দেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ হয়ে গেছে। তবে বেনাপোল বন্দর ও কাস্টমসের কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে। দু দেশের মধ্যে পাসর্পোর্ট যাত্রী চলাচলও অব্যাহত আছে। আজ সকাল থেকে আবার এ পথে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য চলবে বলে জানান বন্দর সংশ্লিষ্টরা।
ভারতের পেট্রাপোল সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী জানান, কালিপূজা উপলক্ষে ভারতে সরকারি ছুটি থাকায় বুধবার পেট্রাপোল বন্দরের সকল কাজকর্ম বন্ধ থাকবে। পূজা উপলক্ষে ট্রাক চালকরাও ট্রাক চালাতে চান না। সে কারণে কোনো পণ্য আমদানি রফতানি হবে না। বৃহস্পতিবার (আজ) সকালে আবার বাণিজ্য চলবে।
বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন বলেন, ‘কালীপূজা উপলক্ষে বুধবার বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকার বিষয়টি ভারতীয় সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসিয়েশন আমাদের আগেই জানিয়ে দিয়েছেন। তবে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ থাকলেও কাস্টম ও বন্দরে কাজকর্ম স্বাভাবিক থাকছে।’ বেনাপোল কাস্টমস হাউসের সহকারী কমিশনার উওম চাকমা জানান, ভারতে কালিপূজা উপলক্ষে পেট্রাপোল বন্দর ব্যবহারকারীরা বুধবার আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ রাখছেন। ফলে এ বন্দর দিয়ে কোনো আমদানি-রপ্তানি হবে না। তবে বেনাপোল বন্দরে আমদানি পণ্য খালাস ও কাস্টম হাউজের শুল্কায়নের কাজকর্ম স্বাভাবিক নিয়মে চলবে। ভারত থেকে পণ্য নিয়ে আসা ট্রাক পণ্য খালি করে ভারতে ফিরে যেতে পারবে।ফলে শতশত পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকা পড়েছ ওপারে ভারতের পেট্রপোল বন্দরে। দেশের শতকরা ৮০ ভাগ শিল্প কলকারখানা ও গার্মেন্টস ইন্ডাস্রিজ এর কাচা মালা আমদানি হয় এই বন্দর দিয়ে। একদিন আমদানি রফতানি বন্ধে সরকারের ২১ কোটি টাকার রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হতে হয় বলে এসি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর