Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

চৌদ্দগ্রামে কাঁচা ধানে ইঁদুরের আক্রমণ

চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) থেকে মোঃ আকতারুজ্জামান | প্রকাশের সময় : ৯ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে আমন ধান লক্ষমাত্রার চেয়ে কিছুটা বেশি হয়েছে। মাঠ জুড়ে সবুজ ধানের দোলা, বিকেলে কোথাও সবুজের মাঝে উঁকি দিচ্ছে রুপালী শিশির বিন্দু। বুকভরা আশা নিয়ে যখন কৃষক মাঠের ভালো ফলনের স্বপ্ন দেখছেন, ইদুঁরের উপদ্রবে সেই স্বপ্ন নিঃশেষ হতে যাচ্ছে। অন্য সময়ে ধানে পাক ধরলেই ইদুঁরের উপদ্রব দেখা দিলেও এবার কাচা ধানের গাছে ইঁদুরের আক্রমণ হয়েছে। কৃষকরা ইঁদুরের উৎপাত থেকে রেহাই পেতে ধান ক্ষেতে পলিথিনের বেড়া দিয়ে ইঁদুর আটকানোর চেষ্টা করছে। যদিও পলিথিনের বেড়া দিয়ে ইদুঁর আটকানো যাচ্ছে না বলে জানায় পৌর এলাকার দক্ষিণ ফালগুনকরা গ্রামের কৃষক আবদুস সামাদ, বেলাল হোসেন, রুপ হোসেন, কৃষাণী পেয়ারা বেগম, আমেনা বেগম, উত্তর ফালগুনকরা গ্রামের কৃষক খলিল মজুমদার, শফিকুর রহমান মেম্বার ও তোফাজ্জল হোসেন। তারা অভিযোগ করেন, ‘আমাদের কৃষি জমিতে ইঁদুর উৎপাত চালিয়ে ধান নষ্ট করে ফেলেছে। তাই ফলন নিয়ে চিন্তায় রয়েছি।

উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, উপজেলায় ১৭.৯৭০ হেক্টর জমিতে আমনের লক্ষ্যমাত্রা ছিল। এবার সেই লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে। সরেজমিন চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার ফালগুনকরা মৌজায় ক্ষেতে গিয়ে দেখা যায়, অধিকাংশ জমিতে ইঁদুরে কেটে দেয়া কাঁচা ধানগাছ পড়ে রয়েছে। কৃষকদের মধ্যে কেউ কেউ সেগুলো সরিয়ে ফেলছেন। প্রতি বছরই ইঁদুর নিধন অভিযানে কৃষকদের সচেতন করা হয়। কিন্তু এবার ইঁদুর নিধন অভিযান সম্পর্কে উপজেলা কৃষি অফিস থেকে জানানো হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড কৃষি সমবায় সমিতির সভাপতি পেয়ার আহাম্মদ মোল্লা ও কোষাধ্যক্ষ কাজী আকতার। বাধ্য হয়ে তারা কৃষি বিষয়ে অভিজ্ঞদের সাথে যোগাযোগ করেন। কৃষি বিশেষজ্ঞরা জানান, কৃষকদের ইঁদুর উপদ্রব থেকে বেশ কিছু পদ্ধতি রয়েছে। প্রথমত; পলিথিন টানিয়ে দিলে বাতাশে শব্দে ইঁদুর পালিয়ে যায়। দ্বিতীয়ত; বিষটোপ ব্যবহার। তৃতীয়ত; মরিচের গুড়া ইদুরের গর্তে দেয়া, ক্ষেতে ধুপ বা অন্য কিছু দিয়ে ধৌঁয়া তৈরী করলে সুফল পেতে পারে কৃষকরা। যে কোন একটি পদ্ধতি ব্যবহার করেই ইঁদুর নিধন সম্ভব।

পৌর এলাকার উপ-সহকারী কৃষি অফিসার হাসনাত খাঁন বলেন, পৌরসভায় উপ-সহকারী পদে তিনজন থাকার কথা। কিন্তু এই পদে আমি একজন থাকায় সব জায়গায় কৃষকদের পরামর্শ দিতে কষ্ট হচ্ছে। যেহেতু আপনি (সাংবাদিক) বলেছেন, আমি গিয়ে কৃষকদের সাথে কথা বলবো।

এ বিষয়ে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা কৃষি অফিসার আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, সারাদেশে এই সময় আমন ধানে ইদুরের আক্রমণের পরিমাণ বেশি। আমি উপ-সহকারীকে বলছি-আপনার এলাকা পরিদর্শন করে কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে আসবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।