Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

চার শিল্পীকে ৯০ লাখ টাকা অনুদান প্রধানমন্ত্রীর

বিজিবির রামু সদর দপ্তর উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

চিকিৎসা ও অসহায়ত্ব দূর করতে দেশের চার গুণী শিল্পীর পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরা হলেন অভিনেতা প্রবীর মিত্র, রেহানা জলি, নূতন ও কণ্ঠশিল্পী কুদ্দুস বয়াতি। গতকাল সকালে গণভবনে এই চার গুণী শিল্পীকে ডেকে ৯০ লাখ টাকা অনুদান প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী। চার শিল্পী উপস্থিত থেকে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে এই অনুদান গ্রহণ করেছেন।
প্রবীণ অভিনেতা প্রবীর মিত্র ও অসুস্থ অভিনেত্রী রেহানা জলি পেয়েছেন ২৫ লাখ করে অন্যদিকে অভিনেত্রী নূতন ও শিল্পী কুদ্দুস বয়াতি ২০ লাখ টাকা করে পেয়েছেন। সকলকে উক্ত মূল্যের সমমান সঞ্চয়পত্র তুলে দেয়া হয়েছে।
শিল্পী ঐক্য জোটের সভাপতি ও অভিনেতা ডি এ তায়েবের পরামর্শে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক ও নাট্য নির্মাতা জিএম সৈকতের তত্ত¡বাবধানে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেন কুদ্দুস বয়াতি বাদে বাকি তিনশিল্পী। অনুদান গ্রহণের সময় শিল্পী ঐক্য জোটের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন নির্মাতা জিএম সৈকত। অর্থের কারণে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল রেহেনা জলির চিকিৎসা। টাকা পেয়ে আবার চিকিৎসা শুরু করবেন এবং সুস্থ হয়ে খুব তাড়াতাড়ি কাজে ফিরবেন বলেও জানান রেহেনা জলি।
এছাড়া একই সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গরীব রোগীদের চিকিৎসা সহায়তায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিদরিদ্রদের চিকিৎসা তহবিলে ১০ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে এই অনুদানের চেক গ্রহণ করেন। এ সময় প্রতিষ্ঠানটির জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
বিজিবির রামু সদর দপ্তর উদ্বোধন
বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) নবগঠিত রামু সদর দপ্তর উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সঙ্গে নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরের দুটি ব্যাটালিয়নেরও উদ্বোধন করেছেন তিনি। গতকাল সকালে পিলখানায় বিজিবি সদর দপ্তরে এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দুটি ব্যাটালিয়ন ও কক্সবাজারে বিজিবির আঞ্চলিক সদর দপ্তরের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।
এ সময় প্রধানমন্ত্রী সীমান্ত নিরাপত্তায় বিজিবির কার্যক্রমের প্রশংসা করেন। আঞ্চলিক দপ্তর হওয়ায় ওই অঞ্চলে বিজিবির কার্যক্রম আরও গতি পাবে বলেও আশা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিজিবির একটি সুসজ্জিত দল সামরিক রীতিতে কুচকাওয়াজের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে রাষ্ট্রীয় সালাম জানায়। এরপর দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। মোনাজাতে বিজিবি, দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করা হয়। এ উপলক্ষে বিজিবি সদর দপ্তর প্রাঙ্গণে গাছের চারা রোপণ করেন প্রধানমন্ত্রী। পরে পিলখানায় বীর উত্তম ফজলুল রহমান খন্দকার মিলনায়তনে বাহিনীর সব পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং সদস্যদের নিয়ে দরবারে মিলিত হন শেখ হাসিনা। এর আগে প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছালে তাকে স্বাগত জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন এবং বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম। প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে বিজিবির সদর দপ্তরের আশপাশে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়। মোতায়েন করা হয় বিপুলসংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর