Inqilab Logo

শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

স্পিনারেই রাজশাহীর বাজিমাত

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

দীর্ঘ ৬ বছর পর রাজশাহী বিভাগের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মধ্য দিয়ে পর্দা নেমেছে ওয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লিগের ২০তম আসরের। দারুণ দাপটে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করলেও শীর্ষ পাঁচের তালিকায় নেই রাজশাহীর কোনো ব্যাটসম্যান। তাহলে সেরা পাঁচে কারা রয়েছেন? পুরো আসর জুড়ে ব্যাটি হাতে আলো ছড়ানো সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যান সম্পর্কে চলুন জেনে নেই।

জাতীয় ক্রিকেট লিগে মোট ছয় রাউন্ড শেষে ব্যাট হাতে সবচেয়ে বেশি রান করেছেন ঢাকা মেট্রোর সাদমান ইসলাম। মোট ১০ ইনিংস খেলে নামের পাশে ৬৪৮ রান যোগ করেছেন তিনি। যেখানে তার সর্বোচ্চ রান ১৮৯। টুর্নামেন্টে ৬৪.৮০ গড়ে তার স্ট্রাইক রেট ছিল ৫৮.১১। পুরো আসরে মোট ২টি সেঞ্চুরি ও ৩টি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন মেট্রোর এ ব্যাটসম্যান।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্যাটসম্যানের নাম তুষার ইমরান। খুলনার হয়ে মোট ৫ ম্যাচে ৯ ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৫১৮ রান করেছেন অভিজ্ঞ এ ব্যাটসম্যান। ৫৭.৫৫ গড় ও ৫৩.৪০ স্ট্রাইক রেটে তুষারের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ছিল ১৫৯ রান। এবারের আসরে ৩টি সেঞ্চুরি ও ১টি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন তুষার।

গতবারের চ্যাম্পিয়ন খুলনা বিভাগের অপর ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার রয়েছেন সেরা ব্যাটসম্যানের তালিকায় তৃতীয় স্থানে। ৫ ম্যাচে ৮ ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে মোট ৪৭১ রান করেছেন তিনি। ৬৭.২৮ গড়ে ৬৪.৬০ স্ট্রাইক রেটে সৌম্যর সর্বোচ্চ রান ছিল অপরাজিত ১০৩। এক সেঞ্চুরির সঙ্গে মোট ৪টি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন বাঁহাতি এ তারকা ক্রিকেটার।

রংপুর বিভাগের নাঈম ইসলামের অবস্থান এ তালিকার চতুর্থ স্থানে। মোট ৬ ম্যাচে ১০ ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৪৪৪ রান করেছেন তিনি। ৪৯.৩৩ গড়ে যেখানে নাঈমের স্ট্রাইক রেট ছিল ৪৫.১২। তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ছিল অপরাজিত ১০০। রংপুরের এ তারকা ক্রিকেটার এক সেঞ্চুরির সঙ্গে তিনটি হাফ সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন।

মাত্র ৪ ম্যাচে ৬ ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে এই তালিকার পঞ্চম স্থানটি দখলে নিয়েছেন ঢাকা বিভাগের ব্যাটসম্যান রনি তালিকার। মূলত তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২২৮ রানের অপরাজিত ইনিংসাটাই অন্যদের চেয়ে এগিয়ে রাখছে ঢাকা বিভাগের এ তারকা ক্রিকেটারকে। ৮৫.২০ গড়ে ৬৩.৮৬ স্ট্রাইক রেট রয়েছে রনির। পুরো আসরে ১ সেঞ্চুরির পাশাপাশি দুটি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন রনি তালুকদার।

ব্যাটসম্যানরা হতাশ করলেও শিরোপা জিততে রাজশাহীর বোলাররা ছিলেন অসাধারণ, অনন্য। শীর্ষ পাঁচ উইকেট সংগ্রাহকের তালিকায় দুজনই রাজশাহীর। বাকিরা চট্টগ্রাম, ঢাকা মেট্রো ও বরিশাল বিভাগের। তবে সেরা পাঁচের চারজনই হলেন স্পিনার।

২৮ উইকেট নিয়ে সবার উপরে রয়েছেন চট্টগ্রাম বিভাগের স্পিনার নাঈম হাসান। ডানহাতি এ অফস্পিনার খেলেছেন লিগের সবকটি ম্যাচ। ২৫.০৩ গড়ে, ২.৮৯ ইকোনমি রেটে নিয়েছেন ২৮ উইকেট। দুর্দান্ত বোলিং সাফল্যের পথে এক ইনিংসেই ৮ উইকেট পেয়েছিলেন নাঈম। কক্সবাজারে ঢাকা বিভাগের বিপক্ষে নাঈম ১০৬ রানে নেন ৮ উইকেট, যা এবারের লিগে সেরা বোলিং ফিগার।

দুইয়ে আছেন আফারাত সানী। বোলিং অ্যাকশনে ক্রুটি থাকায় জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েন। অ্যাকশন শুধুরে খেলছেন ঘরোয়া ক্রিকেটে। এবারই প্রথম এলেন লাইমলাইটে। বাঁহাতি স্পিনার ৫ ম্যাচ কম খেলে পেয়েছেন ২৩ উইকেট। তার বোলিং ইকোনমি রেট ২.৯০।

পরের দুটি জায়গা দখল করেছেন ফরহাদ রেজা ও সানজামুল ইসলাম। দুজনই চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী বিভাগের। ডানহাতি পেসার ফরহাদ পেয়েছেন ২২ উইকেট। ২০ উইকেট পকেটে পুরেছেন সানজামুল। দলকে চ্যাম্পিয়ন করাতে দুজন বড় ভূমিকা রেখেছেন।

পাঁচে আছেন বরিশাল বিভাগের সানজামুল ইসলাম। ১৯ উইকেট পেয়েছেন বাংলাদেশের হয়ে টেস্টে এক ম্যাচে হ্যাটট্রিক ও সেঞ্চুরি হাঁকানো সোহাগ গাজী।

এছাড়া লিগে উল্লেখযোগ্য বোলিং সাফল্য ছিল একাধিক। এবারের লিগে হ্যাটট্রিক হয়েছে তিনটি। প্রথমটি করেন পেসার দেলোয়ার হোসেন। পরের দুটি দুই স্পিনার মনির হোসেন ও এনামুল হক জুনিয়রের। এক ম্যাচে সবথেকে বেশি উইকেট পেয়েছেন পেসার খালেদ। সিলেটের এ পেসার দুই ইনিংসে ৫টি করে উইকেট পান। চতুর্থ রাউন্ডে তার বোলিং সাফল্যে জিতেছিল সিলেট। দ্যুতি ছড়ানো বোলিং সাফল্যের পরপরই জাতীয় দলে ডাক পান খালেদ।

এছাড়া লিগে অভিষিক্ত রাজশাহীর মোহর শেখ নজর কেড়েছেন সবার। ২ ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়েছেন রাজশাহীর এ পেসার।

২০১৮-১৯ মৌসুমের সেরা ৫
ব্যাটসম্যান ম্যাচ/ইনি. রান সর্বোচ্চ গড় স্ট্রাইক ১০০/৫০
সাদমান ইসলাম (মেট্রো) ৬/১০ ৬৪৮ ১৮৯ ৬৪.৮০ ৫৮.১১ ২/৩
তুষার ইমরান (খুলনা) ৫/৯ ৫১৮ ১৫৯ ৫৭.৫৫ ৫৩.৪০ ৩/১
সৌম্য সরকার (খুলনা) ৫/৮ ৪৭১ ১০৩* ৬৭.২৮ ৬৪.৬০ ১/৪
নাঈম ইসলাম (রংপুর) ৬/১০ ৪৪৪ ১০০* ৪৯.৩৩ ৪৫.১২ ১/৩
রনি তালুকদার (ঢাকা) ৪/৬ ৪২৬ ২২৮* ৮৫.২০ ৬৩.৮৬ ১/২

বোলার ম্যাচ/ইনি. উইকেট সেরা গড় ইকো. ৫/১০
নাঈম হাসান (চট্টগ্রাম) ৬/৯ ২৮ ১১/৪৫ ২৫.০৩ ২.৮৯ ২/১
আরাফাত সানি (মেট্রো) ৫/৯ ২৩ ৮/৬৫ ২৪.৬৫ ২.৯০ ১/০
ফরহাদ রেজা (রাজশাহী) ৬/১২ ২২ ৭/৮০ ২৬.৫৯ ৩.০৮ ০/০
সানজামুল ইসলাম (রাজশাহী) ৬/১১ ২০ ১১/১৪১ ২৯.৫০ ২.৯০ ১/১
সোহাগ গাজী (বরিশাল) ৫/৮ ১৯ ৭/১০৫ ২৭.৯৪ ২.৮২ ১/০



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় ক্রিকেট লিগ
আরও পড়ুন