Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৩ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্বামী হত্যা মামলায় স্ত্রীসহ ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ নভেম্বর, ২০১৮, ৪:৩২ পিএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্বামীকে হত্যার দায়ে দ্বিতীয় স্ত্রী ও তার পরকীয়া প্রেমিকসহ তিনজনকে ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শেখ সুলতানা রাজিয়া গতকাল বুধবার দুপুরে এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন ভিকটিমের দ্বিতীয় স্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার ভাদুঘর গ্রামের সালমা বেগম, তার পরকীয়া প্রেমিক একই গ্রামের সজল দেবনাথ ও আলাল মিয়া। এদের মধ্যে সালমা ছাড়া অন্য সবাই পলাতক রয়েছেন। এছাড়া এ মামলায় লিটন দেবনাথ নামে এক আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পিপি দ্বীন ইসলাম জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের জগৎ বাজারের মুদি মালের ব্যবসায়ি ভাদুঘর গ্রামের আব্দুল করিম গত ২০১১ সালের ৫ জুন খুন হন। ওই দিনগত রাত ১২ টার দিকে ভাদুঘর মধ্যপাড়া মহল্লায় সালমাসহ তিন আসামি গলায় রশি দিয়ে শ্বাসরোধ করে আব্দুল করিমকে হত্যা করে। পরে তার মরদেহ বস্তাবন্দি করে পরদিন বসত ঘরেই রেখে দেওয়া হয়। এর পরের দিনগত রাতে ভ্যানচালক লিটন দেবনাথের সহযোগিতায় কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক সংলগ্ন উড়শিউড়া এলাকায় খালে লাশ ফেলে দেওয়া হয়। পরদিন সকালে এলাকাবাসীর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ দুটি বস্তায় বন্দি করা মরদেহটি উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় নিহতের প্রথম স্ত্রী শিউলী বেগম বাদি হয়ে ৭জুন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ সালমাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তারের পর তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবিন্দ দিয়ে হত্যার কথা স্বীকার করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে করিমের দ্বিতীয় স্ত্রী সালমা বেগম, সজল দেবনাথ, আলাল মিয়া ও লিটন দেবনাথকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশীট) দাখিল করেন। পরে সজল দেবনাথ ও আলাল মিয়া জামিন পেয়ে পালিয়ে যান। এই দুই আসামি গ্রেপ্তারের পর তাদের রায় কার্যকর হবে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ