Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৬ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

নির্বাচন বানচাল করতে পরিকল্পিত নাশকতা

সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচন বানচাল করতে বিএনপি পরিকল্পিতভাবে নাশকতা করেছে। বিনা উসকানিতে পুলিশের ওপর হামলা করেছে।
গতকাল রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের পর বিকালে আওয়ামী লীগের ধানমন্ডিস্থ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
এক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, বিএনপির সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ তো আমাদের দলের কোন বিষয় না। তাই এ বিষয়ে দলের কোন কর্মসূচী হাতে নোবর কিছু নেই। সংবিধান অনুযায়ী এখন আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী নির্বাচন কমিশনের (ইসি) হাতে ন্যাস্ত। আমরা ইসির দিকে তাকিয়ে আছি তারা কি ব্যবস্থা নেয়। প্রকাশ্য দিবালোকে তারা যা করলো, সে বিষয়ে কমিশন করবে, তা আমরা দেখতে চাই, জানতে চাই।
তিনি বলেন, এ উসকানি কারা দিল, তাহলে কি নির্বাচন পেছানোর জন্য? তারা পরিকল্পিতভাবে নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে নিজেদের বীরত্ব জাহির করেছে এবং নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র শুরু করে দিয়েছেন। এই দল দেশে নির্বাচন চায় না। অরাজকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করে নির্বাচিত শেখ হাসিনা সরকারকে উৎখাত করতে চায়। কাদের বলেন, আজ তারা পুলিশের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। পুলিশের দুটি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়। একটি গাড়ি প্রায় পুড়িয়ে ফেলে। তাদের হামলায় পুলিশের ১৩ সদস্য মারাত্মকভাবে আহত হয়ে হাসপাতালে।
সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, আমরা পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, যতো ষড়যন্ত্রই হোক এই নির্বাচন মানুষের প্রত্যাশার নির্বাচন। মানুষ ভোট দেওয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে আছে। নির্বাচন বানচালের চেষ্টা করলে বাংলাদেশের জনগণই তা প্রতিহত করবে।
তিনি বলেন, আজকে বাংলাদেশের জনগণ শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন অর্জনে খুশি, আমরা নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে সম্পূর্ণ আশাবাদী। আমরা আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশের জনগণ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে ভোট দেবে, সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে পরাজিত করবে। এ নির্বাচন সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে। ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা কি আজ জানান দিলেন, ২০০১ সালে যা করেছেন, ১৪ সালে যা করেছেন, আবারো তারা সেটাই করবেন। আজকের ঘটনায় তাদের উদ্দেশ্য মনে হচ্ছে, তারা নির্বাচন বানচাল করতে চায়। তারা জনপ্রিয় জননন্দিত শেখ হাসিনা সরকারকে ক্ষমতা থেকে হটাতে চায়। এটাই তাদের উদ্দেশ্য।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা হলেও পুলিশ ধৈর্য্যরে পরিচয় দিয়েছে, পাল্টা আক্রমণ করেনি। আমাদের ধৈর্য ধরতে হবে। প্রধানমন্ত্রী ধৈর্য ধরতে বলেছেন। সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি ও আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ও এনামুল হক শামীম, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়–য়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ