Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

নির্বাচনে এই স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে ভোট বিপ্লব হবে

ধানের শীষ প্রতীকে লড়বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট : মান্না

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সব দল ‘ধানের শীষ’ প্রতীকে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। গতকাল মতিঝিলে ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠক শেষে ঐক্যফ্রন্টের নেতা নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে আমরা যতগুলো দল মিলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট করেছি সবাই একটি কমন প্রতীকে নির্বাচন করবো। সেই কমন প্রতীক হবে ধানের শীষ। মাহমুদুর রহমান মান্না নয়া বলেন, গত বুধবার পল্টনের সামনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতা-কর্মীদের ওপর পুলিশি হামলার আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। আমরা খুব স্পষ্ট করে বলতে চাই যে, সরকার যেকোনো ভাবে বিরোধী দল যাতে নির্বাচনে অংশগ্রহন করতে না পারে তার জন্যে সব রকমের উস্কানি দিচ্ছে। আমরা এই উস্কানি প্রতিরোধ করবো।
আমরা ধৈর্য্য ধরব। আমাদের সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, সব ধরনের বাঁধা উপেক্ষা করে আমরা নির্বাচন করব। এই নির্বাচনে একটা ভোট বিপ্লব হবে এই স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে এটা আমাদের বিশ্বাস। মানুষের মধ্যে যে সাড়া দেখতে পাচ্ছি তাতে সরকারের ভরাডুবি নিশ্চিত। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিকদের মধ্যে আসন বন্টন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে কিনা প্রশ্ন করা হলে মান্না বলেন, এখনো এ বিষয়ে কোন আলোচনা হয়নি। তবে আমরা একটা যাত্রা শুরু করেছি। আমাদের সবার মার্কা হবে ধানের শীষ এ সিদ্ধান্ত আজকে হয়েছে। অন্যান্য বিষয়ও আলোচনার মাধ্যমে খুব শিগগির চূড়ান্ত করা হবে।
ঐক্যফ্রন্ট বিজয়ী হলে আপনাদের প্রধানমন্ত্রী কে হবেন ওবায়দুল কাদেরে তা জানতে চেয়ে যে বক্তব্য দিয়েছে সে বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, এটা নিয়ে তার এতো মাথা ব্যথা কেন। এ নিয়ে তার এতো চিন্তা করবার কিছু নেই। আমরা ভোটে বিজয়ী হলে নিজেরাই ঠিক করে নিতে পারবো কে প্রধানমন্ত্রী হবেন।
নির্বাচনের তারিখ পেছানোর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম বলেছেন ১ ঘন্টাও পেছানো হবে না এ বিষয়ে আপনি কি বলবেন? সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে নির্বাচনের বিষয়ে বললে বলেন, এটাতো ইসির এখতিয়ার। তাহলে এইচটি ইমাম কি করে বলেন যে নির্বাচন পেছাবে না। এটাতো নির্বাচন কমিশনকে এক ধরনের হুমকি প্রদান করা হয়েছে। আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে সময় চেয়েছি, নির্বাচন পেছাতে বলেছি। নির্বাচন কমিশন আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা তাদের কথায় আস্থা রাখতে চাই।
বিএনপির নয়া পল্টনের কার্যালয়ে গত বুধবারের সহিংসতার সমালোচনা করে মান্না বলেন, আমাদের কাছে প্রতীয়মান হয়েছে পুলিশের দুইটি গাড়ি ভাঙা এবং ওইখানে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা তার পেছনে সরকারি দলের লোকজনের হাত আছে। অসমর্থিত কিন্তু বিশ্বাসযোগ্য খবরে প্রকাশ যে, যুব লীগ ও ছাত্রলীগের হেলমেট পরা বাহিনী, ওই যে কোটা ও নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের সময়ে হেলমেট বাহিনীকে দেখেছিলাম, সেই হেলমেট বাহিনী সেখানে তৎপর ছিলো। আমরা এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করছি।
গত ১৩ নভেম্বর ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে বিএনপিকে নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হয়। ঐক্যফ্রন্টে যে সব দল রয়েছে সে গুলো হচ্ছে বিএনপি, জেএসডি, গণফোরাম, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ও নাগরিক ঐক্য।
ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডির আসম আবদুর রব, আবদুল মালেক রতন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, হাবিবুর রহমান তালুকদার বীরপ্রতীক, গণফোরামের মোস্তফা মহসিন মন্টু, এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, মুকাব্বির খান, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না, ডা. জাহেদ উর রহমান, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ প্রমূখ। #



 

Show all comments
  • M.mabud ১৬ নভেম্বর, ২০১৮, ৭:১১ পিএম says : 0
    Nipon Rai o BNP ongo sangogatan mamala tyke seniour okli diye basan.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ