Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৩ পৌষ ১৪২৫, ৯ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

পোশাক শিল্পের মেলায় বাণিজ্যমন্ত্রী

দেশে আন্তর্জাতিক মানের গ্রীণ ফ্যাক্টরি গড়ে উঠছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৬ এএম

তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, দেশের তৈরী পোশাক শিল্প দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। একের পর এক এখন দেশে আন্তর্জাতিক মান সম্পন্ন গ্রীণ ফ্যাক্টরি গড়ে উঠছে, ইতোমধ্যে ৭৫টি ফ্যাকটরিকে গ্রীণ ফ্যাকরির সার্টিফিকেট দেয়া হয়েছে, আরো ২৮০টি ফ্যাক্টরি গ্রাীণ সার্টিফিকেটের জন্য আবেদন করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গ্রীণ বিল্ডং কাউন্সিল বিশে^র মধ্যে ১০টি তৈরী পোশাক ফ্যাক্টরিকে গ্রীণ ফ্যাক্টরির সার্টিফিকেট প্রদান করেছে, এর মধ্যে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয়সহ সাতটি বাংলাদেশের তৈরী পোশাক কারখানা।
তিনি বলেন, এ শিল্পে দেশের প্রায় ৪০ লাখ মানুষ কাজ করছে। গত অর্থ বছরে বাংলাদেশ তৈরী পোশাক রফতানি করে ৩০ দশমিক ৬১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করেছে। এ বছর ৩২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রফতানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে এখন বেশি রপ্তানি হচ্ছে। আশা করা যায়, এবছর ৩৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের তৈরী পোশাক রপ্তানি করা সম্ভব হবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রফতানি বেড়েছে ১৯ ভাগ এবং নতুন বাজারে রফতানি বেড়েছে ৪০ ভাগ।
বাণিজ্যমন্ত্রী গতকাল ঢাকার আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় রেডকার্পেট৩৬৫ লিমিটেড আয়োজিত ‘বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক গার্মেন্ট এন্ড টেক্সটাইলস, প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং মেশিনারী, ডাইস, পিগমেন্টস ও কেমিক্যাল, ইয়ান ও ফেব্রিক’ এর উপর চারটি আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৯৬ সালে সরকার কাগজ উৎপাদনের কাঁচামাল মন্ড আমদানি শুল্কমুক্ত করে, ফিনিস কাগজ আমদানির উপর অধিকহারে শুল্ক আরোপের কারনে দেশ এখন কাগজ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পন্ন হয়েছে। দেশের চাহিদা পূরণ করে এখন কাগজ বিদেশে রফতানি হচ্ছে।
প্রদর্শনীতে এশিয়া, ইউরোপ ও আমেরিকার ১২টি দেশের প্রতিষ্ঠান তৈরী পোশাকের সাথে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন যন্ত্রপাতি ও টেকনোরজি প্রদর্শন করছে। আগামী ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত প্রদর্শনী প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৭টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে গ্রীসের অনারারী কনসুল জেনারেল এবং বিজিএমই-এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ফারুক হাসান, বিকেএমই-এর ফার্ষ্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মনসুর আহমেদ, বাংলাদেশ পেপার মিলস এ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান মো. মোস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ ইনডেন্টিং এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মুহা. আইয়ুব, ওয়েল গ্রুপের চেয়ারম্যান সৈয়দ নূরুল ইসলাম বক্তৃতা করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ