Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

রাজাপুরে স্কুল শিক্ষার্থী ও প্রতিবন্ধী শিশুর লাশ উদ্ধার

রাজাপুর (ঝালকাঠি) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

 ঝালকাঠির রাজাপুরে রেশমা আক্তার (১৪) নামে নবম শ্রেনীর মেধাবী স্কুল শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করেছে রাজাপুর থানা পুলিশ। শুক্রবার সকালে উপজেলার জগাইরহাট গ্রাম থেকে রেশমার লাশ উদ্ধার করা হয়। রেশমা আক্তার উপজেলার জগাইরহাট গ্রামের মো. মীর ইয়াকুব আলীর মেয়ে ও ত্রি-পল্লী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্রী। রেশমার বাবা মো. মীর ইয়াকুব আলীসহ পরিবাররের লোকজন জানায়, রাতের খাবার খেয়ে রেশমা ও তার ছোট বোন মিম এক সাথে ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে ছোট বোন মিম ফজরের নামাজ পড়ে আবার রেশমার পাশে শুয়ে পড়ে। কিছুক্ষন পরে মিম রেশমাকে বিছানায় দেখতে না পেয়ে পরিবারের সবাইকে জানায়। পরিবারের লোকজন সবাই খোঁজাখুজি করে ঘরের পিছনে একটি আম গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় রেশমাকে দেখতে পায়। তবে কি কারনে রেশমা আত্মহত্যা করেছে এর কোন কারন খুঁজে পাচ্ছেনা পরিবার। খবর পেয়ে রাজাপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে এবং লাশের সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য লাশ ঝালকাঠি মর্গে পাঠায়। রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. জাহিদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় রাজাপুর থানায় একটি ইউডি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত মৃত্যুর সঠিক কারন বলা যাচ্ছে না।

প্রতিবন্ধী শিশুর লাশ উদ্ধার
ঝালকাঠির রাজাপুরে নিখোঁজের ২দিন পরে মো. হৃদয় খান (১১) নামে এক প্রতিবন্ধী শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে রাজাপুর থানা পুলিশ। শুক্রবার উপজেলার পশ্চিম বাদুরতলা গ্রামের বদনিকাঠি খাল থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। হৃদয় খান উপজেলার পশ্চিম বাদুরতলা গ্রামের মো. ইউসুব খানের পুত্র। মৃতের ভাই নাসির খান জানায়, গত বুধবার দুপুরে হৃদয় নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজার পরে না পেয়ে বৃহস্পতিবার রাজাপুর থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন। শুক্রবার সকালে এলাকার লোকজন ঐ নিখোঁজ শিশুর লাশ খালে ভাসতে দেখে রাজাপুর থানা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। লাশের সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য ঝালকাঠি মর্গে পাঠায়।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ