Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২ পৌষ ১৪২৫, ৮ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

ভ্রান্ত আকিদা পোষণ করলে ইবাদত হবে না -কক্সবাজারে আল্লামা শফি

বিশেষ সংবাদদাতা, কক্সবাজার : | প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

 হেফাজতে ইসলামের আমীর শাইখুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফি বলেছেন, জাহেরী আমালের চেয়ে ক্বালবী আমালের কার্যকারিতা অনেক বেশী। আকিদা সহিহ না হলে কোন আমলই গ্রহণযোগ্য হয় না।

স¤প্রতি বিভিন্ন পীরের আস্তানায় ইসলামী আকিদার পরিপন্থী ওয়াজ নসিহত এর নামে মানুষকে গোমরাহীর পথ ঠেলে দেয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘লাইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মদুর রসুলুল্ললাহ’ এই আকিদার বাইরে কেউ ভ্রান্ত আকিদা পোষণ করলে কোন ইবাদত গ্রহণযোগ্য হবেনা। কেউ মুসলমানও থাকবে না। আল্লামা আহমদ শফি গতকাল জুমার আগে কক্সবাজারে এক ইসলাহী জলসায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। সকালে কলাতলীর হোটেল মোটেল জোনের লাইট হাউজ মাদরাসা মাঠে আয়োজিত ইসলাহী জলসায় সভাপতিত্ব করেন মাওলানা মুহাম্মদ মুসলিম।

আল্লামা শফি বলেন, মুসলমানদেরকে ভ্রান্ত পথ থেকে বের করে সঠিক পথে পরিচালিত করার দায়িত্ব হক্কানী আলেম ওলামা ও পীর মাশায়েখদের। যে কোন পরিস্থিতিতে ওলামায়ে কেরাম ও পীর মশায়েখদের এই দায়িত্ব পালন করতে হবে। তিনি বলেন, বড় পীর আব্দুল কাদের জিলানী, হোসাইন আহমদ মাদানী, পটিয়ার আল্লামা আজিজুল হক, মরহুম হাজী সাহেবসহ সকল হক্কানী ওলামারা এই দায়িত্ব পালন করেছেন। ফরজ নামাজ রোজার পাশাপাশি নফল ইবাদাত ও নফল রোজা, নামাজ আদায় করে আল্লাহর নৈকট্য লাভ করতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সর্বাবস্থায় আল্লাহর জিকির মানুষের মর্যাদা বৃদ্ধি করে। কওমী সনদের স্বীকৃতির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। এর আগে স্থানীয় এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল আল্লামা শফির সাথে সাক্ষাত করে তাঁর দোয়া কামনা করেন। এসময় তার সফর সঙ্গী, স্থানীয় হেফজত নেতৃবৃন্দ ও ওলামায়ে কেরাম উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার থেকে আল্লামা শফি দুই দিনের কক্সবাজার সফরে রয়েছেন। অনুষ্ঠান শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণে মোনাজাত করেন তিনি।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ