Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

সেবা ও ইটিআইএন গ্রহণে রেকর্ড

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় চলছে আয়কর মেলা। শুক্রবারের চেয়ে গতকাল শনিবারে আরও বেশি করদাতাদের সরব উপস্থিতিতে উৎসব মুখর ছিল পঞ্চম দিনের মেলা। সকাল থেকেই রাজধানীর মেলা প্রাঙ্গণে অনেকটাই উৎসবের আমেজ দেখা যায়। শুধু তাই নয়, মেলাতে সেবা গ্রহন ও নতুন ইটিআইএন গ্রহনে রেকর্ড হয়েছে। এনবিআর আয়োজিত চলতি নবম মেলার পঞ্চম দিন শেষে মোট সেবা নিয়েছেন সাড়ে ১১ লাখ করদাতা। যা গতবছরের একই সময়ে ছিল সাড়ে সাত লাখ। অর্থাৎ চলতি বছর এ সংখ্যা বেড়েছে প্রায় দিগুন। যার প্রবৃদ্ধির হার ৪৮ দশমিক ৯৬ শতাংশ। সেবার পাশাপাশি নতুন ইটিআইএন গ্রহন করেছেন প্রায় ২৫ হাজার জন। গতবছরে যা ছিল মাত্র ছয় হাজার জন। অর্থাৎ চলতি মেলাতে বেড়েছে ১৯ হাজারের বেশি যা প্রবৃদ্ধি ৩৩৭ দশমিক ২০ শতাংশ।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা সৈয়দ এ মুমেন জানান, শুক্রবারের মতো শনিবারও আয়কর মেলাতে কর দাতাদের অনেক সাড়া পাওয়া গেছে। এদিন মেলায় সেবা গ্রহন করেছেন দুই লাখ ৪৮ হাজার ৯১৭ জন। রিটার্ন দাখিল করেছেন ৮১ হাজার ৫৯৯ জন। আয়কর আদায় হয়েছে ২৯০ কোটি ৫২ লাখ ৯৩ হাজার ৭০৮ টাকা। অন্যদিকে নতুন ইটিআইন নিয়েছেন পাঁচ হাজার ৪৪৮ জন।

এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, সপ্তাহব্যাপী মেলার পাঁচদিনে মোট আয়কর আদায় হয়েছে ১ হাজার ৫৫৮ কোটি নয় লাখ ৪২ হাজার ৫২৭ টাকা। গত বছরের প্রথম পাঁচদিনে আদায়ের পরিমান ছিল ১ হাজার ৪৭৩ কোটি ২৪ লাখ ১৮হাজার ৩২ টাকা। গতবারের চেয়ে এবার আদায়ের পরিমান বেড়েছে ৮৪ কোটি ৮৫ লাখ ২৪ হাজার ৪৯৫ টাকা। যার প্রবৃদ্ধির হার ৫ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

পাঁচদিনে মেলায় মোট সেবা নিয়েছেন ১১ লাখ ৪৮ হাজার ৫৭২ জন। গতবছরের একই সময়ে এ সংখ্যা ছিল সাত লাখ ৭১ হাজার ৬৩ জন। গতবারের চেয়ে এবার এ সংখ্যা বেড়েছে তিন লাখ ৭৭ হাজার ৫০৯ জন। প্রবৃদ্ধির হার ৪৮ দশমিক ৯৬ শতাংশ। পাঁচদিনে রিটার্ন দাখিল করেছেন তিন লাখ ৪২ হাজার ৮৩৩ জন আয়কর দাতা। যা গতবছর একই সময়ে ছিল দুই লাখ ১১ হাজার ৭৫৩ জন। একবছর ব্যবধানে এর প্রবৃদ্ধির হার ৬১ দশমিক ৯০ শতাংশ। নতুন ইটিআইন গ্রহনকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ হাজার ৯০৩ জন। গতবছর এ সংখ্যা ছিল মাত্র পাঁচ হাজার ৬৯৬ জন। অর্থাৎ নতুন ইটিআইন গ্রহন কারী সংখ্যা বেড়েছে ১৯ হাজার ২০৭ জন। একবছরের ব্যবধানে বেড়েছে ৩৩৭ দশমিক ২০ শতাংশ।

সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা পঞ্চম দিনে সরেজমিন দেখা যায়, শনিবার সাপ্তাহিক সরকারি ছুটির দিনে আয়কর মেলা প্রাঙ্গন আয়করদাতা এবং সেবা গ্রহীতাসহ সকল পর্যায়ের মানুষের উপস্থিতিতে কানায় কানায় ভরে যায়।

মেলায় আয়কর রিটার্ন জমা, নতুন ই-টিন খোলা কিংবা করসেবা দেওয়াসহ সকল কাজই চলছে ক্লান্তিহীনভাবে। সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ছুটির দিনে অফিসের ব্যস্ততা না থাকায় গতকাল শনিবার মেলায় আয়কর দিতে আসেন
মেলায় ঢুকলেই চোখে পড়বে অনুসন্ধান ও তথ্য কেন্দ্র। সেখান থেকে তথ্য নিয়ে যেতে হয় বিভিন্ন স্টলে। তারপর মিলবে কর সংক্রান্ত সব ধরনের সেবা। সবাই তা’ই করছেন। বিশেষ করে যারা নতুন কর দিচ্ছেন তারা সবাই তথ্য সংগ্রহের জন্য সেখানে যাচ্ছেন।
ব্যতিক্রম এ মেলায় সকাল থেকেই উৎসবের আবহ নেমেছিল রাজধানীর অফির্সাস ক্লাবে। শুধু রাজধানী নয়, করদাতাদের ব্যাপক সাড়ার মধ্য দিয়ে গতকালও দেশের ৮টি বিভাগ, ৫২ টি জেলা এবং ১৩ টি উপজেলাসহ মোট ৭৩ টি স্পটে আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হয়। রাজধানী ঢাকার মতোই মেলার পঞ্চম দিন সারাদেশে করদাতারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে কর প্রদান ও সেবা গ্রহণ করেন। বিশেষ করে পেশাজীবী, চাকুরিজীবী, তরুন করদাতা, নারী করদাতা, অনলাইন রিটার্ন দাখিল বুথে করদাতাদের ছিল সরব উপস্থিতি।

ছুটির দিন হওয়ায় সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়াও অন্যান্য পেশাজীবীদেরও মেলায় আসতে দেখা গেছে। মেলা ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন কর অঞ্চলের রিটার্ন গ্রহণ বুথ, হেল্প ডেস্ক, ব্যাংকের বুথ, ই-পেমেন্ট বুথ, ই-টিআইএন বুথসহ সব বুথে করদাতাদের ভিড় ছিল লক্ষনীয়।
মেলার সমন্বয়ক ও এনবিআর সদস্য জিয়া উদ্দিন মাহমুদ বলেন, মেলায় করদাতাদের সেবা নেওয়া, নিবন্ধন ও রিটার্ন জমা দেওয়ার ধারা অব্যাহত রয়েছে। কোনো সমস্যা হলে সাথে সাথেই মিলছে সমাধান। মেলায় কর সংক্রান্ত সব সেবাই সহজে মিলছে। মাত্র কয়েক মিনিটেই জমা দেওয়া যাচ্ছে আয়কর রিটার্ন। ব্যাংক বুথ ছাড়াও ই-পেমেন্টের মাধ্যমে অনলাইনেই জমা দেওয়া যাচ্ছে আয়কর। করা যাচ্ছে ই-ফাইলিংও। কর নিবন্ধন (ই-টিআইএন) নিতেও সময় লাগছে খুবই কম। বিড়ম্বনা ছাড়া সহজে আয়কর জমা দিতে পেরে সন্তুষ্ট করদাতারাও।
গতকাল নিজের কর বিবরণী জমা দিতে মেলায় আসেন ব্যাংক কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান কবিরাজ। তিনি বলেন, প্রতিদিন অফিস শেষে মেলায় আসার সময় হয় না। ছুটির দিন হওয়ায় বিকেলে চলে আসলাম। অন্য বছরের তুলনায় এ বছর মেলায় সেবার মান খুবই ভালো বলে তিনি মন্তব্য করেন।
অডিও ভিজ্যুয়াল পদ্ধতিতে কর শিক্ষণ কার্যক্রম উদ্বোধন: চলমান সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলায় অডিও ভিজ্যুয়াল পদ্ধতিতে কর শিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয় গতকাল। মেলা প্রাঙ্গনে উদ্বোধন করেন আয়কর মেলা ২০১৮ এর সমন্বয়ক ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য জিয়া উদ্দিন মাহমুদ। অডিও ভিজ্যুয়াল পদ্ধতিতে কর শিক্ষণ কার্যক্রম এটি এনবিআরের নতুন উদ্ভাবনীমূলক উদ্যোগ। এর মাধ্যমে করদাতারা আধুনিক পদ্ধতিতে কর শিক্ষণ কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড নির্মিত চারটি ডকু ড্রামায় রিটার্ন দাখিলের সব ধরনের তথ্য সন্নিবেশিত হয়েছে। নাটিকার মতো এ ডকুড্রামা/ভিডিওগুলো দেখলে সম্মানিত করদাতারা স্ব স্ব রিটার্ন তৈরি করতে পারবেন। এ ডকুড্রামা/ভিডিও টিউটোরিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।