Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

মির্জাপুরে কয়লা কারখানা গুড়িয়েছে ও ড্রেজার মেশিন পুড়িয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ নভেম্বর, ২০১৮, ৭:৩৯ পিএম

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে কয়লা তৈরির অবৈধ ৬টি কারখানা গুড়িয়ে এবং একটি ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। রোববার বিকেলে উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের রহিমপুর গ্রামে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে ৬টি কয়লার কারখানা গুড়িয়ে এবং বংশাই নদীর যোগীর কোফা খেয়া ঘাট এলাকায় একটি ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে দেয়। এসময় ৩শ বস্তা কয়লা জব্দ করা হয় বলে জানা গেছে। ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক মির্জাপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর হোসেন এই অভিযান পরিচালনা করেন। এ ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেনি বলে জানা গেছে।
জানা গেছে, মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের রহিমপুর গ্রামের তোতা মিয়া ও আলহাজ মিয়া দীর্ঘদিন যাবত কাঠ পুড়িয়ে অবৈধভাবে কয়লা তৈরি করে আসছিল। যা ওই এলাকার পরিবেশের জন্য অত্যান্ত ঝুকিপূর্ণ। এ বিষয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় সচিত্র সংবাদ প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত সংবাদ টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক ও মির্জাপুর উপজেলা প্রশাসনের নজরে আসে।
রোববার বিকেলে মির্জাপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক মো. আজগার হোসেনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত রহিমপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৬টি কয়লা তৈরির কারখানা গুড়িয়ে দেয়। এসময় ৩শ বস্তা কয়লা জব্দ করা হয়। অভিযানের সময় কারখানার মালিক ও শ্রমিকদের আটক করতে পারেনি বলে জানা গেছে। পরে ভ্রাম্যমান আদালত উপজেলার লতিফপুর ইউনিয়নের বংশাই নদীর যোগীর কোফা খেয়া ঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে নদী থেকে বালু তোলার ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে দেয়। ভ্রমাম্যান আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে ড্রেজার মালিক এস এম ইমান আলী পালিয়ে যান বলে জানা গেছে।

মির্জাপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন কাউকে আটক করা যায়নি ।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ