Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ নিজ দলের নেতাকর্মীদের

প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

শরণখোলা (বাগেরহাট) উপজেলা সংবাদদাতা : শরণখোলা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জিয়াউল হাচান তেনজিনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনৈতিন কর্মকান্ডের অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নিজ দলের এক নেতা। খোন্তাকাটা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. এনামুল তালুকদার গত সোমবার শরণখোলা প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন করেন। এনামুল তালুকদার তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমি দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সাথে উপজেলার ২নম্বর কোন্তাকাটা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছি। পাশাপাশি রেফকো ফার্মা লিমিটেড নামের একটি ওষুধ কোম্পানীর স্থানীয় বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত। গত ২৩ জানুয়ারি দুপুরে শাওন, শাহীন ও জাহিদুল নামের তিন যুকব ছাত্রলীগের নাম ভাঙিয়ে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে কর্মব্যরত চিকিৎসক ডা. আসাদ হোসেনের কাছে চাঁদা দাবি করে। ওই খবর শোনার পর আমি হাসপাতালে গিয়ে ঘটনার প্রতিবাদ করি এবং তাৎক্ষণিকভাবে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বিষয়টি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতিকে জানাই। পরবর্তীতে ছাত্রলীগ সভাপতি জিয়াউল হাচান তেনজি হাসপাতালে গিয়ে উল্টো আমার ওপর চড়াও হন। এবং ছাত্রলীগ নামধারী ওই তিন অছাত্রসহ তিনি নিজে আমাকে মারধর করেন। বিষয়টি উপজেলা আওয়ামী লীগ ও জেলা ছাত্রলীগের নেতাদের কাছে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। এটনায় শরণখোলা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করা হয়েছে। লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বর্তমানে শরণখোলা ছাত্রলীগ অছাত্র, নেশাখোর আর মাদক ব্যবসায়ীদের দখলে। তাদের হুমকি, নির্যাতন ও চাপের মুখে প্রকৃত ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা কোনঠাসা হয়ে পড়েছে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থি নেতাকর্মীরা বলেন, এঘটান সুষ্ঠু বিচার না পেলে মানববন্ধন করা হবে। প্রয়োজনে হরতালসহ কোঠোর কর্মসূচী দেয়ার ঘোষনা দেন তারা। এব্যাপারে বাগেরহাট জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাহিয়ান আল সুলতান ওষানের কাছে জানতে চাইলে বলেন, ছাত্রলীগ সভাপতি জিয়াউল হাচান তেনজিনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তার কাছে ৭ দিনের মধ্যে জবাব চেয়ে জেলা ছাত্রলেিগর পক্ষ থেকে একটি নোটিশ দেয়া হয়েছে। সন্তোষজনক জবাব না পেলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জিয়াউল হাচান তেনজিন বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে একটি পক্ষ আমাকে বাগে নিতে না পেরে আমার বিরুদ্ধে একের পর এক ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। হাসপাতলে মারধর ও চাঁদা দাবির কোনো ঘটনা ঘটেনি। তারা একটি কাল্পনিক অভিযোগ তুলে আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করতে তৎপর রয়েছে। এছাড়া আমার সংগঠনের কোনো নেতাকর্মী সাথে আমার কোনো বিরোধ নেই। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন যে পাবেন ছাত্রলীগ তার পক্ষেই থাকবে। সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধরাণ সম্পাদক হুমায়ুন করিম সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন আকন, উপজেলা ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির সহসভাপতি হাসান মীর, খায়রুল শরীফ, আলামীন হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ও সাংগঠনিক সম্পাদক রাজু আকন। এছাড়া উপজেলার চারটি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকসহ নেতাকর্মীরা উপস্থি ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ নিজ দলের নেতাকর্মীদের
আরও পড়ুন