Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

যুক্তরাষ্ট-চীন বিরোধে বিবৃতি ছাড়াই শেষ হলো এপেক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলমান বাণিজ্য যুদ্ধের কারণে শেষ পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক কোনও বিবৃতি ছাড়াই শেষ হলো এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক জোটের সম্মেলন (এপেক)। সদস্য দেশগুলোর নেতাদের বিবৃতি ছাড়া এপেক সম্মেলন শেষ করার ঘটনা এবারই প্রথম। খবর বিবিসি। 

পাপুয়া নিউ গিনিতে এপেকের সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্র আর চীন শেষ পর্যন্ত বাণিজ্য প্রশ্নে কোনও সমঝোতায় পৌঁছাতে পারেনি। আন্তর্জাতিক বাণিজ্য নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বিরোধে সম্পর্কের দুরত্ব ক্রমাগতই বাড়ছে। এবার সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, পাপুয়া নিউ গিনিতে একটি নৌ ঘাঁটি স্থাপনে অস্ট্রেলিয়ার প্রচেষ্টার সঙ্গে যোগ দেবে মার্কিন প্রশাসন। এ নৌ ঘাঁটি নির্মাণকে চীনের ক্রমবর্ধমান প্রভাব হ্রাসের প্রচেষ্টা হিসেবে বিবেচনা করা হয়। শনিবার চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং যুক্তরাষ্ট্রের এ ধরনের বাণিজ্য নীতির কঠোর সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, যেসব দেশ সংরক্ষণবাদী নীতিকে আলিঙ্গন করেছে তারা ব্যর্থতায় ডুবে যাবে। মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স জানিয়েছেন, ওয়াশিংটন নিজেদের বাণিজ্য নীতিতে কোনও পরিবর্তন আনবে না। পেন্স আমদানিকৃত চীনা পণ্যের ওপর আরোপিত শুল্ক দ্বিগুণ করারও হুমকি দেন।
এ অবস্থায় কোনও ধরনের আনুষ্ঠানিক বিবৃতি প্রদান ছাড়াই শেষ হয় এপেক সম্মেলন। সমাপনী বক্তব্যে পাপুয়া নিউ গিনির প্রধানমন্ত্রী পিটার ও’নিল বলেন, ২০২০ সাল নাগাদ আঞ্চলিকভাবে ‘অবাধ ও মুক্ত’ বাণিজ্য’ নিশ্চিত করার চেষ্টা করবে এপেক। তিনি বলেন, এ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী ‘বড় দুই দেশ’ সমঝোতায় পৌঁছাতে পারেনি। এপেকের সভাপতির পক্ষ থেকে পরবর্তীতে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হবে বলেও জানান ও’নিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর