Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

সেরা ফ্রিল্যান্সারদের ল্যাপটপ প্রদান করলেন মোস্তফা জব্বার

মো. ইকরাম | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০১৮, ১০:৪৭ এএম

আইসিটি মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ প্রকল্প লার্নিং এন্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠানে এ প্রকল্পে ট্রেনিং প্রাপ্ত সেরা ফ্রিল্যান্সারদের ল্যাপটপ প্রদান করা হয়। চাঁদপুর হতে ল্যাপটপ প্রাপ্তরা হচ্ছেন শাওন খান এবং নকিব চৌধুরি। এর মধ্যে শাওন খান ৩৮ হাজার ডলার আয় করে সারা বাংলাদেশের মধ্যে সেরা আর্নার হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে লার্নিং এন্ড আর্নিং প্রকল্পের প্রশিক্ষনার্থীদেরকে পুরস্কৃত করা ছাড়াও সারাদেশে শেখ রাসেল ল্যাব কর্তৃপক্ষের মধ্যে এক হাজার ৩০০ ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আইসিটি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিকল্পনা অনুযায়ী ডিজিটাল দক্ষতা অর্জন করতে হবে। আগামী দুই বছরের মধ্যে প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করা হবে।
তিনি বলেন, লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং প্রকল্প শিক্ষিত বেকারদের জন্য বেকারত্ব দূরীকরণে অনন্য ভূমিকা রাখছে। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার পাঠপুস্তকে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়টি বাধ্যতামূলক করাতে প্রযুক্তিগতভাবে বাংলাদেশ আরও একধাপ এগিয়ে গেছে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, দেশের জনসংখ্যার প্রায় ৮০ শতাংশের বয়স ৪০ বছরের নিচে। এ জনসংখ্যাকে প্রযুক্তির সঙ্গে খাপখাইয়ে মানবসম্পদে পরিণত করতে হবে। তথ্যপ্রযুক্তির অগ্রগতির সঙ্গে বিশ্বে টিকে থাকতে বর্তমান সরকার ‘রূপরেখা-২১’ হাতে নিয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় মেগা প্রকল্প বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট, পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রযুক্তির উন্নয়নে ২০১৯ সালের মধ্যে সাড়ে চার হাজার ইউনিয়নকে ইন্টারনেট ব্রডব্যান্ডের আওতায় আনা হবে বলেও তিনি জানান। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ফ্রিল্যান্সিংয়ে বাংলাদেশ বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে।
তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যামসুন্দর শিকদার, আইসিটি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ কে এম খাইরুল আলম প্রমুখ।
দেশ সেরা ফ্রিল্যান্সার শাওন খান, চাঁদপুরে এ প্রকল্পের সফল বাস্তবায়নের জন্য চাঁদপুর জেলার সাবেক এডিসি বর্তমান আইসিটি ডিভিশনের গেমস এন্ড অ্যাপস ডেভেলপমেন্টের প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুল হাইয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সেই সাথে তার ফ্রিল্যান্সার হিসেবে আজকের সফলতার জন্য এ প্রকল্পের চাঁদপুর জেলার সমন্বয়ক এবং চাঁদপুরের ফ্রিল্যান্সার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জাহাদুল ইসলামের সহযোগিতাকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ