Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

বিএনপির মনোনয়ন চান তিন হেভিওয়েট প্রার্থী

সিলেট-১ আসন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

জনশ্রুতি রয়েছে সিলেট-১ আসনে যে দলের প্রার্থী নির্বাচিত হন, সেই দলই জাতীয় সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে। সরকারও গঠন করে সেই দল। এজন্য এই নির্বাচনী আসনে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে থাকে রাজনৈতিক দলগুলো। বিগত বিএনপি সরকারগুলোর সফল অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমান সিলেট-১ আসনে দল থেকে মনোনয়ন পেতেন। তিনি ওই আসন থেকে দুইবার নির্বাচিতও হন। সাইফুর রহমানের পর বর্তমান সরকারের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত সিলেট-১ আসন থেকে নির্বাচন করে আসছেন।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এবার এই আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী হতে দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন চারজন। এর মধ্যে তিনজনই বিএনপির হেভিওয়েট নেতা। তারা হলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এনাম আহমেদ চৌধুরী, প্রফেসর ডা: শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, খন্দকার আবদুল মোক্তাদির, রেজাউল হাসান কয়েস লোদী। সাইফুর রহমানের মৃত্যুর পর সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ এই আসনে বিএনপির দলীয় প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয় নেতাকর্মীরা। যদিও এখনো দলের পক্ষ থেকে কাউকেই চূড়ান্ত মনোনয়ন দেয়া হয়নি। সারাদেশের মতো এই আসনেও আগ্রহী প্রার্থীদের সাক্ষাতকার গ্রহণের মাধ্যমে চূড়ান্ত প্রার্থীতা ঘোষণা করবে দলটি। আজ গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে মনোনয়ন বোর্ড ও দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মুখোমুখী হতে হবে প্রার্থীদের। বোর্ডে সাক্ষাতকারের নিজেদের প্রার্থী হওয়ার পক্ষে যৌক্তিকতা তুলে ধরতে হবে প্রত্যেককে।
মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে সাবেক সচিব ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এনাম আহমেদ চৌধুরী ওই অঞ্চলের বড় নেতা। তার সাথে আছেন সিলেট মহানগর বিএনপির পরপর দুই বারের সাবেক আহ্বায়ক ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী।কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ও সিলেট জেলা সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন ড্যাবের। তৃণমূল নেতাকর্মীদের অন্যতম পছন্দের প্রার্থী তিনি। ভদ্র, সজ্জন ও পরিচ্ছন্ন কর্মী বান্ধব নেতা হিসেবে ইতোমধ্যেই নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এছাড়া এখন পর্যন্ত ডা. শাহরিয়ারই একমাত্র নেতা যিনি সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের নির্বাচিত ভিপিও ছিলেন। ডা. শাহরিয়ার হোসেন ছাড়াও সিলেট-১ আসনে মনোনয়নের দৌড়ে প্রতিযোগিতা করছেন খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির। মুক্তাদিরের বাবা খন্দকার আব্দুল মালিক পরপর দুইবার এই আসনে বিএনপি দলীয় নির্বাচিত এমপি ছিলেন।
সিলেট-১আসনে নির্বাচনের বিষয়ে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা.শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, আমাকে যদি দল প্রার্থী হিসেবে মূল্যায়ণ করে তাহলে আমি অবশ্যই নির্বাচন করব। সেক্ষেত্রে সিলেট-১ আসনের বিএনপির সকল নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধ হয়েই আগামী নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের বিজয়ে কাজ করে যাবে। তিনি জানান, নির্বাচনে বিজয়ী হলে আমার এলাকার গ্রাম ও শহরের সুযোগ-সবিধায় যে পার্থক্য রয়েছে তা মুছে ফেলা আমার অন্যতম অগ্রাধিকার হবে।#



 

Show all comments
  • ferdous ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:১১ এএম says : 1
    Good
    Total Reply(0) Reply
  • Noor Alam ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ২:০৬ এএম says : 1
    আসুন সকল ভেদাভেদ ভুলে এক জনকে সাফট করি
    Total Reply(0) Reply
  • khabir uddin ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ২:৪৪ এএম says : 1
    এদের মধ্যে যে শক্তি প্রদর্শন করতে পারবে তাকে নমিনেশন দেয়া হোক। এবার ভোট হবে শক্তির খেলা।
    Total Reply(0) Reply
  • Monir ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ২:৪৫ এএম says : 1
    খুবই গুরুত্বপূর্ণ আসন। আশা করি এবার বিএনপি জিতবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Rifat ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ১১:১৪ এএম says : 0
    আসলে আমার জন্মভূমি সবসময় পরিচ্ছন্ন সু চরিত্রের মানুষদের রাজনীতিতে জায়গা দেয়। উপরে উল্লেখিত চার জন ই খুবই ভদ্র ও সজ্জন ব্যাক্তি। বিএনপি বা আওয়ামীলীগ কোন নেতাই আমাদের অভদ্র নয়। কিন্তু নিরাশার বানী হচ্ছে ভবিষ্যতে কি হয় জানিনা। বর্তমান ফ্যাসিবাদি শাসন দ্বারা রাজনিতির জন্য ভাল মানুষ পাওয়া খুবই কষ্টকর।
    Total Reply(0) Reply
  • Khan ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ৪:৩৮ এএম says : 0
    সবাই ভাল দল
    Total Reply(0) Reply
  • Mashuk Ahmed ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ৫:২৮ এএম says : 0
    সিলেট ১ আসনে খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির সাহেবের বিকল্প কেউ নেই। একমাত্র তিনিই ৭/৮ বছর ধরে বিএনপির দূর দিনে মহানগরী ও সদর উপজেলার নেতাকর্মীদের জেলজুলুম মামলা সবকিছু। প্রার্থী হওয়া যায় কিন্ত নেতাকর্মীদের কখনো ৯/১০ বছরে খুজ নিয়েছেন?
    Total Reply(0) Reply
  • Mashuk Ahmed ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ৫:৩১ এএম says : 0
    সিলেট ১ আসনে খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির সাহেবের বিকল্প নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • রুম্মান রশীদ ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ১:০১ পিএম says : 0
    এখানে ডাঃ শাহরিয়ার’ই বেষ্ট চয়েজ হবে। উনার রয়েছে ছাত্র রাজনীতি থেকে বিএনপির রাজনীতির এক সাফল্য মন্ডিত লম্বা ক্যারিয়ার। ব্যাক্তি ইমেজে সিলেটের সকল শ্রেণী, পেশা ও সোসাইটির মানুষের কাছে উনি শ্রদ্ধার পাত্র এবং সত্যিকারের একজন হেভি ওয়েট পার্থী। পাশ নিশ্চিত।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohius sunna ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ২:৩৪ পিএম says : 0
    দীর্ঘ ৩৮ বছর ধরে দলকে সাংগঠনিক ভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া, বার বার কারা নির্যাতিত, সর্বজন শ্রদ্ধেয় ও দল মত নির্বিশেষে সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য ,হাজারো মানুষ গড়ার কারিগর, বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব, হাই প্রোফাইল অধ্যাপক ডাঃ শাহরিয়ারকে ছাড়া বিএনপি এ আসন ফিরে পাওয়া সম্ভব না কারন এ আসনে আবুল মাল আবদুল মুহিতকে টক্কর দেওয়ার যোগ্যতা দল মত নির্বিশেষে শুধু উনারই আছে।
    Total Reply(0) Reply
  • আব্দুস সামাদ লস্কর মুনিম ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ৩:১০ পিএম says : 0
    তিনজন হেভিওয়েট না একজন ১/১১ দালাল, একজন ২৪ অক্টোবর সমজতা করে আইসিইউতে গেলেন।আর এর বিপরীতে সিলেট বিএনপিকে শক্তিশালী করতে এম ইলিয়াসআলী অপুরন গুটাতে ৭-৮ বছর সিলেটের প্রতিটি রাস্তায় অলিতে গলিতে সাধারণ মানুষের পাশে ছিলেন কারানির্যাতিত জননেতা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির।
    Total Reply(0) Reply
  • MohammadDelwar hossain ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ৯:৫৬ পিএম says : 0
    আমার মতে আমাদের প্রান প্রিয় নেতা জনাব তারেক রহমান ও বাঃলাদেশের আগামী দিনের কারিগর সিলেটের জাকে দিবে তাকে আমরা সাগতম জানাই
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ