Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৩ পৌষ ১৪২৫, ৯ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

আজ পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)

মো. আবদুর রহিম | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

শুকরিয়া মহিমাময় আল্লাহ তাআলার দরবারে। যিনি আমাদের দান করেছেন অসংখ্য নেয়ামতরাজি। প্রধান নেয়ামত হিসেবে রাসূল সা. কে সৃষ্টি করে ধন্য করেছেন সমস্ত সৃষ্টি জগতকে। রাসূল সা. সম্পর্কে আল্লাহ তাআলা বলেন,‘আপনাকে সৃষ্টি না করলে কোনো কিছুই সৃষ্টি করতাম না।
আমি আপনাকে সমগ্র সৃষ্টির জন্য রহমতস্বরূপ পাঠিয়েছি। হে মাহবুব আপনি বলুন আল্লাহর রহমত ও করুণা প্রাপ্তির কারণে বান্দারা যেন খুশি উদযাপন করে। এটা তাদের সকল সঞ্চিত ইবাদত হতে উত্তম (আল হাদিস)। সকল সৃষ্টির মূল আমাদের সর্বশেষ নবী রাসূলুল্লাহ সা. এর পৃথিবীতে আগমনের দিন, ১২ রবিউল আউয়াল। পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) আজ। ঈদে মিলাদুন্নবী আরবি তিনটি শব্দের সম্মিলিত রূপ। ঈদ, মিলাদ ও নবী এই তিনটি শব্দ নিয়ে গঠিত। আভিধানিক অর্থে ঈদ অর্থ খুশি, মিলাদ অর্থ জন্ম, নবী অর্থ বার্তাবাহক। পারিভাষিক অর্থে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জন্মের আনন্দকে ঈদে মিলাদুন্নবী বলা হয়। অন্য কথায়, ঈদে মিলাদুন্নবী হলো, রাহমাতুল্লিল আলামিন হজরত মুহাম্মদ মুস্তফা (সা.) এর পবিত্র ‘বেলাদত শরিফ’ (জন্মদিন) উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করা। হাদিস শরিফে মহানবী (সা.) এর জন্মকাল সম্পর্কে জানা যায়, হজরত আবু কাতাদা আল আনসারি (রা.) বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা.) কে সোমবার দিন রোজা রাখা সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, ‘এ দিনে আমি জন্মগ্রহণ করেছি এবং এ দিনেই আমি নবুয়ত পেয়েছি।’ (মুসলিম)। এর দ্বারা ঈদে মিলাদুন্নবী পালনের গুরুত্ব প্রমাণিত হয়।
এ মুবারক মাসের ১২ তারিখ উম্মাহর জন্য শ্রেষ্ঠতম দিন। কারণ, এ মুবারক দিনটি যদি আল্লাহ পাকের হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের শুভাগমনের অন্তর্ভুক্ত না হতো তাহলে শবে ক্বদর, শবে বরাত, ঈদুল ফিতর, ঈদুল আযহা, জুমা ইত্যাদি ফযীলতপূর্ণ কোন দিন-রাতেরই আগমন ঘটতো না। শুধু তাই নয়, কুরআন শরীফ নাযিল হতো না, দ্বীন ইসলাম আসতো না এবং কোন মমিন-মুসলমানের অস্তিত্বও থাকতো না।
ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। এসব বাণীতে তারা দেশবাসীসহ মুসলিম উম্মাহর সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান। একই সঙ্গে তাঁরা মহানবী (সা.)-এর জীবনাদর্শ (সুন্নাহ) অনুসরণ করে ভ্রাতৃত্ববোধ ও মানবকল্যাণে ব্রতী হওয়ার আহ্বান জানান।
কর্মসূচি : ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে আলোচনা মাহফিল বিশেষ কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। আঞ্জুমানে রাহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীর ব্যবস্থাপনায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যান থেকে আজ সকাল ১০টায় জশনে জুলুশ বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করবে।
রাজারবাগ দরবার শরীফের উদ্যোগে সারাদেশে কোটিকন্ঠে মিলাদ পাঠ করা হবে। কর্মসূচির অংশ হিসেবে দরবার শরীফের উদ্যোগে রাজধানীর সকল এলাকায় সজ্জিত গাড়িবহরের জশনে জুলুস বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করবে। তাছাড়া ট্রাক থেকে তাবারুক বিতরণ করা হবে।
জৌনপুরী দরবার আব্বাসী মঞ্জিল : জৌনপুরী দরবারের উদ্যোগে আজ দিবগত রাতে বার্ষিক ইসলামী সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্য রাখবেন ড. এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী পীর সাহেব জৌনপুরী।
দাওয়াতে ইসলামীর উদ্যোগে রাজধানীসহ বিভিন্ন এলাকায় জশনে জুলুস বের হবে। রাজধানীতে একটি জুলুস বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করবে।



 

Show all comments
  • Ameen Munshi ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ১:৩৬ এএম says : 2
    মুসলমানদের ঈদ কেবলই দুটি। ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা।
    Total Reply(1) Reply
    • saif ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ৯:৪৯ এএম says : 0
      যেখানে সম্পুর্ন বর্ননা দিয়ে দেয়া হয়েছে সেখানে আবার এই কথা, যদি কেবল একই ইদ হয়, তবে জুমায় সম্পর্কে ভালো করে জেনে নিন, জুমার দিন কি, মুসলমানের জন্যে জুমায় ও ইদের দিন।
  • কবির ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ১:৩৯ এএম says : 0
    সকলকে ঈদে মিলাদুননবীর শুভেচ্ছা। হে আল্লাহ আমাদেরকে তোমার প্রিয় হাবিবের পথে চলার তৌফিক দাও।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Mosharraf ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ১:৪৪ এএম says : 0
    গোটা বিশ্ববাসীর জন্য রাসুল স: এর আগমন অত্যন্ত আনন্দের। সর্বকালের শ্রেষ্ঠ নবী ও মহামানব মোহাম্মাদ স; এর রেখে যাওয়া পথের অনুসরণ করলেই কেবল বিশ্ব শান্তি ফিরবে।
    Total Reply(0) Reply
  • বাকী বিল্লাহ ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ১:৪৮ এএম says : 0
    লাকদ কানা লাকুম ফি রাসুলিল্লাহি উসওয়াতুন হাসানাহ। নিশ্চয় তোমাদের জন্য রাসুল স. এর জীবনে রয়েছে উত্তম আদর্শ। আল কুরআন
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Mosharraf ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ১:৫০ এএম says : 0
    বিশ্ব নবীর জন্ম দিনে মুসলিমরা চল িঐক্যপানে। কেটে যাক সংকট, ফিরে আসুক শান্তি।
    Total Reply(0) Reply
  • সাইফ ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ৯:৫২ এএম says : 0
    সবাইকে ঈদে মিলাদুন্নবি (সাঃ) এর শুভেচ্ছা, আল্লাহ্‌ তায়ালা, এই মহান বরকত ময় মসের উসিলায়, যেভাবে আমাদেরকে চির জাহান্নামি হওয়া থেকে রক্ষা করেছেন, এই মহান মাসের উসিলায় আমাদের দেশ ও জাতিকে হিফাজত করুন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর