Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৩ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

| প্রকাশের সময় : ২৩ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৫ এএম

প্রশ্ন: জানাজার নামাজের বিস্তারিত নিয়ম কি?
উত্তর: মৃত ব্যক্তিকে সামনে রেখে তার বুক বরাবর কিবলামুখী হয়ে দাঁড়িয়ে ইমাম এই নিয়ত করবেন, আমি আল্লাহর ওয়াস্তে কাবা শরীফের দিকে মুখ করে এই ফরজ নামাজটি আদায়ের নিয়ত করছি। আর মুকতাদীরা নিয়তসহ ইমামের পিছনে ইক্তিদা করবে। ইমাম জোর আওয়াজে তাকবীর দিবেন। এরপর এই সানা পড়বেন: ‘সুবহানাকা আল্লাহুম্মা ওয়া বিহামদিকা, ওয়া তাবারাকাসমুকা, ওয়া তাআলা জাদ্দুকা ওয়া লা ইলাহা গাইরুকা।’ এরপর হাত না উঠিয়ে তাকবীর পড়বেন। তাকবীরের পর দরুদ শরীফ পড়তে হবে যা নামাজের মধ্যে পড়া হয়। এরপর তাকবীর উচ্চারণ করে এই দোয়া পড়তে হবে: ‘আল্লাহুম্মাগফিরলি হাইয়্যিনা ওয়া মাইয়্যিতিনা ওয়া শাহিদিনা ওয়া গায়িবিনা ওয়া সগিরিনা ওয়া কাবিরিনা ওয়া জাকারিনা ওয়া উংছানা। আল্লাহুম্মা মান আহ্ইয়াইতাহু মিন্না ফাআহ্য়িহি আ’লাল ইসলাম। ওয়া মাং তাওয়াফ্ফাইতাহু মিন্না ফাতাওয়াফ্ফাহু আ’লাল ঈমান। ওয়া বিরাহমিতাকা ইয়া আরহামার রাহিমীন।’ দোয়া শেষ হওয়ার পর চতুর্থ তাকবীর দিয়ে সালাম ফিরাতে হবে। ইমাম উচ্চস্বরে তাকবীর দিবেন আর মুক্তাদিগণ তাকবীর পড়বে নীচু স্বরে।
প্রশ্ন: জানাজার নামাজে ইমাম এক তাকবীর পড়ে ফেলার পর এক লোক জামাতে শামিল হয়েছে। এমতাবস্থায় সে কিভাবে নামাজটি আদায় করবে?
উত্তর: এই লোক যদি এরকম হয় যে, সে পূর্ব থেকেই উপস্থিত ছিল। কিন্তু অন্য কোনো কারণে তাকবীরে তাহরীমায় শামিল হতে পারেনি তাহলে ২য় তাকবীরের জন্য অপেক্ষা না করে তৎক্ষণাত জামাতে শামিল হয়ে যাবে। আর যদি ওই লোক পরে উপস্থিত হয়ে থাকে তাহলে তাকে ২য় তাকবীরের জন্যে অপেক্ষা করতে হবে। যখন ইমাম ২য় তাকবীর উচ্চারণ করবেন তখন সেও তাকবীর দিয়ে জামাতে শামিল হবে। নামাজ শেষ হওয়ার পর সে মাসবুকের মত তার ছুটে যাওয়া তাকবীর আদায় করে ফেলবে। -মুফতী ওয়ালীয়ুর রহমান খান



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর