Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ২১ জুলাই ২০১৯, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৭ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

পিতা না পুত্র

রফিকুল ইসলাম সেলিম : | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

চট্টগ্রামের ১৬টি আসনে মনোনয়ন দৌড়ে পিতার সাথে সামিল পুত্র-কন্যারাও। একই আসনে পিতা-পুত্র এবং পিতা-কন্যাও মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। আবার পিতা ধানের শীষের আর পুত্র নৌকার মনোনয়ন পেতে লড়াইয়ে নেমেছেন। মনোনয়নের লড়াইয়ে আছেন চাচা-ভাতিজিও। বেশ কয়েকটি আসনে মরহুম নেতাদের পুত্র-কন্যারা মনোনয়ন পেতে জোর তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন দাদার আসনে নাতিরাও। জাতীয় নির্বাচনে বিভিন্ন সংসদীয় আসনে নতুন প্রজন্মের এসব সম্ভাব্য প্রার্থীদের ঘিরে ব্যাপক প্রাণচাঞ্চল্য দেখা যাচ্ছে। বিশেষ করে তরুণ ভোটাররা এসব প্রার্থীদের নিয়ে দারুণ উজ্জীবিত। পিতা না পুত্র না কন্যা শেষ পর্যন্ত মনোনয়ন কে পান এ নিয়েও চলছে নানা আলোচনা-বিশ্লেষণ। ঋণখেলাপী বা অন্য কোনো কারণে নিজের মনোনয়ন বাতিল হলে যাতে ছেলেরটা টিকে থাকে সে উদ্দেশ্য আছে কারও কারও। আবার অনেক নেতা আগামী দিনের প্রার্থী তৈরির প্রস্তুতি হিসেবেও সন্তানদের মাঠে নামিয়েছেন। আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির ভিআইপি নেতাদের পুত্রদের ভোটের মাঠে নামিয়ে দেয়ার ঘটনায় বড় দুই দলেই চলছে নানামুখী আলোচনা-সমালোচনা।
চট্টগ্রাম-১ (মিরসরাই) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন ও তার ছেলে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান রুহেল। একই আসনে বড়তাকিয়া গ্রæপের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মনিরুল ইসলাম ইউসুফ ধানের শীষ প্রতীক পেতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আর তার পুত্র তরুণ ব্যবসায়ী নিয়াজ মোর্শেদ এলিট নৌকা প্রতীকে লড়তে দলের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।
চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা পেতে চান সাবেক এমপি মরহুম রফিকুল আনোয়ারের মেয়ে খাদিজাতুল আনোয়ার সনি ও তার চাচা ফখরুল আনোয়ার। একই আসনে বিএনপির মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী। এ আসনে তার ভাই মরহুম সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর স্ত্রী ফারহাত কাদের চৌধুরী মনোনয়ন পেতে পারেন বলেও শোনা যাচ্ছে।
চট্টগ্রাম-৩ (স›দ্বীপ) আসনে মাহফুজুর রহমান মিতা এবারও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনি ওই আসনের সাবেক এমপি মরহুম মুস্তাফিজুর রহমানের পুত্র। চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুন্ড) আসনে আবারও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান এমপি দিদারুল আলম। তার চাচা সাবেক সিটি মেয়র এম মনজুর আলমও নৌকা পেতে মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন। একইসাথে তিনি চট্টগ্রাম-১০ (ডবলমুরিং-পাহাড়তলী) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন।
চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী) আসনে বিএনপির মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন ও তার ছেলে কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মীর হেলাল উদ্দীন। একই আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী ওই এলাকার সাবেক এমপি ও সাবেক বিরোধী দলীয় হুইপ মরহুম সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের কন্যা ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা। চট্টগ্রাম-৬ (রাউজান) আসনে বিএনপির মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা গোলাম আকবর খন্দকার ও তার ছেলে তারেক আকবর খন্দকার। একই আসনে বিএনপির মনোনয়ন চান ওই আসনের সাবেক এমপি গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীর পুত্র সামির কাদের চৌধুরী। সামির কাদেরের দাদা তৎকালীন পাকিস্তানের ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট ও স্পিকার ফজলুল কাদের চৌধুরী এ আসন থেকে একাধিকবার নির্বাচিত হন। চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গুনিয়া) আসনে বিএনপির মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পুত্র কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য হুম্মাম কাদের চৌধুরী ও তার চাচা কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী। এ আসনে একাধিকবার নির্বাচিত হয়েছিলেন সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী।
চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-চান্দগাঁও) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন সাবেক মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি ও তার ছেলে মজিবুর রহমান। একই আসনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এম মোর্শেদ খান ও তার কন্যা মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন। চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালি-বাকলিয়া) আসনে ধানের শীষে লড়তে বিএনপি থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন শামসুল আলম ও তার ছেলে শোয়াইব রিয়াদ। নুরুল ইসলাম বিএসসি ও তার ছেলে মজিবুর রহমানও এই আসন থেকে নৌকার মাঝি হতে ফরম নিয়েছেন। এছাড়া এই আসনে দলীয় মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সাবেক সিটি মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর বড় ছেলে ও দলের বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।
চট্টগ্রাম-১০ (ডবলমুরিং-পাহাড়তলী) আসনে বিএনপি নেতা মরহুম দস্তগীর চৌধুরীর পুত্র ব্যারিস্টার ফয়সল দস্তগীর চৌধুরী দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সহচর মরহুম জহুর আহমদ চৌধুরীর পুত্র হেলাল উদ্দীন চৌধুরী তুফান। তার অপর ভাই জসিম উদ্দীন চৌধুরী চট্টগ্রাম-৯ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। মরহুম আওয়ামী লীগ নেতা কাজী এনামুল হক দানুর পুত্র কাজী রাজ ইমরানও মনোনয়নের লড়াইয়ে আছেন। চট্টগ্রাম-১১ (বন্দর-পতেঙ্গা) আসনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর সাথে তার পুত্র ইসরাফিল খসরুও মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।
চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া) সংসদীয় আসনে বাবা শামসুল হক চৌধুরী এমপি ও ছেলে নাজমুল হক চৌধুরী শারুন আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপত্র কিনেছেন। চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা) আসনের এমপি ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এবারও দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনি আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরীর পুত্র। একই আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী সংরক্ষিত আসনের এমপি ওয়াসিকা আয়েশা খান। তার বাবা মরহুম আতাউর রহমান খান কায়সারও ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য। চট্টগ্রাম-১৫ (সাতকানিয়া-লোহাগাড়া) আসনে দক্ষিণ জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আবদুল গাফফার চৌধুরী ও তার ছেলে ব্যারিস্টার ওসমান চৌধুরী দলীয় মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন। চট্টগ্রাম-১৬ (বাশখালী) আসনে আবদুল্লাহ কবির লিটন নৌকা প্রতীক চান। তিনি মরহুম আখতারজ্জামান চৌধুরীর ভাগিনা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ