Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

আপনাদের জিজ্ঞাসার জবাব

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

প্রশ্ন ঃ ইমাম আবু হানিফার জীবনীর ওপর সংক্ষেপে আলোচনা করুন?
উত্তরঃ ইমাম আজম আবু হানিফা ইরাকের কুফায় ৫ সেপ্টেম্বর ৬৯৯ ইংরেজী মোতাবেক ৮০ হিজরীতে জন্ম গ্রহণ করেন। ইমাম আবু হানিফা (রহ.) -এর আসল নাম নুমান ইবনে সাবেত ইবনে যূতি। আবু হানিফা তার ডাকনাম। পরবর্তী যুগে তিনি ইমাম আবু হানিফা নামেই প্রসিদ্ধি লাভ করেছেন। বিশ্ববাসী তাকে আবু হানিফা নামেই বেশী চেনে। শৈশবে তিনি পবিত্র কোরআন হেফজ করার মাধ্যমে তার শিক্ষাজীবন শুরু করেন। পরবর্তীতে ইলমে হাদীস, ইলমে ফিকহ, ইলমে শরীয়ত ও তরিকতের বিভিন্ন স্তরে তিনি বুৎপত্তি লাভ করেন।
ইমাম আবু হানিফা (রহ.) এর বংশ পরিচয় সম্পর্কে যা জানা যায় তা হল, ইমাম আবু হানিফার (রহ.) দাদা যুতি ছিলেন ফারিসের অধিবাসী । ৩৬ হিজরিতে তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেন এবং স্ত্রীকে নিয়ে হিজরত করে মক্কা শরীফ চলে আসেন। কুফায় পৌঁছে তিনি হযরত হজরত আলীর (রা.) সান্নিধ্য লাভ করেন এবং সেখানেই স্থায়ী ভাবে বসবাসের সিদ্ধান্ত নেন । এরপর তিনি কাপড়ের ব্যবসা দ্বারা জীবিকা নির্বাহের ব্যাবস্থা করেন। একবার নওরোজের সময় তিনি কিছু ফালুদা হজরত আলীকে (রা.) উপহার দিলে তিনি তাঁকে জিজ্ঞেস করেন, এগুলো কী? তিনি বলেন, নওরোজের ফালুদা। ৪০ হিজরিতে যুতির এক পুত্র জন্মগ্রহন করেন। নাম রাখেন সাবিত । বরকতের জন্য তাঁকে হজরত আলীর (রা.) কাছে নিয়ে এলে- তিনি শিশুর মাথায় হাত বুলিয়ে দোয়া করেন। সাবিতের ৪০ বছর বয়সে ৮০ হিজরিতে তাঁর ঘরে এক পুত্র সন্তান জন্ম গ্রহণ করে। বাবা-মা আদর করে নাম রাখেন নুমান। ইনিই বিশ্ববিখ্যাত ইমাম আবু হানিফা (রহ.)।
তিনি বেশ কয়েকজন সাহাবির সাক্ষাতলাভে ধন্য হন। আল্লামা বদরুদ্দিন আইনি (রহ.) বলেন, ‘ইমাম আবু হানিফা (রহ.) নিঃসন্দেহে তাবিয়ী ছিলেন। তিনি হযরত আনাস ইবনে মালিককে দেখেছেন। এ ছাড়াও ইমাম আবু হানিফা (রহ.) জাবির ইবনে আবদুল্লাহ (রা.), আবদুল্লাহ ইবনে উনাইস (রা.), ওয়াসিলা ইবনে আসকা(রা.), আবুল হারিসা (রা.)সহ বেশ কয়েকজন সাহাবির সাক্ষাত লাভ করেন।
তিনি ছিলেন একজন প্রসিদ্ধ কাপড় ব্যবসায়ী। ইমাম আবু হানিফার পৈত্রিক পেশা ছিল কাপড়ের ব্যবসা। ১৬ বছর বয়সে তিনি পিতৃহারা হন। তাঁর পিতা ছিলেন একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী । তাঁর ইন্তেকালের পর এই ব্যাবসার দায়িত্ব নিতে হয় যুবক ইমাম আবু হানিফাকে।

উত্তর দিচ্ছেন ঃ মুফতি মাওলানা এহছানুল হক মুজাদ্দেদী



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।