Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯, ০৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিল

অভ্যন্তরীণ ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গত ২৮ নভেম্বর (বুধবার) ছিল মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন। এ দিন লক্ষীপুরে চারটি আসনে ২০ দলীয় জোট ও মহাজোটের প্রার্থীসহ ৩১ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়। মুন্সীগঞ্জে তিনটি আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন-৩৬ জন। রাজবাড়ীর ২টি আসনে ১৮ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল। যশোর-২ আসনে ১১টি মনোনয়নপত্র দাখিল। জামালপুর-২ আসনে সাতজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। পঞ্চগড়-১ আসনে ৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। নীলফামারীতে তিন জামায়াত নেতার মনোনয়নপত্র দাখিল। ময়মনসিংহ-১০ আসনে আ.লীগ এক, বিএনপি-২ ও অন্যান্য তিনজন মনোনয়নপত্র জমা দেন। দাউদকান্দিতে বাবা-ছেলের মনোনয়নপত্র দাখিল। বরিশাল-২ আসনে আ.লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহে আলম মনোনয়নপত্র জমা দেন। দিনাজপুর-৫ আসনে আ.লীগ-বিএনপিসহ সাতজনের মনোনয়নপত্র দাখিল। পিরোজপুর-৩ আসনে ১৩ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল। কালকিনিতে আ.লীগের প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল। গাইবান্ধা-১ আসনে ১৩ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল। এ বিষয়ে আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদন-

লক্ষীপুর থেকে মো. কাউসার জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লক্ষীপুরে চারটি আসনে বিএনপি-আ.লীগ, জাসদ, জাতীয় পার্টি, জামায়াত ও স্বতন্ত্রসহ বিভিন্ন দলের প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়েছে। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন গত বুধবার সকাল থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক কার্যালয় এবং সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে এসব মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়। ল²ীপুর-১ রামগঞ্জ আসনে মহাজোট থেকে আনোয়ার হোসেন খাঁন, ২০দলীয় জোট থেকে শাহাদাত হোসেন সেলিম, বিএনপির হারুনুর রশিদ, ইসলামিক ডেমোক্র্যাটিক অ্যালায়েন্স জোটের (জাকের পার্টি) লায়েন এম এ আউয়ালসহ আটজন।

লক্ষীপুর-২ রায়পুর আসন থেকে ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী আবুল খায়ের ভুইয়া, হারুনুর রশিদ ভিপি হারুন, মহাজোট ও জাতীয় পার্টি থেকে এম এ নোমান ও স্বতন্ত্র শহিদুল ইসলাম পাপুল এবং জামায়াতের আমীর মাস্টার রুহুল আমিনসহ সাতজন। লক্ষীপুর-৩ সদর আসন থেকে ২০ দলীয় জোট থেকে শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সাহাবুদ্দিন সাবু, আ.লীগ থেকে এ কে এম শাহজাহান কামাল, গোলাম ফারুক পিংকু, এম এ সাত্তারসহ (স্বতন্ত্র) ১১ জন। লক্ষীপুর-৪ রামগতি-কমলনগর আসন থেকে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডির সভাপতি ও ঐক্যফ্রন্ট নেতা আ স ম আবদুর রহমান, আ.লীগ থেকে মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, বিকল্প ধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান। এ ছাড়া প্রতিটি আসনে ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন বাংলাদেশ, জাতীয় পার্টি, জাসদের প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ চার আসনে ৩১ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।
মুন্সীগঞ্জ থেকে মঞ্জুর মোর্শেদ জানান, মুন্সীগঞ্জের তিনটি আসনে মোট ৩৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। প্রায় সবকটি আসনে আ.লীগ, বিএনপি জাতীয় পার্টি এ তিনটি প্রধান দলের একাধিক প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। মনোনয়নপত্র দাখিলকারীদের মধ্যে রয়েছেন মুন্সীগঞ্জ-১ (শ্রীনগর-সিরাজদিখান) যুক্তফ্রন্টের পক্ষে মাহী বি. চৌধুরী, আ.লীগ নেতা, নুরুল আলম চৌধুরী, ঐক্যফ্রন্টের পক্ষে শাহমোয়াজ্জেম হোসেন, মমিন আলী, শরাফত আলী সপু, জাতীয় পার্টির পক্ষে অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, মুন্সীগঞ্জ-২ (টঙ্গীবাড়ি-লৌহজং) আ.লীগের সেগুফতা ইয়াছমিন, বিএনপির মিজানুর রহমান সিনহা, আ: সালাম আজাদ, মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনে আ.লীগের পক্ষে অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, জেলা আ.লীগের পুত্র বধূ ও পৌর মেয়র পত্নী, চৌধুরী ফারিয়া আফরিন, বিএনপির আ. হাই, জাতীয় পার্টির আ. বাতেন, ও মো. রাজু সংগৃহিত মনোনয়নপত্র জমা দেন। প্রসঙ্গত: মহাজোটের শরিক বিকল্পধারা নেতা মাহী বি, চৌধুরীর মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় আ.লীগের কোনো নেতা না দেখা যাওয়ায় জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

রাজবাড়ী জেলা সংবাদদাতা জানান, রাজবাড়ী সদর ও গোয়ালন্দ উপজেলা নিয়ে রাজবাড়ী-১ আসন। এখানে আ.লীগের প্রার্থী শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী এমপি মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিএনপির থেকে জেলা বিএনপির সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম এবং সহ-সভাপতি মোঃ আসলাম মিয়া মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়া জাতীয় পার্টির প্রার্থীর হিসেবে আক্তারুজ্জামান হাসান, ইসলামী আন্দোলনের জাহাঙ্গীর আলম খান, ন্যাশনাল পিপলশ পার্টি (এনপিপি) সভাপতি নাজমুল হক খান ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের জুয়েল রানা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

অপরদিকে রাজবাড়ী-২ আসন থেকে আ.লীগের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের এমপি মোঃ জিল্লুল হাকিম। এই আসনে বিএনপির প্রার্থী তিনজন। দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নাসিরুল হক সাবু, জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক হারুন অর রশিদ ও জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আবদুর রাজ্জাক। অন্যান্য প্রার্থীদের মধ্যে জাতীয় পার্টির এ বি এম নুরুল ইসলাম, সাংস্কৃতিক মুক্তি জোটের নাজমুল হাসান, গণফোরামের ইমামুজ্জামান চৌধুরী, ইসলামী আন্দোলনের নুর মোহাম্মদ এবং জাসদের (রব) খন্দকার ছদরুল আমীন, জাসদ (ইনু) সুশান্ত কুমার বিশ্বাস ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নুর উদ্দিন মিয়া।

চৌগাছা (যশোর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে যশোর-২ (ঝিকরগাছা-চৌগাছা) আসনে জামায়াতে ইসলামী নেতা মুহাদ্দিস আবু সাঈদ মোহাম্মদ শাহাদৎ হুসাইন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। গত বুধবার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারি রির্টানিং কর্মকর্তা মারুফুল আলম।

এছাড়া আ.লীগ মনোননীত প্রার্থী মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যাপক ডাক্তার নাসির উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অ্যাডভোকেট এবিএম আহসানুল হক আহসান (স্বতন্ত্র), বিএনপির অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইসহক, ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাবিরা সুলতানা, বাম গণতান্ত্রিক জোটের প্রার্থী বাসদ নেতা মো. আলাউদ্দিন, ইসলামী ঐক্যজোটের (নেজামী) মুফতি শহিদুল ইসলাম, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (ডা. এম এ মুকিত) বিএম সেলিম রেজা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মুফতি আসাদুজ্জামান, জাকের পার্টির হাজী মহিউদ্দিন আহমেদ এবং গণফোরামের মেজর (অব.) আসাদুজ্জামান।

ইসলামপুর (জামালপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, জামালপুর-২ (ইসলামপুর) আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমপি পদে সাতজন প্রার্থী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, ইসলামপুর উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ফরিদুল হক খান এমপি, উপজেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক মোস্তফা আল মাহমুদ, উপজেলা বিএনপি সভাপতি সাবেক এমপি সুলতান মাহমুদ বাবু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব এ এস এম আব্দুল হালিম, উপজেলা বিএনপির উপদেষ্টা সদস্য মনোয়ার হোসেন (বিএনপি) বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) সাবেক সভাপতি কমরেড মনজুরুল আহসান খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ হাফেজ মোহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এ সময় নিজ নিজ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

তেঁতুলিয়া (পঞ্চগড়) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, পঞ্চগড়-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার নওশাদ জমির, বিএনপির প্রার্থী পৌর মেয়র মো. তৌহিদুল ইসলাম আ.লীগের মনোনিত প্রার্থী জেলা আ.লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. মোজাহারুল হক প্রধান, সতন্ত্র থেকে বর্তমান এমপি নাজমুল হক প্রধান, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি জাগপার আল রাশেদ প্রধান, জাতীয় পার্টির আবু সালেক, এনপিপির প্রার্থী হাবিবুর রহমান, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের মো. আব্দুল্লাহ, জাকের পার্টির সুমন রানা পঞ্চগড় জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিনের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন।
নীলফামারী সংবাদদাতা জানান, নীলফামারীর চারটি সংসদীয় আসনের মধ্যে তিনটিতে ২০ দলীয় জোটের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে তিন জামায়াত নেতা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

নীলফামারী-১ (ডোমার-ডিমলা) আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন জেলা জামায়াতের সেক্রেটারি মাওলানা অধ্যক্ষ আব্দুস ছাত্তার, নীলফামারী-২ (সদর) আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মন্টু ও নীলফামারী-৩ (জলঢাকা) আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য অধ্যক্ষ আজিজুল ইসলাম।
জামায়াত নেতারা দলীয় সমর্থকদের সাথে নিয়ে জেলা ও উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন। এ ছাড়া মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে নীলফামারীর চারটি সংসদীয় আসনে জোট ও মহাজোটসহ বিভিন্ন দলের মোট ৪৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।
গফরগাঁও থেকে মো. আতিকুল্লাহ জানান, ময়মনসিংহ -১০ (গফরগাঁও ) আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিনে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত একজন আ.লীগ, বিএনপি দুইজনসহ মোট ছয়জন গফরগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার কাজী মাহবুব-উর-রহমানের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেনÑ বর্তমান এমপি ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল (আ.লীগ), এ বি সিদ্দিকুর রহমান (বিএনপি), আক্তারুজ্জামান (বিএনপি), মজিবুর রহমান (জাতীয়পার্টি), মো. দ্বীন ইসলাম (গণফ্রন্ট) ও মো. জয়নুল আবেদীন (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ) ।

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা জাননা, কুমিল্লা-১ আসনে (দাউদকান্দি-মেঘনা) বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দল বিএনপি থেকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী চারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও তার ছেলে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মারুফ হোসেন সহকারী রিটার্নিং অফিসার দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহবুব আলমের কাছে গতকাল বুধবার মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা জেলা বিএনপি নেতা শাহজাহান চৌধুরী, পরিবহন নেতা সাইফুল আলম, কুমিল্লা উত্তর জেলা যুবদলের সভাপতি ভিপি সাহবুদ্দিন, দাউদকান্দি পৌর বিএনপির সভাপতি দেলোয়ার মিয়াজী, সহ-সভাপতি নূর মোহাম্মদ সেলিম সরকার, সেক্রেটারি নাঈম সরকার প্রমুখ।

বানাপরীপাড়া (বরিশাল) থেকে এস মিজানুল ইসলাম জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বানারীপাড়া ও উজিরপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত বরিশাল-২ সংসদীয় আসন ১২০ থেকে বাংলাদেশ আ.লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. শাহে আলম তার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাচন অফিসার (অতিরিক্ত) দায়িত্ব মো. জামাল হোসাইনের কাছে তিনি মনোনয়নপত্র জমা দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বর্তমান এমপি ও বরিশাল জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস, আইন বিষয়ক সম্পাদক ও বানারীপাড়া পৌরসভার মেয়র অ্যাড. সুভাষ চন্দ্র শীল, উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক, আ.লীগের সভাপতি গোলাম সালেহ মঞ্জু মোল্লা, সম্পাদক অ্যাড. মাওলাদ হোসেন সানা, ভাইস চেয়ারম্যান শরীফ উদ্দীন আহমেদ কিসলু, পৌর আ.লীগের সভাপতি সুব্রত কুণ্ডু, সম্পাদক শহিদুল ইসলাম প্রমুখ। এ দিকে শাহে আলমকে নৌকার টিকিট দেয়া হয়েছে শুনে মঙ্গলবার রাতে পৌর শহরে সহস্রাধিক নেতাকর্মী তাৎক্ষণিক একটি আনন্দ মিছিল বের করে। দীর্ঘ ২৮ বছর পরে তৃণমূলের চাওয়া পূর্ণতা পাওয়ায় বুধবার সকাল থেকে বিভিন্ন ওয়ার্ড দিয়ে নৌকার স্লোগানে মিছিল আসে। যা মুহূর্তের মধ্যে স্মরণকালের জনসমুদ্রে রূপ নেয়। অপর দিকে, এই আসন থেকে আ.লীগের নেতা একে ফাইয়াজুল হক রাজু বরিশাল জেলা প্রশাসকের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। একই দিন এ আসনে বিএনপি প্রার্থী এস শরফুদ্দীন আহমেদ সান্টু বানারীপাড়া ও উজিরপুরে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিএনপি থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী অপর প্রার্থী সৈয়দ শহিদুল হক জামালের পক্ষে বরিশালে ও উজিরপুরে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন তার অনুসারী নেতা বানারীপাড়া উপজেলা বিএনপির সাবেক সম্পাদক মীর শহিদুল ইাসলাম, গোলাম মাহমুদ মাহাবুব মাস্টার, সহ-সভাপতি এম এ সালেক হাওলাদার ও পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি খলিলুর রহমান চোকদার প্রমুখ।
ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) থেকে মো. আবু শহীদ জানান, দিনাজপুর-৫ আসনে (ফুলবাড়ী-পার্বতীপুর) উৎসবমুখর পরিবেশে আ.লীগ, বিএনপি, জাতীয় পাটি (এরশাদ) ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাতজন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিনে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং রিটার্নিং অফিসার দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কাছে তারা ওই মনোনয়নপত্র জমা দেন।

মনোনয়নপত্র জমাদানকারীরা হলেন- আ.লীগের মনোনীত প্রার্থী প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী ও জেলা আ.লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির মনোনীত প্রার্থী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক সাবেক সংসদ সদস্য এ জেড এম রেজওয়ানুল হক, বিএনপির বিকল্প প্রার্থী জাকারিয়া বাচ্চু, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী ইসলামী আন্দোলন পার্বতীপুর উপজেলা শাখার সভাপতি মাওলানা মতিউর রহমান, জাতীয় পার্টির (এরশাদ) সোলায়মান সামী, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) প্রেসিডিয়াম সদস্য ও পার্বতীপুর উপজেলা শাখার সভাপতি শওকত আলী এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাবেক মন্ত্রী আলহাজ মনসুর আলী সরকার। তারা নিজ নিজ দলিয় নেতাকর্মী-সমর্থকদের সাথে নিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পিরোজপুর-৩ (মঠবাড়িয়া) আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন বুধবার সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ১৩ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। যারা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন, তারা হলেন- বর্তমান সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজি (জাতীয় পার্টি, এরশাদ), সাবেক সংসদ সদস্য ডা. মো. আনোয়ার হোসেন আ, লীগ (স্বতন্ত্র), উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. রুহুল আমীন দুলাল (বিএনপি), কর্নেল (অব.) শাহজাহান মিলন (বিএনপি), মো. আশরাফুর রহমান আ.লীগ (স্বতন্ত্র), ডা. এম নজরুল ইসলাম, আ.লীগ (স্বতন্ত্র), অ্যাডভোকেট দিলীপ কুমার পাইক (বাম গণতান্ত্রিক জোট), মাওলানা মো. সগীর হোসেন (ইশা আন্দোলন), মো. ফিরোজ আলম (ওয়ার্কার্স পার্টি), মোহাম্মদ আবদুল লতীফ সিরাজি (স্বতন্ত্র), মো. রিয়াজ উদ্দিন (স্বতন্ত্র), মো. আবু তারেক (স্বতন্ত্র) ও সুধির রঞ্জন বিশ্বাস (স্বতন্ত্র)।

কালকিনি (মাদারীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, মাদারীপুর-৩ আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আ.লীগের মনোনিত প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় আ.লীগের দপ্তর সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আবদুস সোবহান গোলাপ। সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও ইউএনও মো. আমিনুল ইসলামের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়।

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, গাইবান্ধা-১ সুন্দরগঞ্জ আসনে ১৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন পর্যন্ত সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সোলেমান আলীর কার্যালয়ে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এরা হলেন- জাতীয় পার্টি (এ) ও মহাজোট প্রার্থী বর্তমান এমপি ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলা জামায়াতের সহ-সেক্রেটারি মাজেদুর রহমান, গণঐক্যের গোলাম আহসান হাবীব মাসুদ, ইসলামী আন্দোলনের আশরাফুল ইসলাম খন্দকার, জাতীয় সমাজতান্ত্রীক দল (জেএসডি) আব্দুর রাজ্জাক সরকার, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের মোহসিন আলী, গণতন্ত্রী পার্টির আবুল বাসার মো. শরীতুল্লাহ, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রীক দল (বাসদ) গোলাম রব্বানী, গণফ্রন্ট শরীফুল ইসলাম, এ বি এম মিজানুর রহমান (স্বতন্ত্র), উপজেলা আ.লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আফরুজা বারী (স্বতন্ত্র), সাবেক এমপি কর্নেল (অব.) ডা. আব্দুল কাদের খাঁন (স্বতন্ত্র), এমদাদুল হক নাদিম (স্বতন্ত্র)। এর মধ্যে উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাজেদুর রহমান ও সাবেক জাপা দলীয় এমপি ডা. কাদের খাঁন গাইবান্ধার রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। কাদের খাঁন এমপি লিটন হত্যা মামলায় বর্তমানে জেলহাজতে রয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মনোনয়নপত্র


আরও
আরও পড়ুন