Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

রোহিঙ্গা হত্যায় মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিচারে আদালত প্রতিষ্ঠার আহ্বান

আইনি সংস্থা পাবলিক ইন্টারন্যাশনাল ল’ অ্যান্ড পলিসি গ্রুপের প্রতিবেদন

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম | আপডেট : ১২:১৮ এএম, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৮

রাখাইনে সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতার জন্য দায়ীদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে জরুরি ভিত্তিতে একটি অপরাধ আদালত স্থাপনের আহ্বান জানিয়েছে দ্য পাবলিক ইন্টারন্যাশনাল ল অ্যান্ড পলিসি গ্রুপ (পিআইএলপিজি)। সংস্থাটি সোমবার এক প্রতিবেদনে বলেছে-রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মায়ানমারের সেনাবাহিনী মানবতাবিরোধী অপরাধ, গণহত্যা ও যুদ্ধাপরাধ করেছে বলে সেখানে যুক্তিসংগত প্রমাণ রয়েছে। খবরে বলা হয়, জাতিসংঘ ও বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের পর এবার রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হত্যা নির্যাতনের প্রমাণ পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আইনি সংস্থা। হত্যাকাণ্ড ও বর্বরতার শিকার এক হাজার রোহিঙ্গার সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে সোমবার একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের নিয়োগকৃত আইনি সংস্থা পাবলিক ইন্টারন্যাশনাল ল’ অ্যান্ড পলিসি গ্রুপ। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা ও মানবতা বিরোধী অপরাধ সংঘটিত হয়েছে বলে প্রমাণ পাওয়ার কথা জানিয়েছে সংস্থাটি। গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ ও মানবতা বিরোধী অপরাধের সঙ্গে দেশটির সেনাবাহিনী সরাসরি জড়িত ছিল বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। এ জন্য রোহিঙ্গা নিধনকে গণহত্যা উল্লেখ করে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানানো হয়। এর আগে, চলতি বছরের আগস্টে রোহিঙ্গা নিধনকে মানবতা বিরোধী অপরাধ ও গণহত্যা আখ্যা দিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে জাতিসংঘ। এদিকে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম পলিটিকো জানিয়েছে, রোহিঙ্গা নিধনকে গণহত্যা ঘোষণা দিতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওকে অব্যাহতভাবে চাপ দিচ্ছেন মার্কিন আইনপ্রণেতা ও অধিকার কর্মীরা। রয়টার্স।



 

Show all comments
  • Mohammed Kowaj Ali khan ৫ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:০৭ এএম says : 0
    বিচার তো করিতেনই সাথে সাথে আরকান স্বাধীন করিয়া দেন রোহিঙ্গাদের জন্য। বিশ্ব হইয়া গেছে বেহায়া তা না হইলে খোনী বারমা আজ একদম নিস্ব হইয়া যাইতো। ইনশআল্লাহ। ******** একদিন সকল খোনীদের বীরুদ্বে ব্যবস্থা হইবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রোহিঙ্গা

১১ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন