Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

আর্টিক্যাল ৬৬ অনুযায়ী নির্বাচনে সুযোগ পাবেন খালেদা জিয়া

তিন আসনে বৈধতা পেতে ইসিতে আপিল : সাংবাদিকদের আইনজীবী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:২৯ এএম

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মনোনয়ন পত্র আইনবহির্ভূতভাবে বাতিল হয়েছে দাবি করে প্রার্থিতা ফিরে পেতে নির্বাচন কমিশনে আপিল করা হয়েছে। বেগম খালেদা জিয়ার তিন মনোনয়নপত্রের বৈধতা চেয়ে নির্বাচন কমিশনে আপিল করেছেন তার পক্ষের তিন আইনজীবী।
গতকাল বুধবার দুপুর সাড়ে বারটার দিকে বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামালের নেতৃত্বে তিনজন আইনজীবী আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনে প্রার্থীতা বৈধতার জন্য এই আপিল করেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে খালেদা জিয়া বগুড়া-৬ ও ৭ এবং ফেনী-১ আসন থেকে নির্বাচন করতে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। কিন্তু সাজাপ্রাপ্ত দেখিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তারা তার তিনটি মনোনয়নপত্রই বাতিল করেন গত ২ ডিসেম্বর। আপিল আবেদন জমা দিয়ে আইনজীবি কায়সার কামাল সাংবাদিকদের বলেন, রিটার্নিং অফিসার আইন বহির্ভূতভাবে, অন্যায়ভাবে বিএনপি চেয়ারপারসনের তিনটি মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন। এটা সরকারের ষড়যন্ত্রেরই অংশ। আমাদের কাছে প্রদত্ত ক্ষমতা বলে তিনটি আসনে প্রার্থীর পক্ষে আপিল দায়ের করলাম। ফেনী-১ আসনে খালেদা জিয়ার পক্ষে আপিল করেন ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, বগুড়া-৬ আসনে ব্যারিস্টার নওশাদ জমির ও বগুড়া-৭ আসনের মনোনয়নপত্র বৈধতা চেয়ে আপিল করেন দলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার।
বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী ও দলের আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিষ্টার কায়সার কামাল সাংবাদিকদের বলেন, সংবিধনের আর্টিকেল ৬৬ অনুযায়ী খালেদা জিয়া নির্বাচন করার সুযোগ পাবেন। আপিল দায়েরের পর ব্যারিস্টার কায়সার কামাল সাংবাদিকদের বলেন, খালেদা জিয়ার সাজার বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা আছে। আপিলের বিষয়টি এখনও নিষ্পত্তি হয়নি। যেহেতু অতীতে এই অবস্থাতেও অনেককে নির্বাচন করার সুযোগ দেয়ার রেকর্ড রয়েছে। তাই তার মনোনয়নপত্র বৈধ করে তাকে নির্বাচন করার সুযোগ দেয়া উচিত। তাছাড়া একই আইনে হাজী সেলিমকে নির্বাচনের সুযোগ দেয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন কায়সার কামাল। আইন নিজস্ব গতিতে চললে খালেদা জিয়া প্রার্থিতা ফিরে পাবেন বলে দাবি করেন বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন ফেয়ারলি ডিসিশন নিলে ইসি থেকে খালেদা জিয়ার পক্ষে রায় পাব আশা করি। অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য জাতি অপেক্ষা করছে। খালেদা জিয়া ছাড়া নির্বাচন হলে তা প্রহসনের নির্বাচন হবে। দেশ ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্যে খালেদা জিয়ার সুবিচার চাই আমরা।
রিটার্নিং অফিসার মনোনয়নপত্র বাতিল করলেও আপিলে তা ফিরে পাবে বলে আশা করেন খালেদার আইনজীবি কায়সার কামাল। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের প্রতি পূর্ণ আস্থা রয়েছে। খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র যে গ্রাউন্ডে বাতিল হয়েছে তা এখানে প্রযোজ্য নয়। ইসি সংবিধান ও আইন অনুসরণ করলে এবং বিতর্কের উর্ধ্বে উঠে বিশ্বাসযোগ্য সিদ্ধান্ত নিলে খালেদা জিয়া প্রার্থিতা ফিরে পাবেন।
আগামী ৩০ ডিসেম্বর ভোট হবে। নির্ধারিত সময়ে ৩০০ আসনে ৩০৬৫টি মনোনয়নপত্র জমা পড়ে। বাছাইয়ে ৭৮৬টি মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। ইতোমধ্যে নির্বাচন কমিশনের রিটার্নিং অফিসারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল আবেদন জমা দেয়া গতকাল শেষ হয়েছে। ৬-৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত শুনানি করে তা নিষ্পত্তি করবে ইসি। ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় রয়েছে।



 

Show all comments
  • Al Faruq ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩১ এএম says : 1
    Good..go ahead
    Total Reply(0) Reply
  • BD Rubel Rana ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৩৬ এএম says : 0
    কত.. আইন দেখাইলেন, কোন লাভ হয়েছে এখনো?
    Total Reply(0) Reply
  • Saiful Islam ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩১ এএম says : 1
    সরকার মতে, মুক্ত খালেদা জিয়ার চেয়ে কারাদণ্ড খালেদা জিয়া দূর্বল। কিন্তু সাধারণ জনগণের কাছে আরও জনপ্রিয়।
    Total Reply(0) Reply
  • Nurul Amin ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩২ এএম says : 1
    Inshallah hobe bijoy B N P
    Total Reply(0) Reply
  • Mahmud Sohel ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩২ এএম says : 2
    খালেদা জিয়ার একটি মাত্র সুযোগ আছে, আর তা হলো আওয়ামী লীগের প্রার্থী হওয়া। কেননা, আওয়ামী লীগে অনেক দন্ডিত ব্যক্তিরও মনোনয়ন বাতিল হয়নি।
    Total Reply(0) Reply
  • Farhad Chodury ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩৩ এএম says : 1
    ৬৬ আর্টিকেল এর বিপরীতে BAL এ রা আবার কন আর্টিকেল ঘোষণা দেয়, সেটাই দেখার বিষয়।
    Total Reply(0) Reply
  • Atikur Rahman ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩৪ এএম says : 1
    আমার বাংলা আমার দেশ, হতে দেবোনা নিঃশেষ। এক সাথে লড়বো, গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়বো। জিয়াউর রহমান কিংবা বেগম খালেদা জিয়া কিংবা তারেক রহমান; ১৬ কোটি জনতার সেবক তাঁরা যতদিন পদ্মা,মেঘনা,যমুনা বহমান। নৌকায় ভোটে গলায় ফাঁস রড়ের বদলে দিবে বাঁশ। ষোলো কোটি জনতা ধানের শীষেই একতা। ভোট দিন ধানের শীষে, বসবাস করি নিরাপদ বাংলাদেশে। ভোট আমার অধিকার নিপাত যাবে স্বৈরাচার। ধানের শীষের হলে জয়, গণতন্ত্রের মুক্তি হয়। গুম খুনের রাজত্ব হবে এবার সমাপ্ত। ভোটাধিকার গণতন্ত্র, ধানের শীষের মূলমন্ত্র।
    Total Reply(0) Reply
  • Abdur Rouf Rony ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩৫ এএম says : 1
    বি এন পি তথা ঐক্যফ্রন্টের সকল নেতাদের কাছে আবেদন দয়া করে ৩০ শে ডিসেম্বরের নির্বাচন নিয়ে কোন প্রকার ভীতি ছড়াবেন না।। দলে দলে উৎসব মূখর পরিবেশ এর চেস্টা করুন। জনগনকে ভোট কেন্দ্রে আনতে পারলে ধানের শীষের বিজয় সুনিশ্চিত।। ইনশাআল্লাহ
    Total Reply(0) Reply
  • KM Abdullah ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩৫ এএম says : 1
    সরকারের মনগড়া আইন অনুযায়ি নির্বাচন করতে পারবেন না খালেদা। এটাই চুরান্ত বার্তা। যত যাই হোক হাসিনা নির্বাচন করতে না দিলে খালেদা নির্বাচন করতে পারবেন না। এদেশের সব আইন সব রায় এখন হাসিনা কর্তৃক দেওয়া হয়। কোন সংবিধান এর প্রয়োজন নেই। হাসিনাই মূল সংবিধান। এর বাইরে যাওয়ার উপায় নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • Tamin Islam ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩৬ এএম says : 1
    যদি অবৈধ্য সরকার বাধা না দেয় তাহলে ১০০% সুযোগ আছে.
    Total Reply(0) Reply
  • Sharif Ahmad ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩৬ এএম says : 1
    যে আইনজীবীরা এখনো বলছেন খালেদা জিয়া নির্বাচন করার সুযোগ পাবেন, উনারাই বলেছিলেন খালেদা জিয়া এক সপ্তাহ/মাসের মধ্যেই জামিনে বের হয়ে আসবেন। বিএনপির উচিত এদের থেকে শতর্ক হওয়া।
    Total Reply(0) Reply
  • Khandaker Golam Kibria ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩৭ এএম says : 1
    বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। ১৮ টি আসনে নির্বাচন করে কখনো হারেন নাই। আওয়ামীলীগের সবচেয়ে ভয় বেগম খালেদা জিয়াকে। তাকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে সরকারের হাজার ফন্দি।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Amirul Islam ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩৭ এএম says : 1
    আওয়ামী লীগ যতদিন ক্ষমতায় আছে ততদিন যত চেষ্টাই করুক না কেন বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়াকে কোন নির্বাচনে অংশগ্রহন করতে দিবে না । এতো খুশুি হওয়ার দরকার নাই ।।
    Total Reply(0) Reply
  • আরিফ রব্বানী ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৫:১৪ এএম says : 0
    সকলের সমন্বয়ে গ্রহনযোগ্য নির্বাচন হবে বলে আমি আশাবাদী। বর্তমান মিডিয়ার যোগ। দূর্নিতী করলে ধরা খেতে হবেই। সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। যার যার অবস্থানে থেকে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • রিপন ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৯:৪৬ এএম says : 1
    হাতি ঘোড়া গেল তল, কূপমণ্ডুক কহে কত-ই বা জল! রাজনৈতিক দুরভিসন্ধিকে রাজনীতির দুরমুশপেটা শানিয়েই রফা করতে হয়। অত যে আদালত আদালত করা হচ্ছে, খেয়াল আছে আদালত শব্দটির অর্থই আমূল পাল্টে গেছে সিনহাকে বলপূর্বক অপমানিত বিতাড়িত করার সাথে সাথে? এদ্দিন শুনলো না মানলো না, এখন ৬৬ ধারার কথা পাড়তেই আদালত বলে উঠবে, ওহ্ হো, ভুলেই গিয়েছিলাম ধারাটির কথা, এসো মুক্ত করে দিই, নির্বাচন করতে দিই। এসব গাঁজাখুরিও বিশ্বেস করতে হবে? ফ্যাসিস্ট স্বৈরাচারের তোয়াজ-তদবিরের পেছনে মূল্যবান সময় শক্তি অর্থের অযথা অপচয় না করে, তীব্র গণআন্দোলন গড়ে তোলার কাজে মনোনিবেশ করাই বেহেতর। ঘি, আঙুল বাঁকা না করলে ওঠে না!
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Shah Alam Khan ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৯:৫৩ এএম says : 1
    বিএনপির আইনজীবীরা ভাল ভাবেই জানেন খালেদা জিয়া নির্বাচনে প্রতিদন্দিতা কোনভাবেই করতে পারবেনা কারন তিনি এখন সাজা প্রাপ্ত কয়েদী। দেশের আইনে সাজাপ্রাপ্ত কয়েদী জাতীয় নির্বাচন কেন একটা সাধারন নির্বাচনেও প্রতিদন্দিতা করতে পারেন না। তাহলে কেন এতসব প্রহসন এটাই প্রশ্ন তাই না? আর এর জবাব হচ্ছে যে, বিএনপির আইনজীবীরা খালেদাকে দেশের প্রধানমন্ত্রী বানানোর জন্যে জান প্রাণ দিয়ে দিচ্ছে...... আর ......রা ‘কান চিলে নিয়ে গেল, এটা শুনেই চিলের পেছনে দৌড়াচ্ছে’। তাদের দৌড় দেখে পথচারী যখন জিজ্ঞাসা করে কেন দৌড়াচ্ছে তখন বলে ‘আমার কান চিলে নিয়ে গেছে তাই চিলের পেছনে দৌড়াচ্ছি কান ফেরৎ পাবার আশায়’। পথিক তখন তাকে তার কানে হাত দিতে বললে সে কানে হাত দিয়ে দেখে কান ঠিকই আছে!!! এটাই হচ্ছে .......দের অবস্থা এরা শুধুই বিএনপির নেতাদের কথা শুনে প্রকৃত বিষয়টা না জেনেই শুধু আশায় আশায় দৌড়ের উপর আছে। আল্লাহ্‌ আমাদেরকে সবদিক দিয়ে চিন্তা করে পরে সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা দান করুন। আমিন
    Total Reply(0) Reply
  • Mafujur Rahman Sojib ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৯:০১ পিএম says : 0
    Bortoman sorkar ki chay?? Ebabe r koto oshohay manusher upor ottachar cholbe?? 3barer
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর