Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

এ মাসে নিম্নচাপ-ঘূর্ণিঝড় কালবৈশাখী তাপপ্রবাহ ও বন্যার আশঙ্কা

প্রকাশের সময় : ৫ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

শফিউল আলম : চলতি মে (বৈশাখ-জ্যৈষ্ঠ) মাসে বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি, দেশে কালবৈশাখী ঝড় এবং পুনরায় তাপপ্রবাহের পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। তাছাড়া অতিবর্ষণে দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন স্থানে আকস্মিক বন্যার আশঙ্কা রয়েছে। এ মাসে দেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে গত মে মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেয়া হলেও বাস্তবে সারাদেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ৫২ শতাংশ কম বৃষ্টি তথা অনাবৃষ্টি হয়েছে। এর আগে ফেব্রুয়ারি মাসে দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ৩৮ শতাংশ বেশি, এপ্রিল মাসে ৪৫ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হয়।
দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস প্রদানের লক্ষ্যে গত সোমবার অনুষ্ঠিত আবহাওয়া অধিদপ্তরের ঝড় সতর্কীকরণ কেন্দ্র ঢাকায় আবহাওয়া বিশেষজ্ঞ কমিটির সভায় উপরোক্ত পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে।
পূর্বাভাসে আরও জানা গেছে, চলতি মে মাসে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে ২ থেকে ৩ দিন বজ্রসহ মাঝারি থেকে প্রবল আকারে কালবৈশাখী ঝড় এবং দেশের অন্যত্র ৩ থেকে ৪ দিন হালকা থেকে মাঝারি কালবৈশাখী ঝড় হতে পারে। মে মাসে দেশের উত্তরাঞ্চল ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ১ থেকে ২টি তীব্র তাপপ্রবাহ (৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ঊর্ধ্বে) এবং দেশের অন্যত্র ২ থেকে ৩টি মৃদু (৩৬ থেকে ৩৮ ডিগ্রি সে.) থেকে মাঝারি (৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সে.) তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।
এদিকে গত মাসের আবহাওয়া পরিস্থিতির পর্যালোচনায় আবহাওয়া বিভাগ জানায়, গত এপ্রিল মাসে সিলেট বিভাগে স্বাভাবিক অপেক্ষা ১২৩ শতাংশ বেশি এবং রাজশাহী বিভাগে প্রায় স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হয়েছে। তবে সার্বিকভাবে সারাদেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ৫২ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে। এ মাসের প্রথম সপ্তাহে দেশের কিছু জায়গায় কালবৈশাখী ঝড়োহাওয়াসহ শিলাবৃষ্টি হয়েছে। পরবর্তীতে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে পশ্চিমা লঘুচাপের সাথে পূবালী বায়ু প্রবাহের সংযোগ হওয়ায় সিলেট বিভাগে মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণসহ কখনও কখনও শিলাবৃষ্টিও হয়েছে। ৬ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যšত দেশের অনেক এলাকার উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যায়। তবে এ তাপপ্রবাহ ১০ ও ১১, ২২ থেকে ২৫ এবং ২৮ থেকে ৩০ এপ্রিল রাজশাহী, খুলনা ও রংপুর বিভাগের কোন কোন অঞ্চলে তীব্র আকার ধারণ করে। এ সময় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় রাজশাহীতে ৪১.২ ডিগ্রি সে.। বৃষ্টিপাত, বৃষ্টিপাতের দিন সংখ্যা ছাড়া গত এপ্রিল মাসের পূর্বাভাস প্রকৃত আবহাওয়ার সাথে সংগতিপূর্ণ ছিল বলে জানায় আবহাওয়া দপ্তর।
চলতি মে মাসে দেশের ৭টি বিভাগওয়ারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। এতে ঢাকা বিভাগে ১৩ থেকে ১৫ দিনে ২৮০ থেকে ৩১০ মিলিমিটার, চট্টগ্রাম বিভাগে ১১ থেকে ১৩ দিনে ২৯৫ থেকে ৩২৫ মিলিমিটার, সিলেট বিভাগে ১৮ থেকে ২০ দিনে ৪৮৫ থেকে ৫৩৫ মিলিমিটার, রাজশাহী বিভাগে ১০ থেকে ১২ দিনে ১৭৫ থেকে ১৯৫ মিলিমিটার, রংপুর বিভাগে ১১ থেকে ১৩ দিনে ২৩৫ থেকে ২৬৫ মিলিমিটার, খুলনা বিভাগে ৮ থেকে ১০ দিনে ১৬০ থেকে ১৮০ মিলিমিটার এবং বরিশাল বিভাগে ১০ থেকে ১২ দিনে ২৪৫ থেকে ২৭৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ