Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

কান গরমে প্রস্তুত মাইক

মীরসরাই (চট্টগ্রাম) থেকে ইমাম হোসেন | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০৫ এএম

আর মাত্র কয়েকটা দিন বাকি। কিছু দিনের মধ্যে মীরসরাইতে সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীদের নিয়ে শুরু হবে সরব প্রচারনা। ‘মা বোনদের বলে যাই অমুক ভাইয়ের তুলনা নাই’ ‘অমুক ভাইয়ের সালাম নিন, এই প্রতীকে ভোট দিন’। এভাবে নানা স্লোগানে উৎসবমুখর হয়ে উঠবে গ্রামের হাটতলা, বটতলা থেকে শুরু করে হাট বাজার তেপান্তর সবি।
একাদশ সংসদ নির্বাচনমুখী সাধারণ মানুষ নির্বাচনী উত্তাপের এই আমেজ পেতে আগ্রহভরেই অপেক্ষায় আছে এখন। মিছিল, সভা-সমাবেশের এই প্রচারণার অন্যতম অনুষঙ্গ ‘মাইক’। সেই ব্যস্ততার জন্য মীরসরাইয়ে মাইক সার্ভিস পেশাদার দোকানীরা বেশ প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে ইতিমধ্যে। তবে মাইক সার্ভিস পেশার আলোকিত দিক। অন্ধকার দিকও আছে। বছরের নভেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মোটামুটি ব্যস্ত সময় কাটাতে হয় এই পেশার মানুষদের। বাকি সময় অনেকটা নিরুত্তাপ থাকে মাইকপাড়া। যদি ও সম্প্রতিকালে এখন কমবেশী সারা বছরই ভাড়া মিলে। পুরোপুরি বর্ষায় যায় শুধু একদম মন্দা।

তবে এবার অন্য বছরের তুলনায় ভালো সময় কাটবে বলেই আশা করছেন মাইক সার্ভিস ব্যবসায়ীরা। আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে এবার মাইকের তুমুল চাহিদা থাকবে বলে আশা করছেন সকলে। মীরসরাই উপজেলার নূর মাইক সার্ভিসের মালিক নুর উদ্দিন বলেন, ‘প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে প্রার্থীরা পুরোপুরি নির্বাচনী প্রচার শুরু করবেন। তখন আশা করি আমাদের মাইকের চাহিদা বেড়ে যাবে। এ জন্য দুই-চারজন সহকারী নিয়োগ দিয়েছি নির্বাচন উপলক্ষে।’ মীরসরাই সদরের কোর্ট রোড খ্যাত সড়কে অবস্থিত নূর মাইক, ২টি মাইক নিয়ে যাত্রা শুরু করা নূর মাইক সার্ভিসে বর্তমানে প্রায় ২০০টি মাইক রয়েছে। মীরসরাই উপজেলায় এককভাবে সবচেয়ে বেশি মাইকের মালিক এই নূর মাইক মালিক । মাইক ব্যবসাটা মূলত মৌসুমভিত্তিক। বছরের নভেম্বর থেকে মার্চ পর্যন্ত মোটামুটি ব্যস্ত সময় পার করতে হয় এই পেশার সঙ্গে জড়িতদের। ওয়াজ মাহফিল, সাংস্কৃতিক উৎসব, বার্ষিক পিকনিক, পূজা সব মিলিয়ে দম ফেলার ফুরসত মেলে না। বাকি সময় বসেই থাকেন তাঁরা। এ কারণে বেশির ভাগ মাইক সার্ভিসের কর্মীরাও মূলত মৌসুমভিত্তিক কাজ করেন।

উপজেলার মিঠাছরা বাজারের বাহার মাইক ও বেশ প্রসিদ্ধ মাইক দোকানী। বাহার মাইক সার্ভিসের মালিক গীতিকবি বাহার মাসুক বলেন, ‘আমরা ১২০টি মাইক প্রস্তুত রেখেছি, প্রতীক বরাদ্দের জন্য অপেক্ষায় আছি আমরা এর পর আমাদের মাইক নামাতে পারবো। এছাড়া আবুতোরাবের ফখরুল মাইক, রাসেল, আলতাফ মাইক, জোরারগঞ্জের শাওন মাইক, কাটাছরার নওশা মাইক সার্ভিস সহ প্রতিটি হাটের মাইক দোকানীরা যেন অপেক্ষা করছে কখন থেকে বাজতে শুরু করবে তাদের যন্ত্রগুলো। আর চায়ের দোকান গুলো জমবে আরো এক ধাপ এগিয়ে।
মাইকের ব্যবহার সম্পর্কে মীরসরাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রাকিবুজ্বামান রেনু বলেন, ‘১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে। সেদিন থেকেই প্রার্থীরা প্রকাশ্যে প্রচার শুরু করতে পারবেন। তিনি আরো বলেন, দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টার মধ্যেই মাইকে প্রচার সীমাবদ্ধ রাখতে হবে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর