Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

জয়ের বিকল্প নেই পরাজয় মানে রক্তের বন্যা -যৌথ সভায় ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০৫ এএম

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগামী নির্বাচনে জয়ের বিকল্প নেই। পরাজিত হওয়া মানে দেশে রক্তের বন্যা বয়ে যাওয়া। আমাদের পরাজয় মানে ২০০১ সালের অন্ধকার ফিরে যাওয়া। আমরা কী সে সন্ত্রাস দুর্নীতির অমানিশার অন্ধকারে ফিরে যেতে চাই? তাই আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।
গতকাল রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের যৌথসভায় তিনি এমন মন্তব্য করেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, মির্জা ফখরুলকে আমি চ্যালেঞ্জ করছি, আপনাদের এমন কি কাজ আছে যেটা দেখে মানুষ ভোট দেবে। আছে হাওয়া ভবন আর খাম্বা। তাদের দুর্নীতি আর সন্ত্রাসের কারণে মানুষ আর তাদের চায় না।
তিনি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চূড়ান্ত প্রার্থী কারা হচ্ছেন, তা জানা যাবে আগামীকাল (আজ) শুক্রবার। তিনি জানান, দলের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল দলের ও জোটের মনোনয়ন প্রক্রিয়া শেষ করা। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ইতিমধ্যে দলের ও জোটের মনোনয়ন প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। আজ, কালের মধ্যেই চিঠি দিয়ে দেওয়া হবে। আগামীকাল মনোনয়নপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা চিঠি পাবেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের সভাপতি গত সাত বছর ধরে জরিপ প্রতিবেদন প্রতি ছয় মাস পরপর সংগ্রহ করেছেন। পাঁচ-ছয়টি বিদেশি কোম্পানি এই জরিপের কাজ করেছে। এই জরিপ প্রতিবেদনগুলো মূল ভূমিকা পালন করেছে। ছয় মাস পরপর আপডেট করার পর আওয়ামী লীগের প্রার্থীর গ্রহণযোগ্যতা মাপা হয়েছে। তিনি বলেন, এই জরিপ শুধু আওয়ামী লীগের ওপর হয়নি, বিএনপিসহ অন্যান্য দলের প্রার্থীর ব্যাপারেও তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। এর ফলে অন্যান্য দলের জনমত জরিপ বিবেচনা করা হয়েছে। শরিকদের সঙ্গেও বোঝাপড়া হয়ে গেছে, আওয়ামী লীগ একটি সমঝোতা করতে পেরেছে। মনোনয়ন নিয়ে শরিকদের সঙ্গে টানাপোড়েন দেখা যায়নি।
ওবায়দুল কাদের বলেন, কিছু কিছু প্রার্থী বিতর্কের কারণ হতে পারে, এই ভেবে দল অনেক প্রার্থীর পরিবর্তন এনেছে। মনোনয়নে রাজনীতির বিজয় হয়েছে আওয়ামী লীগের। কাজেই আওয়ামী লীগের দুশ্চিন্তা নেই। কিছু কিছু জায়গায় ক্ষোভ-বিক্ষোভ হতে পারে। কারণ জোটের কারণে আওয়ামী লীগের অনেক আসনে ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে।
স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওসার, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ যৌথসভায় উপস্থিত ছিলেন।



 

Show all comments
  • Mojibur Rahman ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪১ এএম says : 1
    একজন দ্বায়িত্বশীল নেতার মুখে জনমনে ভীতি সঞ্চার মূলক বক্তব্য কি শোভা পায়
    Total Reply(0) Reply
  • Shahidul Haque ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪২ এএম says : 1
    অন্যায়-অত্যাচার-অবিচার করার সময় ,এই কথা মনে ছিলো না?
    Total Reply(0) Reply
  • রোমানা অাক্তার বষা ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪৩ এএম says : 1
    কাদের সাহেব আপনারা কার রক্ত ঝরানো বাকি রেখছেন বলেন। আবার ঝরাইবেন নাকি?
    Total Reply(0) Reply
  • Razaul Islam ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪৪ এএম says : 1
    আপনাদের এত ভয় কেন ?
    Total Reply(0) Reply
  • Jam Jam ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪৫ এএম says : 1
    চোরের মন পুলিশ পুলিশ
    Total Reply(0) Reply
  • Live Projapti ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪৬ এএম says : 1
    এই অবান্তর কথাবার্তা, টাল,বাহানা,জোর,জবরদস্তি, কাহাকে পরাজিত করতে চাও?? সেই ভোট বঞ্চিত জনগনকে? মুখে যাদের ক্ষমতার অধিকারী বলো তাদেরকে? কি এমন জঘন্য পাপ করেছো? যার জন্যে সাব'ক্ষনিক মৃত্যু ভয় পিছা করছে। জনতার সামনে খোলে বলো এবং স্ববিনয় ক্ষমা প্রাথ'না করো!!
    Total Reply(0) Reply
  • Dewan Salek ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪৬ এএম says : 1
    দেশের মানুষের রক্ত নিয়েছেন আর নিজেরা দিবেন না এটা কি হয়। রক্তের ঋৃন রক্ত দিয়েই শুধ করতে হয়। এটা চিরো সত্য। কিন্তু ক্ষমতাই থাকলে কেউ বুঝে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Ami Jolkonna ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:২৩ এএম says : 0
    So you knew!!! Thanks for understanding where you stand. Need justice for the Bangladeshi nations .
    Total Reply(0) Reply
  • kesto ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:১১ এএম says : 1
    Apnara khomota Chan kin to jonogon kin to apnader ke chaina...promanito
    Total Reply(0) Reply
  • রিপন ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১১:৪০ এএম says : 0
    বন্যায় ভয় কী? নৌকো আছে না? পাল তুলে ভেসে থাকলেই হয়।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর