Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

উ. কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি বানাচ্ছে চীন সীমান্তে

দু’কোরিয়ার মধ্যে উত্তরের কায়েসংয়ে আলোচনা অনুষ্ঠিত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

চীন সীমান্তের কাছে উত্তর কোরিয়া একটি ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি তৈরি করছে বলে আমেরিকার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক মিডলবারি ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ জানিয়েছে। সম্ভবত এ ঘাঁটিতে আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করা হবে। পার্সটুডে এ খবর জানায়। অপরদিকে, উত্তর কোরিয়ার সীমান্তবর্তী শহর কায়েসংয়ে আন্তঃকোরীয় মৈত্রী দপ্তরে শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়া ও পিয়ংইয়ংয়ের মধ্যে উপমন্ত্রী পর্যায়ের একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সিউলের একত্রীকরণ মন্ত্রণালয়ের উপ-মুখপাত্র লী ইউজেন এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, কায়েসংয়ে আন্তঃকোরীয় মৈত্রী দপ্তরের প্রধানের মধ্যে এ বৈঠকে উপ-একত্রীকরণ মন্ত্রী চুন হায়ে-সুংয়ের অংশ নেয়ার কথা ছিল। উত্তর কোরিয়ার পক্ষে আছেন জন জং সু। তিনি ডিপিআরকে’র কমিটি ফর পিচফুল রিইউনিফিকেশন অব ফাদারল্যান্ডের ভাইস-চেয়ারম্যান। তারা এ মৈত্রী দপ্তরের উপ-প্রধান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। দুই কোরিয়ার মধ্যে সার্বক্ষণিক যোগাযোগের জন্য গত সেপ্টেম্বর মাসে এ দপ্তর খোলা হয়। মিডলবারি ইনস্টিটিউট বলছে, উত্তর কোরিয়ার এসব ক্ষেপণাস্ত্র আমেরিকা পর্যন্ত পৌঁছাতে পারবে। মিডলবারি ইনস্টিটিউট আরো বলছে, স্যাটেলাইট ইমেজের মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ার ইয়ংজিয়ো-ডং ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন সংক্রান্ত তৎপরতা লক্ষ্য করা গেছে। সংস্থাটির এক রিপোর্টে বলা হয়েছে- চীন সীমান্তে কাছে পাহাড়ি এলাকায় উত্তর কোরিয়া ওই স্থাপনা তৈরি করছে এবং এর কৌশলগত অবস্থানের কারণে দীর্ঘদিন ধরে সেটা আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়ার জন্য উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। মিডলবারি ইনস্টিটিউট আরো বলছে, সাটেলাইট ইমেজের মাধ্যমে দেখা যাচ্ছে যে, ওই ঘাঁটি সক্রিয় রয়েছে এবং গত বছর উত্তর কোরিয়া ঘাঁটির কাছে আরো একটি স্থাপনা তৈরি করেছে যাকে অন্য একটি ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি বলে মনে করা হচ্ছে। মিডলবারি ইনস্টিটিউটের গবেষক জেফরি লুইস ও ডেভিড শ্যামারলার বলেন, ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে ইয়ংজিয়ো-ডং এবং পাশের ঘাঁটিটি আমেরিকায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর ক্ষেত্রে শক্তিশালী ঘাঁটি হয়ে উঠবে। পার্সটুডে, সিনহুয়া।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উ. কোরিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ