Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ০৮ চৈত্র ১৪২৫, ১৪ রজব ১৪৪০ হিজরী।

তিন দেশের উদ্যোগে সার কারখানা স্থাপনের প্রস্তাব

প্রকাশের সময় : ৬ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : বহুজাতিক ইউরিয়া সার উৎপাদনকারী কারখানা কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরির (কাফকো) আদলে বাংলাদেশ, জাপান ও ইরানের যৌথ উদ্যোগে ইরানে একটি ইউরিয়া সার কারখানা স্থাপনের প্রস্তাব করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার শিল্প মন্ত্রণালয়ে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সঙ্গে বৈঠককালে এ প্রস্তাব দেন জাপানের রাষ্ট্রদূত। মাসাতো বলেন, এ সার কারখানা স্থাপনের জন্য জাপান সরকার সম্মত আছে। এটি স্থাপিত হলে সংশ্লিষ্ট তিন দেশই আর্থিকভাবে লাভবান হবে।
জাপানের রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক অগ্রগতির প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশ ও জাপানের অর্থনীতি ধারাবাহিকভাবে টেকসই উন্নয়নের পথ ধরে এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ ও জাপানের যৌথ বিনিয়োগে স্থাপিত প্রতিষ্ঠান হোন্ডা প্রাইভেট লিমিটেড বাংলাদেশের এসএমই খাতের উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করছে। এ প্রতিষ্ঠানের কাঁচামাল আমদানির ক্ষেত্রে নির্ধারিত সম্পূরক শুল্ক ৪৫ শতাংশ থেকে কিছুটা কমানোর জন্য শিল্পমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।
বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী জাপানের উচ্চমানসম্পন্ন প্রযুক্তির শিল্প কারখানা বাংলাদেশে স্থানান্তরের ওপর গুরুত্ব দেন। তিনি বলেন, মালয়েশিয়ায় সনি করপোরেশনের কারখানা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এটি বাংলাদেশে স্থানান্তরের সুযোগ রয়েছে। এ কারখানায় কর্মরত অধিকাংশ শ্রমিক বাংলাদেশী ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশে এটি স্থানান্তর হলে সহজেই দক্ষ শ্রমিক পাওয়া যাবে।
কর্ণফুলী পেপার মিলস্ (কেপিএম), রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকল, ডিএপি সার কারখানাসহ রাষ্ট্রায়ত্ত বিভিন্ন কারখানার খালি জায়গায় যৌথ বিনিয়োগে শিল্প স্থাপনে এগিয়ে আসতে রাষ্ট্রদূতের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন শিল্পমন্ত্রী। বৈঠকে শিল্প সচিব মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, শিল্প মন্ত্রণালয় ও জাপান দূতাবাসের কর্মকর্তারা ছিলেন।




 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ