Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯, ৭ বৈশাখ ১৪২৬, ১৩ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

শিগগিরই এসপিভি চালু হচ্ছে : ইইউ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

ইরানের সঙ্গে ইউরোপের অর্থনৈতিক লেনদেন বজায় রাখতে বিশেষ অর্থনৈতিক ব্যবস্থা ‘এসপিভি’ শিগগিরই চালু করা হচ্ছে বলে খবর দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ’র পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা ফেডেরিকা মোগেরিনি। তিনি সোমবার ব্রাসেলসে ইইউ’র পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক শেষে বলেন, দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর এসপিভি ব্যবস্থা চালু করার পর্যায়ে চলে এসেছে। চলতি মাসের শেষ নাগাদ এটি চালু করা সম্ভব হবে এবং নতুন বছরে এর সুফল পাওয়া যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। মোগেরিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বেরিয়ে যাওয়া সত্তে¡ও ইরানের পরমাণু সমঝোতা বাস্তবায়ন করার ব্যাপারে ইউরোপীয় দেশগুলো সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইইউ’র এই শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, ইরান পরমাণু সমঝোতা পুরোপুরি মেনে চলার কারণে ইউরোপ এটি বাস্তবায়ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তিনি আরো বলেন, ইরানের জনগণ যাতে পরমাণু সমঝোতার সুফলগুলো ভোগ করতে পারে সে ব্যবস্থা নিচ্ছে ইইউ। গত মে মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেলেও ইউরোপীয় দেশগুলোর পাশাপাশি চীন ও রাশিয়া এ সমঝোতা বাস্তবায়ন করে যাবে বলে তেহরানকে প্রতিশ্রুতি দেয়। এসব দেশ ইরানকেও পরমাণু সমঝোতা ত্যাগ না করার অনুরোধ জানায়। ইরানের অর্থনৈতিক লেনদেনের ওপর যুক্তরাষ্ট্রর নিষেধাজ্ঞা থাকায় ইইউ’র প্রস্তাবিত ‘স্পেশাল পারপাস ভেহিকেল- এসপিভি’ ব্যবস্থা চালু হলে ইউরোপের সঙ্গে আমদানি-রপ্তানির ক্ষেত্রে আর্থিক লেনদেনে কোনো সমস্যায় পড়বে না ইরান। একইসঙ্গে ইউরোপের বাইরের যেকোনো আগ্রহী দেশ অনায়াসে ইরানের সঙ্গে বাণিজ্য করতে পারবে। উল্লেখ্য, গত মে মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যান। কিন্তু অন্যান্য পক্ষ ওই সমঝোতা মেনে চলতে একমত রয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প চুক্তি থেকে বেরিয়ে গিয়ে ইরানের ওপর নতুন করে অবরোধ আরোপ করায় ডলারের বিনিময়ে ইরানের বাণিজ্য পরিস্থিতি কঠিন হয়ে পড়েছে। ফলে ইউরোপীয় দেশগুলো এসপিভি চালুর উদ্যোগ নিয়েছে। চ্যানেল নিউজ এশিয়া, পার্সটুডে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন