Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

বগুড়ায় ঐক্যফ্রন্টের প্রচারে জনতার ঢল

মহসিন রাজু, বগুড়া থেকে | প্রকাশের সময় : ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:৪৩ এএম

বগুড়ায় ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনী প্রচারে বিএনপি নেতাকর্মীদের পাশাপাশি স্বতঃস্ফূর্ত জনতার ঢল নামছে। অপরদিকে সরকারি দলের নেতাকর্মীরা প্রকাশ্যে লাঠিসোঁটা নিয়ে মহড়া দিচ্ছে। ধানের শীষ কর্মীদের বাড়িঘর ও নির্বাচনী প্রচার মিছিলে হামলা ও ভাঙচুর করছে। পাশাপাশি জেলার নির্বাচনী কর্মকর্তা, সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও পুলিশ কর্মকর্তাগণ অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে জাতীয় বক্তব্য দিয়ে পালন করে চলেছেন নীরব দর্শকের ভূমিকা।
বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম বলেন, বগুড়ার প্রশাসন সরকারি দলের সন্ত্রাসীদের সশস্ত্র মহড়া, হামলা, ভাঙচুর দেখেও না দেখার ভান করে চলেছে। যা কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে উদ্বেগের। ঐক্যফ্রন্ট ও বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণায় যেভাবে সাধারণ মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখা যাচ্ছে যা সরকারি দলের জন্য আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
বগুড়া জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন বলেন, গতকাল গতকাল বুধবার বেলা ১০টা থেকে দুপুর পর্যন্ত বগুড়া জেলা বিএনপি ও এর সকল অঙ্গসংগঠন নেতাকর্মীদের নিয়ে চলা সভায় বক্তাদের সকলেই বগুড়া ৭টি সংসদীয় আসনের সবকটিতেই ধানের শীষের জয় নিশ্চিত করতে সকল ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে সকল অপশক্তিকে দৃঢ়তার সাথে মোকাবেলার কথা উল্লেখ করেন। সভায় জেলা বিএনপির সভাপতি ভিপি সাইফুলকে আহ্বায়ক করে ১০১ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়।
জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিন্সিপাল মীর শাহে আলম বলেন, তার নিজস্ব নির্বাচনী এলাকা বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) আসনের ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী মাহমুদুর রহমান মান্নার নির্বাচন সমন্বয়কের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতার কথা উল্লেখ করে বলেন, মান্না সাহেব যেখানেই যাচ্ছেন, সেখানেই ঢল নামছে মানুষের। তারা ধারণা করছেন, যদি ৫০ ভাগ সুষ্ঠু ভোট হয় তাহলে অতীতের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করে ওই আসনে ধানের শীষ প্রার্থীর বিজয় হবে ।
বগুড়ায় এবার দুটি আসনে আওয়ামী লীগের এবং বাকি ৫টিতে শরিক জাপা ও জাসদের প্রার্থী রয়েছেন। নির্বাচনী তৎপরতা শুরুর পর থেকে বগুড়ার ৭টি আসনের মধ্যে ৬টিতেই পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণ থাকলেও বগুড়া-৫ (শেরপুর/ ধুনট) আসনে ব্যতিক্রম লক্ষ্য করা গেছে। ৫-আসনের অন্তর্ভুক্ত ধুনট উপজেলায় এলাঙ্গী ইউপির রাঙামাটি গ্রামে যুবদল নেতা মুরাদের বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার ধুনট বাজারে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী জিএম সিরাজের গাড়ী বহরে পুলিশের উপস্থিতিতে হামলা হয়। বুধবার দুপরে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ন্যূনতম আগ্রহ দেখায়নি বলে অভিযোগ করেছেন ধুনট উপজেলা চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা তৌহিদুল আলম মামুন।
এ ব্যাপারে ধুনটের সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা, ধুনটের ওসি ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার সাথে বিএনপির পক্ষ থেকে বারবার যোগাযোগ করা হলে প্রত্যেকবারই অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তারা। ভুক্তভোগী বিএনপির নেতারা বলছেন, ওনারা (প্রশাসনিক কর্মর্তাগন) যে দয়া করে আমাদের কথা শুনছেন এটাই যেন যথেষ্ট বলে তাদের অভিব্যক্তিতে মনে হয়।



 

Show all comments
  • Mizanur Rahman Sabuj ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪৯ এএম says : 1
    শুধু বগুড়া নয় সারা বাংলাদেশ একই চিত্র। তাই তো ছাগুলীগের মাথা নষ্ট হয়ে গেছে।
    Total Reply(0) Reply
  • MD Jahangir Hussain ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪৯ এএম says : 1
    Good news and good luck
    Total Reply(0) Reply
  • RokOn Rddin Mahmud ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫০ এএম says : 1
    আপনারা বেশি করে নামলেই তো আমরা নিরপেক্ষ হয়ে যাই : পুলিশের মেসেজ!
    Total Reply(0) Reply
  • Muhammad Masum ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫০ এএম says : 1
    মার্কা একটাই ধানের শীষ।
    Total Reply(0) Reply
  • Shams Tibriz ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫১ এএম says : 1
    পুরো বাংলাদেশ আজ বিএনপির গনজোয়ারে পরিনত
    Total Reply(0) Reply
  • Samir Hoque ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫১ এএম says : 0
    সরকারের পতন অনিবার্য, দলীয়বাজ পুলিশ প্রশাসন দিয়ে হয়তো নেতা কর্মীদের আটক করা যাবে কিন্তু জনগণের রায়কে দমন করা যাবেনা, দেশ প্রেমিক ভাইদের বলছি সমাজের উচ্চ শ্রেনী থেকে নিম্ন শ্রেনীর যারা দেশকে ভালবাসি দেশকে এগিয়ে নিতে চায় সকল বাঁধা বিপত্তি ছুড়ে আসুন দেশের জন্য কাজ করি,এই দেশ আপনার আমার সকলের আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মের
    Total Reply(0) Reply
  • Rejaul Haque Chowdhury ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫২ এএম says : 0
    <হয় এবার, নয় নেভার> চরাম চরাম বাজছে ঢাক-সৈরাচার নিপাত যাক। কলকাটি যতই নাড়ো-ভোটের পরে গদি ছাড়ো। লুট হয়েছে হাজার কোটি- কে খেয়েছে হালুয়া রুটি? দু হাজার উনিশ সাল বাংলা হবে লালে লাল।
    Total Reply(0) Reply
  • Haji Karim ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫২ এএম says : 0
    মাশাআল্লাহ্ আলহাদুলিল্লাহ্ অভিন্দন সকলের প্রতি ধন্যবাদ শুভকামনা রইলো
    Total Reply(1) Reply
    • AKHAND ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৪:১৬ এএম says : 0
      after election don't cry and tell by force awamileag come to the power,
  • Kamal Hossain ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫৩ এএম says : 0
    এটা কি সুষ্ঠ গণতন্ত্র চর্চা ? কোনো সরকারই কি আমাদের সুষ্ঠ গণতন্ত্র দেবে না ? আমরা জনগণ খুবই অসহায়। দেশে দলের অভাব নেই। দলবাজদের অভাব নেই।কর্মীর অভাব নেই।রাজনীতিবিদের অভাব নেই।সঠিক নেতার অভাব। চার পাশে যা আছে তা হলো লুটেরা।যে ক্ষমতায় আসে সে-ই দেশটাকে লুটে শেষ করে দেয়।আর এর জন্যই এতো মারামারি-কাটাকাটি।নির্বাচনের পরে কোনো ব্যাক্তিই প্রতিশ্রুতি রাখে না।এই নেতারা আমাদের খুব সহজেই বোকা বানিয়ে দেয়।কারণ আমরা তাদের অন্ধ বক্ত। কখনো তাদের খারাপকে খারাপ বলি না। আর এই সুযোগে তারা আমাদের লুটে খাচ্ছে। যেখানে সর্বোদলের অংশ গ্রহণে সুষ্ঠ নির্বাচন হবে না ,সেখানে আমাদের ভাগ্যেরও কোনো পরিবর্তন হবে না। এটা তাদের একচেটিয়া বাণিজ্য।তাই এই বাণিজ্য বন্ধ করতে হলে নতুন যে কোনো দলকে ক্ষমতায় আসতে দিতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Noor Ul Islam ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫৩ এএম says : 0
    সব জায়গায় জনতার ঢল নামাতে হবে আর স্বৈরাচার বাহিনীকে প্রতিরোধ এবং প্রতিহত করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Abdul Hamid ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫৪ এএম says : 1
    জয় হবে ধানের শীর্ষে
    Total Reply(0) Reply
  • Mahabub Rabbani Milon ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫৪ এএম says : 0
    সুযোগ পেলে সারাদেশে এর চাইতে ও বেশী হতো।
    Total Reply(0) Reply
  • Saikat Ahmed ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫৫ এএম says : 0
    এত বাধা সত্ত্বেও মানুষ বের হচ্ছে। কারন মানুষ কথা বলার স্বাধীনতা চায়, আতঙ্কমুক্ত নিরাপদ জীবন চায়।
    Total Reply(0) Reply
  • Safiqul Islam Rotan ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৫৫ এএম says : 0
    জনতার শক্তিই আমাদের ভোটাধিকার ফেরত দিতে পারে।
    Total Reply(0) Reply
  • Jalal Uddin ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১১:৫২ এএম says : 0
    This is reality.Go ahead,people with you.Everybody want change but have to active it.Need effective initiative.Thanks to All.
    Total Reply(0) Reply
  • younus ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১১:২৬ এএম says : 0
    DHANER SISH
    Total Reply(0) Reply
  • MD.Zahidul Islam ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৭:৩৯ এএম says : 0
    The people of Bangladesh against of tyranny and establish fundamental right.
    Total Reply(0) Reply
  • md ruhul amin ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৮:৩০ এএম says : 0
    let me chance
    Total Reply(0) Reply
  • Nannu chowhan ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৮:৪৫ এএম says : 0
    Mash Allah.shara banglar protik eakhon dhaner shish.Hamla mamla goom kore jonogon theke bichsinno shorkari dol...
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Junnun ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৫:৪৫ এএম says : 0
    Chari dike aki suni dhaner sish er joyodhoni
    Total Reply(0) Reply
  • SHA RI FUL ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:৫৫ পিএম says : 0
    ঐক্যফ্রন্ট এর বিজয় সুনিশ্চিত,সুষ্ঠুতার যদি ৫০% ও থাকে তবুও বিজয় হবেই।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় সংসদ নির্বাচন

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ