Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৬ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বগুড়ার নবাববাড়ি সংরক্ষণে ডিসিকে সংষ্কৃতি মন্ত্রণালয়ের চিঠি

উল্লসিত জনতার মিষ্টি বিতরণ

প্রকাশের সময় : ৬ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

মহসিন রাজু, বগুড়া থেকে : নবাব নওয়াব আলী চৌধূরী, নবাব আব্দুস সোবহান চৌধুরি, চৌধুরানী তহুরুন্নেছা, জোবেদাতুন্নেছা, আলতাফুন্নেছা, নবাব আলতাব আলী চৌধুরী, অবিভক্ত পাকিস্তানের সাবেক পররাষ্ট্র ও প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ আলীর স্মৃতি বিজড়িত বগুড়ার ঐতিহাসিক নবাব বাড়িটি ভুমি দস্যুদের হাত থেকে ধ্বংসের অপচেষ্টা রোধের অংশ হিসেবে এটি সরকারি ভাবে সংরক্ষণের সিদ্বান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে। গতকাল বিভিন্ন গনমাধ্যমে এবং ফেসবুকে এখবর প্রচারের পর জানাজানি হলে বিভিন্ন স্থানে উল্লসিত লোকজন মিষ্টি মুখ করে সংবাদটি উদযাপন করেছে বলে কবর পাওয়া গেছে।
এ ব্যাপারে বগুড়ার ডিসি মোঃ আশরাফুদ্দিন জানিয়েছেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়-এর শাখা-৬ এর সিনিয়র সহকারি সচিব ছানিয়া আক্তার স্বাক্ষরিত এক পত্রে তাকে জানানো হয়েছে, “ঐতিহাসিক ও প্রতœতাত্ত্বিক গুরুত্ব থাকায় ১৯৬৮ সালের পূরাকীর্তি আইন (৭৬ সালে সংশোধিত) অনুসারে এটি সংরক্ষণ যোগ্য হওয়ায় সরকার এটি সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে এটি এখন পুরাতাত্বিক সম্পদ হিসেবে সরক্ষণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
রাজনৈতিকভাবে শক্তিশালী এবং ভুমিদস্যু এবং কালো টাকার মালিকদের একটি চক্র গোপনে অবিভক্ত পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ আলীর ২ ছেলে হাম্মাদ আলী ও হামদে আলীর কাছ থেকে ২৭ কোটি টাকায় কিনে নেয় । এই খবর জানা জানি হলে বগুড়াবাসী ও নবাব পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। জাতীয় জাগরন আন্দোলন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও বগুড়ার ঐতিহ্য সম্পদ রক্ষা পরিষদ নামের সংগঠনের ব্যানারে তীব্র আন্দোলন গড়ে উঠে। এই সব সংগঠনের পক্ষ থেকে গনসংযোগ, মতবিনিময়, স্মারক লিপি প্রদান, মানব বন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসুচি পালন শুরু হয়। অভিযোগ বগুড়ার নবাববাড়ির মূলমালিক পূর্বপুরুষেরা এটি ওয়াকফ করে গেলেও মোহাম্মদ ৪ ছেলে মেয়ের মধ্যে হাম্মাদ ও হামদে আলী টাকার লোভে এটা ব্যাক্তি সম্পত্তির ভুয়া দলীল তৈরি করে তা’ বিক্রি করে দিয়েছিলেন ক্রেতারা অতি সম্প্রতি এই বাড়িটি ভেঙ্গে সেখানে বহুতল বিশিষ্ট বাণিজ্যিক ভবন তৈরির উদ্যোগ নিয়েছিলেন।



 

Show all comments
  • Md Nuruzzaman ৬ মে, ২০১৬, ১১:১২ এএম says : 0
    একটি ইতিহাস, একটি ঐতিহ্য অপমৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পেল। সংশ্লিষ্ট সকল কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বগুড়ার নবাববাড়ি সংরক্ষণে ডিসিকে সংষ্কৃতি মন্ত্রণালয়ের চিঠি
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ