Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ জানুয়ারি ২০১৯, ০৭ মাঘ ১৪২৫, ১৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

সিরাজগঞ্জে ২ নতুনে জমজমাট প্রচারণা

সৈয়দ শামীম শিরাজী, সিরাজগঞ্জ থেকে: | প্রকাশের সময় : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

নানা জল্পনা-কল্পনার পর শেষ মুহূর্তে প্রার্থী বদল করে সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাদপুর) আসনে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে প্রয়াত সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. এম এ মতিনের ছেলে ড. এম এ মুহিতকে চ‚ড়ান্ত করা হয়েছে। এতে সাধারণ নেতাকর্মীর মধ্যে ফিরে এসেছে চাঞ্চল্য। এই আসনে প্রথমে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছিল সাবেক এমপি কামরুদ্দিন এহিয়া খান মজলিসকে। শনিবার রাতে প্রার্থী বদল করে ড. এম এ মুহিতকে ধানের শীষ প্রতীকে চ‚ড়ান্ত মনোনয়ন দেওয়া হয়। দলীয় সূত্রে জানা যায়, ২০০৮ সালের নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী কামরুদ্দিন এহিয়া খান মজলিস আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কাছে হেরে যান। এরপর থেকে তার দলীয় কার্যক্রম স্তিমিত হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় ড. এম এ মুহিত দলের হাল ধরেন। প্রতিটি ওয়ার্ডের নেতাকর্মীদের বিপদে আপদে পাশে দাঁড়ান। দলীয় কর্মসূচি পালনে সার্বিক সহযোগিতা করছেন।

দলে ভেদাভেদ ভুলে সিরাজগঞ্জ-৩ (রায়গঞ্জ-তাড়াশ) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নতুন প্রার্থী ডা. আবদুল আজিজের পক্ষে একাট্টা হয়ে মাঠে নেমেছেন আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। নৌকাকে বিজয়ী করতে ভোর থেকে গভীর রাত অবধি নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে ভোটের মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন ডা. আজিজ। নতুন প্রার্থী হওয়ায় প্রথমদিকে নানা শঙ্কা থাকলেও মনোনয়নবঞ্চিত বর্তমান সংসদ সদস্য আমজাদ হোসেন মিলন বর্ধিত সভায় নেতাকর্মীদের ভেদাভেদ ভুলে ডা. আজিজের পক্ষে কাজ করার নির্দেশ দিলে মাঠের চিত্র পাল্টে যায়। সংসদ সদস্য আমজাদ হোসেন মিলন নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে দলের প্রার্থী ডা. আবদুল আজিজের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এলাকায় জনসংযোগ করছেন। মিলনের পরিবারের সদস্যরাও ডা. আজিজের পক্ষে নৌকাকে বিজয়ী করতে মাঠে নেমেছেন। এ ছাড়াও আসনটিতে আওয়ামী লীগের যে ১৭ নেতা মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন প্রত্যেকেই ভেদাভেদ ভুলে ডা. আজিজের পক্ষে মাঠে নেমেছেন। অন্যদিকে ক্লিনইমেজের ডা. আবদুল আজিজও মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধানে দলের নেতাকর্মীদের হৃদয় জয় করে সবাইকে এক প্লাটফর্মে দাঁড় করিয়েছেন।

অপরদিকে বিএনপির সমর্থকরা তাদের এ কথা মানতে রাজি নয়। কেননা তিন তিন বারের বিজয়ী আব্দুল মান্নান এর জনপ্রিয়তা সবার শীর্ষে যেহেতু ডা. আজিজ নতুন মুখ। তৃণমূল নেতাদের সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই অনেকেই তাকে চিনে না তাকে জানেনা। নতুন অবস্থায় তার পক্ষে সবার পরিচিত লোকদের ভোট চাওয়া খুবই দুষ্কর এবং যদিও ডা. আজিজের ব্যক্তিগত যোগ্যতা রয়েছে। কিন্তু তৃণমূল সংগঠনের সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই। অনেকে তাকে চিনেনও না জানেনও না এবং এ এলাকার কোন উন্নয়ন কাজই তিনি করেননি। তাই অনেকেই তাকে শীতের অতিথি পাখির সাথে তুলনা করছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ